শিশির- দিব্যেন্দুকে ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা, কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে ফের জল্পনা

দিব্য়েন্দু অধিকারী ও শিশির অধিকারী৷

শাসক দলের সঙ্গে কাঁথি এবং তমলুকের সাংসদের সম্পর্ক কার্যত ছিন্ন হয়েছে৷ যদিও সরকারি ভাবে তৃণমূল ছাড়েননি শিশির অধিকারী (Sisir Adhikari) বা দিব্য়েন্দু অধিকারী (Dibyendu Adhikari)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: এবার দুই তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারীকে ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় সরকার৷ রাজ্যের বিরোধী দলনেতা এবং বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর বাবা ও ভাইকে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্তে নতুন করে রাজনৈতিক জল্পনা শুরু হল৷ গত ডিসেম্বর মাসে শুভেন্দু অধিকারী বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর থেকেই শিশির এবং দিব্যেন্দুর বিজেপি যোগের জল্পনা চরমে পৌঁছয়৷

    শাসক দলের সঙ্গে কাঁথি এবং তমলুকের সাংসদের সম্পর্ক কার্যত ছিন্ন হয়েছে৷ যদিও সরকারি ভাবে তৃণমূল ছাড়েননি দু' জনের কেউই৷ দিব্যেন্দু অধিকারী দলবিরোধী কোনও মন্তব্য না করলেও শুভেন্দু নন্দীগ্রামে প্রার্থী হওয়ার পর শিশির অধিকারী নিজের দলের বিরুদ্ধেই মুখ খুলেছিলেন৷ শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের একটি সভাতেও হাজির ছিলেন তিনি৷ যদিও এর পরেও তৃণমূলের তরফে শিশির অধিকারীর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি৷ তবে শুভেন্দু বিজেপি-তে যোগদানের পরেও তাঁকে জেলা সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷

    শিশির এবং দিব্যেন্দু অধিকারী দু' জনকেই রাজ্য সরকারের তরফে নিরাপত্তা দেওয়া হয়৷ তবে অধিকারী পরিবার সূত্রে খবর, কেন্দ্রীয় নিরাপত্তার বিষয়ে এখনও দুই সাংসদই কিছু জানেন না৷ এ দিন সকাল পর্যন্ত বাড়িতেও কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী এসে পৌঁছয়নি৷ এর আগে জানা গিয়েছিল, রাজ্যে বিজেপি-র যে ৭৫ জন বিধায়ক রয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেককেই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা দেওয়া হবে৷

    প্রসঙ্গত, এ বার বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম আসন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরাজিত করেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তাঁকেই বিরোধী দলনেতা হিসেবে বেছে নেয় বিজেপি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: