গৃহবধূকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ! ধৃত স্বামী, শাশুড়ি, ননদ

গৃহবধূকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ! ধৃত স্বামী, শাশুড়ি, ননদ
representative image
  • Share this:

#গোবরডাঙ্গা: বধূ মৃত্যুর ঘটনায় ধৃত ৩। গৃহবধূকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অযিভোগে ধৃত স্বামীসহ তিন জন। ঘটনাটি ঘটেছে গোবরডাঙ্গার গৈপুর এলাকায়। মৃতার নাম রিতা ঘোষ । স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বছর ছয়েক আগে গাইঘাটার ইছাপুরের হাটখোলার বাসিন্দা বছর বাইশের রিতার বিয়ে হয় গোবরডাঙ্গার গৈপুর এলাকার প্রশান্ত ঘোষের সঙ্গে । তাদের পাঁচ বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে । অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই নানা কারণে শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা রিতাকে মারধর করত । গত সপ্তাহে অত্যাচার চরমে ওঠে। অত্যাচারিতা রিতা বাধ্য হয়ে নিজের বাড়িতে গিয়ে ওঠে। কিন্তু মায়ের মন! পাঁচদিনের মাথায় মেয়ের কথা ভেবে ফিরে আসে স্বামীর কাছে।

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যে নাগাদ আচমকাই বিষের জ্বালা-যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন রিতা। দীর্ঘ টালবাহানার পর রাতে, শ্বশুরবাড়ির লোকেরা তাঁকে নিয়ে আসে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। সন্ধ্যের সময় ঘটনা ঘটলেও রাত সাড়ে দশটার পরে খবর দেওয়া হয় বাপের বাড়িতে । গোপন করে যাওয়া হয় রিতার বিষ খাওয়ার বিষয়ও। রিতার মাকে জানানো হয়, গ্যাসের কারণে পেটের যন্ত্রনায় কষ্ট পাচ্ছিলেন রিতা, তাই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে রাতেই তাঁকে বারাসাত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় । রিতার পরিবার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের চাপ দেওয়ায় পরবর্তীতে তাঁরা জানান, রিতা বিষ খেয়েছে । শুক্রবার ভোরে বারাসাত হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয় । ঘটনায় শুক্রবারই গোবরডাঙ্গা থানায় মেয়েকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করে মৃতার পরিবার । তদন্তে পুলিশ মৃতার স্বামী প্রশান্ত ঘোষ, শাশুড়ি বিজলী ঘোষ ও ননদ রুপালি দাসকে গ্রেফতার করে । অভিযুক্ত শ্বশুর এখনও পলাতক। ধৃত তিনজনকেই শনিবার বারাসত আদালতে পেশ করা হয় ।

First published: 04:15:42 PM Jul 20, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर