বর্ধমানে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে পেঁয়াজের দাম, মাথায় হাত বিরিয়ানি ব্যবসায়ীদের

বর্ধমানে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে পেঁয়াজের দাম, মাথায় হাত বিরিয়ানি ব্যবসায়ীদের

পেঁয়াজের দাম বাড়ায় মাথায় হাত বিরিয়ানি ব্যবসায়ীদের।

  • Share this:

SARADINDU GHOSH

#বর্ধমান: বর্ধমানে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে পেঁয়াজের দাম। খুচরো বাজারে পেঁয়াজ কেজিপ্রতি আশি টাকা থেকে লাফিয়ে দেড়শ টাকা ছুঁয়ে ফেলেছে। পেঁয়াজের দাম বাড়ায় মাথায় হাত বিরিয়ানি ব্যবসায়ীদের।

মঙ্গলবার বর্ধমানের স্টেশন বাজার, রানিগঞ্জ বাজারে কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম ছিল আশি টাকা। সেই পেঁয়াজই বুধবার কেজিপ্রতি ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। স্হানীয় বাজারগুলিতে সেই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০ - ১৫০ টাকা কেজি দরে।

পেঁয়াজের দাম বাড়ায় খুবই সমস্যায় পড়েছে বিরিয়ানি বিক্রেতারা। বর্ধমান শহরে এখন বিরিয়ানি ব্যবসার চল বেড়েছে অনেকটাই। বিভিন্ন রেস্টুরান্টে বিরিয়ানির চাহিদা রয়েছেই। তার ওপর শুধু বিরিয়ানির দোকানই রয়েছে পঞ্চাশের বেশি। পেঁয়াজের দাম বাড়ায় রীতিমতো সমস্যায় সেই সব ব্যবসায়ীরা। বর্ধমানের বাসিন্দা সেখ মিশনের বিরিয়ানির ব্যবসা রয়েছে। প্রতিদিন তাঁর গড়ে চল্লিশ পঞ্চাশ কেজি পেঁয়াজের প্রয়োজন হয়। বিরিয়ানি রান্না ও স্যালাডে প্রচুর পেঁয়াজ লাগে।

তিনি বললেন, পেঁয়াজের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ায় ব্যবসা চালানোই দায় হয়ে উঠেছে। গতকাল পাঁচ কেজি পেঁয়াজের দাম ছিল সাড়ে চারশো টাকা। আজ তা কিনতে হচ্ছে ছশো টাকা পাল্লা দরে। এমনিতেই আলুর দাম চড়া। তার ওপর পেঁয়াজের দাম এভাবে বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসা চালানোই মুসকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে।দাম বেড়েছে মুরগীর মাংস সহ অন্যান্য সব জিনিসেরই। অথচ প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে বাজারের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিরিয়ানির দাম বাড়ানো যাচ্ছে না।

Loading...

বর্ধমান রেল স্টেশন বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী উদয় সাহা জানালেন, নাসিকের পেঁয়াজের ওপর এখানের বাজার নির্ভরশীল। সেই পেঁয়াজের যোগান কম হওয়াতেই দাম বাড়ছে। দাম বাড়ায় বিক্রিও কমছে। আগে এক কেজি পেঁয়াজ কিনলে এখন ক্রেতারা কিনছেন আড়াইশো গ্রাম। গত বছর এ সময়ে পেঁয়াজের কেজি প্রতি দাম ছিল পঁচিশ টাকা।

পেঁয়াজ কবে মধ্যবিত্তের নাগালে আসবে তার দিশা দিতে পারছেন না কেউই। উলটে চাহিদা অনুযায়ী যোগান না থাকলে দাম আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কার কথা শুনিয়ে রাখছেন তাঁরা।

এই অগ্নিমূল্যের বাজারে পরিস্থিতির সুযোগ নিতে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সক্রিয় বলেও অভিযোগ উঠছে। অভিযোগ, দাম বাড়াতে পেঁয়াজ মজুত করে রেখে বাজারে কৃত্রিম অভাব তৈরি করতে সক্রিয় তারা।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বাজারে সবজির দামে নজরদারি বাড়াতে ইতিমধ্যেই দুটি বিশেষ টাস্ক ফোর্স তৈরি করা হয়েছে। সেই দলের সদস্যরা বিভিন্ন বাজারে গোপনে নজরদারি চালাচ্ছেন। বেআইনিভাবে পেঁয়াজ মজুত করে রাখা হলে বা অযথা বাড়তি দাম নেওয়া হলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

First published: 09:58:48 PM Dec 04, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर