Home /News /south-bengal /
Earn Money: ছাড়া হল সরপুঁটি, বাটা মাছ, নিয়ম মেনে চাষে আয় হবে বিস্তর

Earn Money: ছাড়া হল সরপুঁটি, বাটা মাছ, নিয়ম মেনে চাষে আয় হবে বিস্তর

Berhampore News: earn money by fish cultivation- Photo- Representative

Berhampore News: earn money by fish cultivation- Photo- Representative

বর্তমানে সরপুঁটি বাজারে খুব কম পাওয়া যায় কিন্তু এই মাছ চাষে লাভ বেশি বলে জানান তাঁরা।

  • Share this:

    #বহরমপুর: বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে মাছ চাষ, আর এই পদ্ধতিতে মাছ চাষে নতুন  দিশা খুঁজে পেয়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলার মাছ চাষীরা। ব্যারাকপুরের ন্যাশনাল ক্যাম্পেইন অন ক্লাইমেট  স্মার্ট ইনল্যান্ড ফিশারিজ এন্ড ইনিশিয়েটিভ সংক্ষেপে ICAR -CIFRI এর প্রতিনিধি দল মাছ চাষে পথ দেখাচ্ছেন তাঁদের। কাশিমবাজার ফিশারি সোসাইটিতে এই নতুন পদ্ধতিতে মাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা জানালেন, ‘‘এখানে সায়েন্টিফিক পদ্ধতিতে মাছের পরিচর্যা করা হবেখাওয়ানো হবে। এছাড়াও মাছের গ্রোথ পরীক্ষা করা হবে। এসবের দায়িত্বে থাকবেন সোসাইটির যাঁরা দেখ ভাল করছেন তাঁরা।’’

    ব্যারাকপুর থেকে যে প্রতিনিধি দলটি এসেছেন তাঁরা বললেন,  ‘‘আমরা মাঝে মাঝে এখানে আসব। ওনাদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করব।’’  তাঁরা বলেন, ‘‘এখানকার জলে কচুরিপানা থাকায় জলের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে তা সাহায্য করবে। মাছ চাষের ক্ষেত্রে জলে কুড়ি শতাংশ কচুরিপানা থাকলে তা বিলের স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল। কচুরিপানা তাপমাত্রা কম করে এবং এই কচুরিপানায় মাছেরা ডিম পারে  বলে জানান তাঁরা।’’

    আরও পড়ুন - পুষ্টি যেন কম না থাকে, সায়নীকে দেওয়া হবে দুধ ও মাংস, মলোকাই চ্যানেল জয় করে আর যা পেলেন

    তাঁদের কথায় পূর্বেও এই সোসাইটি মাছ চাষ করেছে এবং আমাদের নানা রকম সহযোগিতায় ওনাদের মাছ চাষে উন্নতি হয়েছে। প্রজেক্ট শেষে লাভের মুখ দেখবেন চাষীরা। যা পরবর্তীতে এই পদ্ধতিতে মাছ চাষে আগ্রহী করে তুলবে।  প্রাথমিকভাবে এই বিলে বাটা মাছ ছাব্বিশ কেজি এবং সরপুঁটি মাছ কুড়ি কেজি ছাড়া হয়েছে। বর্তমানে সরপুঁটি বাজারে খুব কম পাওয়া যায় কিন্তু এই মাছ চাষে লাভ বেশি বলে জানান তাঁরা।

    কাশিমবাজার সোসাইটির ম্যানেজার সুদীপ্ত কুমার বিশ্বাস  বললেন, ‘‘ব্যারাকপুর থেকে মাছ চাষের উপর গবেষণা করার জন্য সায়েন্টিস্টরা  এসেছেন। তাঁরা আমাদের  হাতেনাতে মাছ চাষের পরিচর্যা শেখাচ্ছেন।’’ তিনি আরও বলেন ‘‘এখান থেকে সকালবেলায় চুনাখালি নিমতলা নতুন বাজার এবং ভাকরি সহ অন্যান্য  বাজারে বিক্রির জন্য মাছ নিয়ে যাওয়া হয়। আশাকরি ভবিষ্যতে এই বিক্রি আরও বাড়বে।’’

     Koushik Adhikary

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Berhampore, Fish Cultivation

    পরবর্তী খবর