• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • হাসপাতাল চত্বরেই সক্রিয় ছিনতাইকারীরা! তারপর যা হল...

হাসপাতাল চত্বরেই সক্রিয় ছিনতাইকারীরা! তারপর যা হল...

হাত থেকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়া বিষয়টি যথেষ্ট উদ্বেগের। হাসপাতাল চত্বরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

হাত থেকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়া বিষয়টি যথেষ্ট উদ্বেগের। হাসপাতাল চত্বরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

হাত থেকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়া বিষয়টি যথেষ্ট উদ্বেগের। হাসপাতাল চত্বরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: একে রোগী নিয়ে উৎকণ্ঠা তার ওপর সুযোগের অপেক্ষায় ওৎ পেতে রয়েছে ছিনতাইকারীরা। একটু অন্যমনস্ক হলেই ব্যাগ নিয়ে চম্পট দিচ্ছে তারা। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চত্ত্বরে মাঝেমধ্যেই ঘটছে এমন ঘটনা। শনিবার তেমনই ঘটনায় ধরা পড়লো দু‘ জন।

এদিন বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বরে রোগীর আত্মীয়র কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে তিন দুষ্কৃতী। কিন্তু অন্য রোগীর আত্মীয় ও কর্তব্যরত নিরাপত্তা রক্ষীদের তৎপরতায় ধরা পড়ে যায় দুইজন। একজন পালিয়ে গিয়েছে। এদিকে, ধরা পড়ার পরে এক দুষ্কৃতী ধারাল কিছু দিয়ে নিজের শরীরে আঘাত করে। রক্ত ঝরতে থাকে। হাসপাতালেই তার প্রাথমিক চিকিৎসা করায় পুলিশ।

শনিবার হাসপাতালের নতুন ভবনের লিফটের কাছে দাঁড়িয়ে টাকা গুণছিলেন শহরের উদয়পল্লী সংলগ্ন গৈতানপুর চরমানা এলাকার বাসিন্দা শুভঙ্কর মণ্ডল। তাঁর ছেলে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। শুভঙ্করবাবু জানান, টাকা গোনার সময় ওই তিনজন তাঁর হাত থেকে ৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালায়। তখন সেখানে থাকা অন্যান্য রোগীর আত্মীয়রা ছিনতাইকারীদের তাড়া করে। হাসপাতালের গেটের কাছে থাকা সিভিক ভলান্টিয়াররাও  তাড়া করে। দুইজনকে ধরেও ফেলে তারা। একজন পালিয়ে গিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম শেখ সফিকুল ও শেখ রাজা। তাদের বাড়ি বর্ধমান থানার কৃষ্ণপুরে। তাদের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া পাঁচ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। ধরা পড়ার পর শেখ রাজা নিজেই হাত কেটে দেয় ধারালো কিছু দিয়ে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ধরা পড়ার পর দুষ্কৃতীদের কয়েকজন মারধর করে। পুলিশ তাদের উদ্ধার করে। পুলিশ জানিয়েছে, ছিনতাইয়ের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও। এ ব্যাপারে রোগীর আত্মীয়দের সচেতন করতে নিয়মিত পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেমে প্রচারও করা হয়। হাসপাতালের এক আধিকারিক জানান, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগীর ভিড় লেগেই রয়েছে। বিশ্রামাগারগুলিতে রোগীর আত্মীয়রা রাত কাটান। তাদের ঘুমোনোর সুযোগ নিয়ে অতীতে চুরির ঘটনা ঘটেছে। তবে হাত থেকে টাকা ছিনিয়ে নেওয়া বিষয়টি যথেষ্ট উদ্বেগের। হাসপাতাল চত্বরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: