• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • BARDHAMAN DUE TO HEAVY RAINFALL VAST PADDY FIELD IS UNDER WATER THAT WILL EFFECT PADDY PRODUCTION FEARS FARMERS PBD

অতি বৃষ্টিতে নষ্ট আমন ধানের বীজতলা, মাথায় হাত পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকদের

এই জেলার ধান থেকেই জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে ২ টাকা কেজি দরের চাল পাঠানো হয়। মিড ডে মিলের চাল এই জেলাতেও তৈরি হয়। এই জেলায় ধান উৎপাদনে ঘাটতি হলে রাজ্যজুড়ে তার প্রভাব পড়বে।

এই জেলার ধান থেকেই জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে ২ টাকা কেজি দরের চাল পাঠানো হয়। মিড ডে মিলের চাল এই জেলাতেও তৈরি হয়। এই জেলায় ধান উৎপাদনে ঘাটতি হলে রাজ্যজুড়ে তার প্রভাব পড়বে।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: ইয়াস ও নিম্নচাপের বৃষ্টির জেরে পূর্ব বর্ধমানের বিস্তীর্ন  এলাকার আমন ধানের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চরম সমস্যায় পড়েছেন রাজ্যের শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকরা। রাজ্যে সবচেয়ে বেশি ধান উৎপন্ন হয় এই জেলায়। রায়না, খণ্ডঘোষ, মন্তেশ্বর, গলসি, জামালপুর, কাটোয়া, মঙ্গলকোটে ব্যাপক পরিমাণে ধানের চাষ হয়। কিন্তু এক টানা বর্ষণে জমিতে জল দাঁড়িয়ে গিয়েছে। তার ওপর খড়ি ও কুনুর নদীর জল দু'কূল ছাপিয়ে বইছে। জল নামার কোনও লক্ষ্মণ দেখা যাচ্ছে না। ফলে দিনের পর দিন জমি ডুবে থাকায় বীজতলা নষ্ট হয়ে যাবার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এই জেলার ধান থেকেই জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে ২ টাকা কেজি দরের চাল পাঠানো হয়। মিড ডে মিলের চাল এই জেলাতেও তৈরি হয়। এই জেলায় ধান উৎপাদনে ঘাটতি হলে রাজ্যজুড়ে তার প্রভাব পড়বে।তাই নতুন করে বীজতলা তৈরি করে যাতে ধান চাষে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা যায় সেদিকে তৎপরতা বাড়াচ্ছে কৃষি দফতর।

নতুন করে বীজ কিনে তাদের আবার বীজতলা তৈরি করতে হবে বলে জানাচ্ছেন কৃষকরা। ফলে একদিকে যেমন আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন তাঁরা অন্যদিকে আবার বীজতলা তৈরি করে চাষ শুরু করতে হলে চাষ এক মাসেরও বেশি সময় পিছিয়ে যাবে। যার জেরে ফলন কম হবে বলেই আশঙ্কা করছেন চাষীরা। পুনরায় বীজতলা তৈরি করে দেরিতে বীজ লাগানোর জন্য ফলনের ক্ষেত্রে  আবহাওয়া সমস্যা তৈরি করবে। তার ওপর দোসর হবে পোকার আক্রমণ বলেই চাষিরা মনে করছেন।

কখনও অতিবৃষ্টি, শিলাবৃষ্টি আবার কখনও অনাবৃষ্টিতে গত কয়েক বছর ধরেই পূর্ব বর্ধমানের ধান চাষ ক্ষতিগ্রস্ত। তার ওপর আবার এই ক্ষতির সম্মুখীন চাষীরা। কী করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না অনেকেই। তারা চাইছেন, সরকার তাদের দিকে একটু মানবিকভাবে দৃষ্টি দিক। এই বিষয়ে পূর্ববর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া জানিয়েছেন, পূর্ব বর্ধমানের একটা বিস্তীর্ণ এলাকার আমন ধানের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।ক্ষতির পরিমাণ ঠিক করতে বলা হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের কৃষি অধিকর্তাকে।ক্ষতির পরিমাণ জেনে চাষীদের সুবিধার্থে যাত দ্রুত সম্ভব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Published by:Pooja Basu
First published: