করোনা আক্রান্ত শুনলেই আকাশছোঁয়া ভাড়া চাইছে অ্যাম্বুলেন্স ! চাঞ্চল্য পূর্ব বর্ধমানে

শুধু তাই নয়, করোনা রোগী শুনলে মোবাইল ফোন সুইচ অফ করে রাখছে তাদের অনেকে।

শুধু তাই নয়, করোনা রোগী শুনলে মোবাইল ফোন সুইচ অফ করে রাখছে তাদের অনেকে।

  • Share this:

#বর্ধমান: রোগী করোনা পজিটিভ হলেই তার কাছ থেকে আকাশ ছোঁয়া হাঁকছে অ্যাম্বুলেন্স চালকরা। শুধু তাই নয়, করোনা রোগী শুনলে মোবাইল ফোন সুইচ অফ করে রাখছে তাদের অনেকে। পূর্ব বর্ধমান জেলার জামালপুরে এই ধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে। তা প্রকাশ্যে আসতেই জেলা জুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অবিলম্বে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবায় এই ধরনের অনিয়ম বন্ধ করতে উদ্যোগী হয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

জামালপুর ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্র লাগোয়া অ্যাম্বুলেন্স চালকরা বেশ কয়েকদিন ধরেই করোনা আক্রান্ত রোগীর পরিবার পরিজনের কাছ থেকে মোটা টাকা দাবি করছে বলে অভিযোগ উঠছিল। আবার বেশ কয়েকজন অ্যাম্বুলেন্স চালক রোগী করোনা আক্রান্ত শুনলেই মোবাইল ফোন সুইচড অফ করে রাখছে বলে অভিযোগ। এরইমধ্যে মঙ্গলবার একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এক রোগী ভাড়া চূড়ান্ত করে অ্যাম্বুলেন্স চড়ে চিকিৎসা করাতে গিয়েছিলেন। তিনি করোনা আক্রান্ত এমন রিপোর্ট আসতেই মাঝপথেই অ্যাম্বুলেন্স চালক আকাশ ছোঁয়া ভাড়া দাবি করে বলে অভিযোগ। রোগীর আত্মীয়রা পঞ্চায়েত সমিতিতে গিয়ে এ ব্যাপারে অভিযোগ জানান। এরপরই পঞ্চায়েত সমিতি ও বিডিও অফিসের আধিকারিকরা এই ধরনের অনিয়ম বন্ধ করতে উদ্যোগী হন। তাঁরা হাসপাতালে গিয়ে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিকের কাছে বিষয়টি জানান। পাশাপাশি এলাকার অ্যাম্বুলেন্স চালকদের সতর্ক করে দেন।

জামালপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মেহমুদ খান বলেন, এই ধরনের অভিযোগ পেয়েছি। এই ধরনের ঘটনা আর যাতে না ঘটে তা দেখা হচ্ছে। কোনও অ্যাম্বুলেন্স চালক এই মহামারি পরিস্থিতিতে মোবাইল ফোন সুইচড অফ করে রাখলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একইভাবে করোনা আক্রান্তদের পরিবহণের ক্ষেত্রে মোটা টাকা দাবি করা হলে তা অপরাধ বলে গণ্য করা হবে। বাড়তি ভাড়া নেওয়া হলে সংশ্লিষ্ট অ্যাম্বুলেন্স চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জামালপুরের বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার বলেন, অনিয়ম বন্ধ করতে কিছু পদক্ষেপের কথা ভাবা হয়েছে। করোনা রোগীর কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া নেওয়া যাবে না। আমরা দূরত্ব অনুযায়ী অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া বেঁধে দেব। এ ব্যাপারে আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিকের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে। প্রশাসনের আধিকারিকদের ফোন নম্বর সহ পোস্টার ব্যানার এলাকায় লাগানো হবে অ্যাম্বুলেন্স রোগী পরিবহণ করতে না চাইলে বা বাড়তি ভাড়া চাইলে বাসিন্দারা সেইসব নম্বরে ফোন করে অভিযোগ জানাতে পারবেন।

Saradindu Ghosh

Published by:Piya Banerjee
First published: