Home /News /south-bengal /
Bangla News : যে কোনও সময়ে ভেঙে পড়তে পারে! বেহাল সেতুর উপর রোজ চলছে হাজারো মানুষের যাতায়াত

Bangla News : যে কোনও সময়ে ভেঙে পড়তে পারে! বেহাল সেতুর উপর রোজ চলছে হাজারো মানুষের যাতায়াত

বেহাল সেতুর উপর রোজ চলছে হাজারো মানুষের যাতায়াত

বেহাল সেতুর উপর রোজ চলছে হাজারো মানুষের যাতায়াত

Bangla News : য়েকবছর আগেই ভেঙে গিয়েছে সেতুর কংক্রিটের রেলিং। শুধু তাই নয় খসে পড়ছে সিমেন্টের পলেস্তার।

  • Share this:

    #দাসপুর: দাসপুরে বেহাল কংক্রিটের সেতুর উপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যাতায়াত। যেকোনও সময়ে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কায় এলাকাবাসী। সেতু মেরামত নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দিকেই আঙুল তুলছেন খোদ পঞ্চায়েত প্রধান। প্রায় ৩০ বছরের পুরানো এলাকার কংক্রিটের সেতুর বেহালঅবস্থা। কয়েকবছর আগেই ভেঙে গিয়েছে সেতুর কংক্রিটের রেলিং। শুধু তাই নয় খসে পড়ছে সিমেন্টের পলেস্তার। বেরিয়ে গিয়েছে লোহার রড। এমনই জরাজীর্ণ সেতুর বেহাল অবস্থা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুরের বাসুদেবপুর পঞ্চাননতলা চন্দ্রেশ্বর খালের উপর কংক্রিটের সেতুর।

    প্রায় ৩০ বছরের পুরনো এই সেতু দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে একাধিক গ্রামের পথচলতি হাজারো মানুষ। এমনকি ওই এলাকার বেশ কয়েকটি স্কুলের ছাত্রছাত্রী থেকে বহু পণ্যবাহী গাড়ি ওই সেতুর উপর দিয়ে একপ্রকার ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে বলে দাবি এলাকাবাসী থেকে স্কুল শিক্ষকদের। বেহাল ভাঙা চোরা সেতু হওয়ার কারণেই যে কোনও মুহূর্তে ঘটতে পারে বড় দুর্ঘটনা। আর যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচলের সময়ে লোহার রেলিং না থাকায় ঝুঁকি নিয়েই যাতায়াত করতে হয় স্কুলপড়ুয়াদের। তাই দ্রুত কংক্রিটের সেতু মেরামতের দাবি তুলেছে এলাকার মানুষজন। বেশ কয়েক বছর ধরে ব্রিটিশ আমলের তৈরি এই কংক্রিটের সেতুর মেরামত না হওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছে এলাকাবাসী।

    পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুরের ১ ও ২ নম্বর ব্লকের যোগাযোগকারী এই বাসুদেবপুর পঞ্চাননতলার কংক্রিটের সেতুটি। এলাকাবাসী থেকে শুরু করে স্কুল শিক্ষক ও স্থানীয় ব্যবসায়ীদের একটাই দাবি, পথচলতি স্কুলপড়ুয়া থেকে শুরু করে সকল মানুষের জীবনের কথা ভেবে এবং দুর্ঘটনা ঘটার আগেই আগাম সাবধানতা অবলম্বন করে দ্রুত সেতুটি সংস্কার বা মেরামত করা হোক। যদিও এ বিষয়ে বাসুদেবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সাবিনা ইয়াসমিন সেতু প্রসঙ্গে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন স্থানীয় বিধায়ক থেকে জেলা প্রশাসন ও জেলা নেতৃত্বের উপরেই।

    আরও পড়ুন- ভারতেও ডেল্টা-ওমিক্রনের সংমিশ্রিত স্ট্রেন? সংক্রমণের উপসর্গগুলি জানুন আগেই

    ঘটনা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, "বার বার বিষয়টি নিয়ে দাসপুরের বিধায়ক থেক জেলা প্রশাসনকে জানানো হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। ওই সেতু সংস্কার বা মেরামত করার ক্ষেত্রে মোটা অঙ্কের ফান্ডের প্রয়োজন যা একটা পঞ্চায়েতের পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়। এবিষয়ে জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষকেও বিষয়টি জানানো হলেও কেউ উদ্যোগ নেয়নি" বহু পুরানো এই জরাজীর্ণ বেহাল কংক্রিটের সেতুর হাল ফেরাতে প্রশাসনের টালবাহানায় কোনও বড়সড় বিপদ না ঘটে যায় সেতু পারাপারে আশঙ্কায় প্রহর গুনছে সকলেই।

    Sukanta Chakroborty

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    Tags: West Medinipur

    পরবর্তী খবর