Home /News /purba-medinipur /
East Medinipur News: উন্নয়নের কাজে সবুজ ধ্বংসের অভিযোগ! কী বলছে বন দফতর?

East Medinipur News: উন্নয়নের কাজে সবুজ ধ্বংসের অভিযোগ! কী বলছে বন দফতর?

Sutahata police station

Sutahata police station

উন্নয়নের কাজে সবুজ ধ্বংসের অভিযোগ হলদিয়ার সুতাহাটায়। সারা পৃথিবীতে উন্নয়ন কর্মযজ্ঞে সর্ব প্রথম বলি হয় গাছ। এবার গাছ বাঁচিয়ে উন্নয়নের কাজ করার নির্দেশ দিল বন দফতর। 

  • Share this:

    #হলদিয়া: উন্নয়নের কাজে সবুজ ধ্বংসের অভিযোগ হলদিয়ার সুতাহাটায়। সারা পৃথিবীতে উন্নয়ন কর্মযজ্ঞে সর্বপ্রথম বলি হয় গাছ। এবার গাছ বাঁচিয়ে উন্নয়নের কাজ করার নির্দেশ দিল বন দফতর। হলদিয়া মেছেদা রাজ্য সড়কের পাশে জল নিকাশি ব্যবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে সুতাহাটায় নিকাশি নালা তৈরির কাজ চলছে। কিন্তু নালা তৈরির ফলে একের পর এক গাছ কাটা হচ্ছে, এমনকি ছোট গাছের ওপর মাটি চাপা দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন স্থানীয়রা। হলদিয়ার সুতাহাটা বিডিও অফিস লাগোয়া বাসস্ট্যান্ডের কাছে, রাস্তার ধারে সারি সারি ছোট গাছের ওপর মাটি কেটে ফেলে গাছগুলোকে মেরে ফেলা হচ্ছে বলে প্রতিবাদ জানান বৃক্ষপ্রেমী অরুণ মাইতি নামে স্থানীয় এক যুবক।

    বর্ষাকালে অতিবৃষ্টিতে জল জমে রাস্তাঘাট সহ লোকালয়ে। ফলে সমস্যায় পড়ে সুতাহাটা ব্লক এলাকার মানুষজন। সাধারণ মানুষের দাবি ছিল জল নিকাশির জন্য নিকাশি নালা করা হলে প্রতিবছর জল যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন সুতাহাটা ব্লকের বাসিন্দারা। সেইমতো হলদিয়া মেছেদা রাজ্য সড়কের পাশে নতুনভাবে নির্মিত হচ্ছে কংক্রিটের হাইড্রেন। হাইড্রেন নির্মাণের মেশিনের সাহায্যে খোলা হচ্ছে নালা। নালা কাটা ও নালা কেটে মাটি সরিয়ে রাখতে গিয়ে অনেক গাছের প্রাণ ধ্বংস করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন স্থানীয় বৃক্ষপ্রেমী যুবক অরুণ মাইতি। তিনি এ নিয়ে প্রতিবাদও জানান। এমনকি তিনি গাছগুলোকে বাঁচানোর জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু তারপরও মাটি কাটা মেশিনের চালক কর্নপাত না করায়, ওই যুবক সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিন্দা জানান এবং বালুঘাটা বন দফতরে খবর দেন।

    আরও পড়ুন- সুতাহাটাতে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ এলাকাবাসীর! কী কারণ?

    এই ঘটনার খবর পেয়ে বালুরঘাটা বন দফতরের আধিকারিকরা এসে ঠিকাদার সংস্থা এবং মাটি কাটার মেশিনের চালককে গাছের ক্ষতি করে কাজ করতে বাধা দেন এবং পরবর্তীকালে যাতে এভাবে গাছ না নষ্ট করা হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেন। যদিও ওই এলাকায় এর আগে নারকেল গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্যরা প্রতিবাদ করলেও প্রশাসনের উদাসীনতার অভিযোগ তোলেন স্থানীয় বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্যরা।

    আরও পড়ুন- টোটো যন্ত্রণা থেকে শহরবাসীকে মুক্তি দিতে বড় পদক্ষেপ! জানুন কী করছে পৌরসভা..

    স্থানীয় বিজ্ঞান মঞ্চের এক সদস্যের কথায়, 'আমরা কেউই উন্নয়নের বিরোধী না, কিন্তু সবুজ বাঁচিয়ে উন্নয়নের কাজ হোক।' গাছ কাটার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে সুতাহাটার বিডিও আসিফ আনসারি বলেন, 'কোন গাছ কাটা হয়নি‌। কাজের সুবিধার্থে দু'একটি গাছ স্থানান্তরিত করা হয়েছে।'

    Saikat Shee
    First published:

    Tags: Cutting down Trees, Drainage, East Medinipur, Forest Department, Haldia, SUTAHATA

    পরবর্তী খবর