Home /News /off-beat /
Snake bite : অবিশ্বাস্য! সুস্থ হয়ে উঠেছে সাপে কাটা রোগী, বন্ধ হয়েছিল যার কিডনির ক্রিয়া

Snake bite : অবিশ্বাস্য! সুস্থ হয়ে উঠেছে সাপে কাটা রোগী, বন্ধ হয়েছিল যার কিডনির ক্রিয়া

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Snake bite : এমন ধরনের ঘটনা খুবই কম রয়েছে, যেখানে সাপের কামড়ে কিডনি বিকল হয়ে যাওয়ার পরেও বেঁচে ফিরে আসা সম্ভব হয়েছে।

  • Share this:

#পুণে: পুণেতে (Pune) অসম্ভব হয়ে উঠল সম্ভব। ৩০ বছর বয়সের এক মহিলা যাঁর কিডনি সম্পূর্ণ ভাবে বিকল হয়ে গিয়েছিল সাপের কামড়ে, তিনি আবার সুস্থ হয়ে উঠেছেন। পুণের নোবেল হাসপাতালের (Noble Hospital) কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে ৬ সপ্তহাহের ডায়ালাইসিসের পর সম্পূর্ণ ভাবে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩০ বছরের সেই মহিলা, সাপের কামড়ে যাঁর কিডনি পুরো বিকল হয়ে গিয়েছিল। এমন ধরনের ঘটনা খুবই কম রয়েছে, যেখানে সাপের কামড়ে কিডনি বিকল হয়ে যাওয়ার পরেও বেঁচে ফিরে আসা সম্ভব হয়েছে।

ডিসেম্বরের ২ তারিখে সেই মহিলা নোবেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি হন। নোবেল হাসপাতালের নেফ্রোলজিস্ট এবং ট্রান্সপ্লান্ট ফিজিসিয়ান ডাক্তার অবিনাশ ইগ্নেসিয়াস (Dr Avinash Ignatius) জানিয়েছেন যে, যে সময় সেই মহিলা জরুরি বিভাগে ভর্তি হন, সেই সময় তাঁর ইউরিনের মাত্রা খুবই কম হয়ে গিয়েছিল এবং সারা শরীরে সোয়েলিং ছড়িয়ে পরেছিল। তিনি বিভিন্ন ধরনের সমস্যার মধ্যে ছিলেন। সঙ্গে সঙ্গে সেই মহিলাকে আইসিইউতে (ICU) ট্রান্সফার করা হয়। রক্ত পরীক্ষা করে দেখা যায় যে তাঁর লোহিত রক্তকণিকা এবং প্লেটলেটের মাত্রা খুবই কম। এর পর বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা করে জানা যায় যে সেই মহিলা হেমোলাইটিক ইউরেমিক সিন্ড্রোমে (HUS) আক্রান্ত, যা সাপে কামড়ানোর ফলে হয়। একই সঙ্গে সেই মহিলার কিডনির বায়োপসি করা হয়।

আরও পড়ুন- অনলাইনে নিজের প্রস্রাব বিক্রি করে আয় করছেন এই মহিলা, এক কাপের দাম ৫২০০ টাকা

ডাক্তার অবিনাশ ইগ্নেসিয়াস জানিয়েছে যে, হেমোলাইটিক ইউরেমিক সিন্ড্রোমের ফলে সেই মহিলার কিডনি সম্পূর্ণ রূপে বিকল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। এর জন্য খুব দ্রুত তাঁর ডায়ালাইসিস চালু করা হয়। এর পর সেই মহিলার প্লাজমাফেরেসিস কন্টামিনেটেড প্লাজমা পরিবর্তন করা হয় স্বাস্থ্যকর প্লাজমার সঙ্গে। এটি করা হয় বিশেষ প্লাজমা ফিল্টারের মাধ্যমে। এর পর প্রায় ৬ সপ্তাহ ধরে একটানা সেই মহিলার ডায়ালাইসিস করা হয়। এর পর সেই মহিলা কিছুটা সুস্থ হয়ে ওঠেন এবং তাঁর ডায়ালাইসিস বন্ধ করা হয়। সেই মহিলার কিডনি আগের মতো কাজ করা শুরু করে।

আরও পড়ুন-- খুব দ্রুত ঠান্ডা হয়ে যাচ্ছে পৃথিবীর অন্দরের অংশ, আতঙ্কে গবেষকরা!

সাপের কামড় খুবই মারাত্মক, এর মাধ্যমে অনেক মানুষের মৃত্যু হয়। এমন অনেক ধরনের সাপ রয়েছে যার বিষ খুবই মারাত্মক। সেই বিষ একবার মানুষের শরীরে প্রবেশ করলে মানুষের মৃত্যু ঘটে। সেই সকল সাপের বিষের জন্য কোনও ধরনের চিকিৎসা এখনও আবিস্কার হয়নি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন (WHO) জানিয়েছে যে প্রতি বছর পুরো বিশ্বে প্রায় ১,২৫,০০০ মানুষের মৃত্যু হয় প্রায় ২,৫০,০০০ হাজারের মতো ক্ষতিকারক সাপের কামড়ে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Kidney, Snake Bite

পরবর্তী খবর