Home /News /off-beat /
Cancer : ক্যানসার চিকিৎসায় জিভের অর্ধেক অংশ নষ্ট হয়েছিল! কীভাবে সুস্থ হচ্ছেন, জানালেন মহিলা

Cancer : ক্যানসার চিকিৎসায় জিভের অর্ধেক অংশ নষ্ট হয়েছিল! কীভাবে সুস্থ হচ্ছেন, জানালেন মহিলা

ক্যানসার চিকিৎসায় জিভের অর্ধেক অংশ নষ্ট হয়েছিল!কীভাবে সুস্থ হচ্ছেন,জানালেন মহিলা

ক্যানসার চিকিৎসায় জিভের অর্ধেক অংশ নষ্ট হয়েছিল!কীভাবে সুস্থ হচ্ছেন,জানালেন মহিলা

Cancer : মহিলা জানিয়েছেন যে ২০১৩ সালে ক্যানসার রোগের সঙ্গে লড়াই করার সময় তাঁর জিভের একটি অংশ নষ্ট হয়ে যায়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ব্রিটেনে ক্যানসার রোগের চিকিৎসা করানোর সময় নষ্ট হয়ে গিয়েছে এক মহিলার জিভের অর্ধেক অংশ। কিন্তু ডাক্তাররা জিভের নষ্ট হওয়া অংশ পুনরায় তৈরি করে দিয়েছেন তাঁর পায়ের অংশের টিস্যু দিয়ে। কিন্তু নতুন করে তৈরি করা জিভের সেই অর্ধেক অংশে কোনও স্বাদ পাওয়া যায় না। কলোরাডোতে বসবাসকারী ৪২ বছর বয়সী ক্যামেরন নিউসোম টিকটকে (TikTok) এই ঘটনাটি সকলের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। সেই মহিলা জানিয়েছেন যে ২০১৩ সালে ক্যানসার রোগের সঙ্গে লড়াই করার সময় তাঁর জিভের একটি অংশ নষ্ট হয়ে যায়।

কলোরাডোতে বসবাসকারী ৪২ বছর বয়সী ক্যামেরন নিউসোম টিকটকে জানিয়েছেন যে, ক্যানসার রোগের সঙ্গে লড়াই করার সময় তাঁর জিভের অর্ধেক অংশ সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে যায়। এর ফলে ডাক্তাররা তাঁর জিভের অর্ধেক অংশ পুনরায় তৈরি করেন তাঁর পায়ের অংশের টিস্যু দিয়ে। কিন্তু এর ফলে তাঁর কথা বলতে সুবিধা হলেও, নতুন করে তৈরি করা জিভের অর্ধেক অংশে তিনি কোনও ধরনের স্বাদ পেতেন না। এর মধ্যেই ৪২ বছর বয়সী ক্যামেরন নিউসোম নতুন সমস্যার সম্মুখীন হন। ক্যামেরন নিউসোমের সঙ্গে ঘটে এক বিচিত্র ঘটনা। মহিলার নতুন অংশের জিভে চুল গজানো শুরু করেছে, যে অংশ তৈরি করা হয়েছিল তাঁর পায়ের টিস্যু দিয়ে। এত কিছুর পরেও দ্য সানকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে ক্যামেরন নিউসোম জানিয়েছেন, "আমি খুবই ভাগ্যবান যে আমি প্রায় ৯ বছর ধরে ক্যানসার রোগের সঙ্গে লড়াই করে জয়লাভ করতে পেরেছি।"

আরও পড়ুন- করোনার ভ্যাকসিনেশনে সমস্যা খাড়া করতে পারে ওমিক্রন, জানুন বিশদে!

ক্যামেরন নিউসোম প্রথমে লক্ষ্য করেন যে তাঁর জিভে ব্যথা করছে এবং হালকা দাগ রয়েছে। এর মধ্যে বায়োপ্সি করে দেখা যায় যে তাঁর ক্যানসারের রিপোর্ট নেগেটিভ। কিন্তু এর ১ বছর পরে তাঁর জিভের সেই দাগ পুনরায় ফিরে আসে। এরপর তিনি বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা করালেও, সেই পরীক্ষায় কিছু ধরা পড়েনি। কিন্তু এরপর ক্যামেরন নিউসোমের জিভে বেশি ব্যথা হতে থাকে। এর ফলে তাঁর কথা বলতে এবং খাবার খেতে সমস্যা হচ্ছিল। এরপরে সেই মহিলার জিভে সৃষ্টি হয় গোলাপি রঙের টিউমার।

আরও পড়ুন- কখন কোভিড টেস্ট করা প্রয়োজন, কখন নয়? জেনে নিন

২০১৩ সালে ক্যামেরন নিউসোমকে অ্যাডভান্সড স্টেজের জিভের ক্যানসারের চিকিৎসা করাতে হয়। এর ফলে সেই মহিলাকে কেমোথেরাপি এবং রেডিয়েশনের মোকাবিলা করতে হয়। ক্যানসারের চিকিৎসা করানোর সময় সেই মহিলার জিভের অর্ধেক অংশ বাদ দিতে হয়। কিন্তু ডাক্তাররা সেই মহিলার পায়ের টিস্যু দিয়ে তাঁর জিভের অর্ধেক অংশ তৈরি করে দেন, যে অংশ দিয়ে উঠতে শুরু করেছে চুল!

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Cancer, Tongue

পরবর্তী খবর