Home /News /north-bengal /

Bikaner Express Accident: ময়নাগুড়ির রেল দুর্ঘটনা স্থলে গিয়ে হঠাৎ বুকে ব্যথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথের

Bikaner Express Accident: ময়নাগুড়ির রেল দুর্ঘটনা স্থলে গিয়ে হঠাৎ বুকে ব্যথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথের

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

North Bengal Train Accident: এ দিকে শুক্রবার সকালেই খবর আসে, রেল লাইনে ত্রুটি অথবা অতিরিক্ত গতির কারণে নয়, ইঞ্জিনের কোনও ত্রুটির কারণেই উত্তরবঙ্গের ময়নাগুড়িতে বেলাইন হয়েছে বিকানের এক্সপ্রেস৷

  • Share this:

    #ময়নাগুড়ি: জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ি দহমনিতে ট্রেনের দুর্ঘটনাস্থল (North Bengal Train Accident) পরিদর্শনে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লেন প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শুক্রবার আচমকাই তাঁর বুকে যন্ত্রণা শুরু হয়। তড়িঘড়ি তাঁকে সেখান থেকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। আপাতত স্থিতিশীল আছেন তিনি। শুক্রবার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন, "কেন্দ্রীয় সরকার দায়ী, রেল দফতর দায়ী দুর্ঘটনার জন্য। পুরনো কোচ দিয়েছে পশ্চিম্বঙ্গ এবং নর্থ ইস্ট এর জন্য. সেই কারনেই দূর্ঘটনা। অত্যাধুনিক কোচ দেওয়া হয়নি। খারাপ কোচ, পুরনো কোচগুলিকে তুলে নেওয়া হোক। উত্র ভারত ও দক্ষিণ ভারতের জন্য যেমন নতুন কোচ দেওয়া হচ্ছে । তেমন আমরাও চাই। পুরানো কোচ যারা শিফট করেছেন, তাঁরাও এই ঘটনার জন্য দায়ি। তাঁদেরও ধরতে হবে। উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত হোক এবং ১৫ দিনের মাথায় একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হোক কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছিল।

    আরও পড়ুন- ট্রাকশন মোটরস খুলে যায়, ময়নাগুড়ির দুর্ঘটনায় যে মারাত্মক কারণ উঠে আসছে...

    এ দিকে শুক্রবার সকালেই দুর্ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত প্রকাশ্যে আসতে শুরু করে। সূত্র মারফত জানা যায়, রেল লাইনে ত্রুটি অথবা অতিরিক্ত গতির কারণে নয়, ইঞ্জিনের কোনও ত্রুটির কারণেই উত্তরবঙ্গের ময়নাগুড়িতে বেলাইন হয়েছে বিকানের এক্সপ্রেস (North Bengal Train Accident)৷ শুক্রবারই দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর এমন দাবি করেছেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব৷ তিনি বলেন, ইঞ্জিনে কী ধরনের ত্রুটি ছিল বা সেই ত্রুটির পিছনে কী কারণ ছিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ খুব শিগগিরই তদন্ত শেষ হবে বলেও আশ্বস্তও করেছেন রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব৷  প্রাথমিকভাবে পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখার পর রেলের আধিকারিকদের অনুমান, ট্রাকশন মোটরস খুলে পড়ে যায়। এর কাজ হচ্ছে হুইল-অ্যাক্সেল পরিচালনা করা। সেটা করতে গিয়েই বাধা আসে। ভেঙে পড়েছে এটা বুঝতে পারেন লোকো পাইলট ও সহকারী লোকো পাইলট। তাঁরা সঙ্গে-সঙ্গেই এমারজেন্সি ব্রেক প্রয়োগ করেন। কিন্তু ট্রেনের যথেষ্ট গতি ছিল। আর ICF কোচ হওয়ার জন্যেই একটি কোচের উপরে অন্য কোচ উঠে পড়ে। তার জেরেই এই দূর্ঘটনা ও তার এই বিরাট অভিঘাত।

    রবি চৌধুরী

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: North Bengal Train Accident

    পরবর্তী খবর