দফায় দফায় বিজ্ঞপ্তি দিলেও মিলছে না কোভিড হাসপাতালের জন্য চিকিৎসক, সমস্যায় মালদহ মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ

প্রথম পর্যায়ে গত ৮ মে থেকে ১৩ মে পর্যন্ত এই শূন্য পদগুলিতে আবেদন জমা দেওয়ার সময়সীমা ছিল।

প্রথম পর্যায়ে গত ৮ মে থেকে ১৩ মে পর্যন্ত এই শূন্য পদগুলিতে আবেদন জমা দেওয়ার সময়সীমা ছিল।

  • Share this:

#মালদহ: বারবার বিজ্ঞপ্তি দিয়েও চিকিৎসক মিলছে না মালদহ মেডিক্যাল কলেজের কোভিড হাসপাতালে। চুক্তিভিত্তিক চিকিৎসক পদে ২০টি শূন্যপদে মালদহ মেডিক্যালে যোগদান করেছেন মাত্র একজন। ফলে তৃতীয় দফায় ফের বিজ্ঞপ্তির কথা ভাবছে মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে বাড়ছে সমস্যাও। জানা গেছে, ২০ জন চিকিৎসক চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল মেডিকেল কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে মাত্র ২ জন চিকিৎসক আবেদন ও ইন্টারভিউ দিলেও কাজে যোগদান করেছেন মাত্র  এক জন চিকিৎসক।

ফলে কোভিড চিকিৎসার ক্ষেত্রে ১৯ জন চিকিৎসকের পদ এখনও ফাঁকা। তবে, তুলনায় ভালো সাড়া মিলেছে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে চুক্তিভিত্তিক নার্স এবং টেকনিশিয়ান নিয়োগের ক্ষেত্রে। চুক্তিভিত্তিক নার্স পদে যোগদান করেছেন প্রায় ৫০ জন। এক্ষেত্রে ৬০ জন নার্সের শূন্যপদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি বিভিন্ন বিভাগের ২২ জন টেকনিশিয়ান পদে শূন্যপদের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল। এরমধ্যে কাজে যোগদান করেছেন ১০ জন। করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য দুই মাসের চুক্তি ভিত্তিক চিকিৎসক নার্স ও টেকনিশিয়ান নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মালদা মেডিকেল কতৃপক্ষ।

মেডিকেল কলেজ সূত্রের খবর, চলতি মাসের গোড়ার দিকে মালদহ মেডিকেল কলেজে করোনা রোগীর চাপ সামাল দিতে রাজ্যের অনুমতি ক্রমে চুক্তিভিত্তিক চিকিৎসক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ১২ জন সিসিইউ ও এইচডিইউ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক,  তিন জন মেডিসিন বিভাগের, তিন জন চেস্ট ও আরও দুই জন অ্যানাসথেসিস্ট বিভাগের চিকিৎসক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

এরমধ্যে কেবল মাত্র একজন মেডিসিন চিকিৎসক যোগদান করেছেন।প্রথম পর্যায়ে গত ৮ মে থেকে ১৩ মে পর্যন্ত এই শূন্য পদগুলিতে আবেদন জমা দেওয়ার সময়সীমা ছিল। প্রথম দফায় প্রয়োজনীয় আবেদন জমা না হওয়াতে দু'বার ওয়াক ইন ইন্টারভিউ নেওয়া হয় গত ১২ ও ১৭ মে। শেষ পর্যন্ত গত ২৬ মে কাজে যোগদানে ইচ্ছুক মাত্র একজন চিকিৎসককে যোগদান করানো হয়।

Sebak DebSarma

Published by:Debalina Datta
First published: