Home /News /north-bengal /
Buddha Purnima: কয়েক বছর ধরে গ্রামে থাকছেন বৌদ্ধ ভিক্ষু, বুদ্ধপূর্ণিমায় উদ্বোধন প্রথম বুদ্ধ মন্দিরের

Buddha Purnima: কয়েক বছর ধরে গ্রামে থাকছেন বৌদ্ধ ভিক্ষু, বুদ্ধপূর্ণিমায় উদ্বোধন প্রথম বুদ্ধ মন্দিরের

বৌদ্ধ ভিক্ষুক মন্দিরের পূজার্চনা করবেন

বৌদ্ধ ভিক্ষুক মন্দিরের পূজার্চনা করবেন

Buddha Purnima: অবশেষে মন্দির তৈরি সম্পন্ন হয়েছে। এদিন বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে ঘটা করে উদ্বোধন করা হয় মন্দিরটির।

  • Share this:

    ইংরেজবাজার : মালদহ জেলায় প্রথম তৈরি বুদ্ধমন্দিরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হল সোমবার। মালদহের ইংরেজবাজার ব্লকের যদুপুর ২ নম্বর পঞ্চায়েতের আমজামতলা গ্রামে মন্দিরটি তৈরি করা হয়েছে। বেশ কয়েক বছর ধরেই গ্রামে একজন বৌদ্ধ ভিক্ষুক এসে নিয়মিত থাকছেন। তাঁর আশ্রমে এই এলাকার বাসিন্দারা একটি বৌদ্ধ মন্দির তৈরির উদ্যোগ নিয়েছিলেন বেশ কয়েক বছর আগেই।

    অবশেষে মন্দির তৈরি সম্পন্ন হয়েছে। এদিন বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে ঘটা করে উদ্বোধন করা হয় মন্দিরটির। ত্রিপুরা থেকে আগত এক বৌদ্ধ ভিক্ষুক সেখানে পূজার্চনা করেন। বুদ্ধমূর্তি স্নান করিয়ে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে মন্দিরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ইংরেজবাজার পুরসভার কাউন্সিলর সন্ধ্যা দাস, মালদা জেলা পরিষদের সদস্য স্বপন মিশ্র, মন্দিরের উদ্যোক্তা উপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস,রমেন রবিদাস-সহ অন্যান্যরা।

    আরও পড়ুন :  ডাক্তার দেখাতে গিয়ে নিখোঁজ ‘চিগি’, পোষা বিড়ালের খোঁজে পুলিশকুকুরের কথা ভাবনা

    ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন, ‘‘মালদহে একসময় বৌদ্ধ বিহার ছিল। হবিপুর থানার জগজীবনপুরে তার ধ্বংসাবশেষ মিলেছে। বর্তমানে সেটি পর্যটন কেন্দ্রে। এই প্রথম মালদা জেলায় বৌদ্ধ মন্দির তৈরি করা হয়েছে।’’

    আরও পড়ুন : পায়ে ফুটবল নিয়ে কাঁটাবুনি থেকে আমেরিকার মিশিগানের পথে, আদিবাসীকন্যাকে সংবর্ধনা

    মালদহ জেলায় এত দিন কোন বৌদ্ধমন্দির ছিল না। গত সাত বছর ধরে এক বৌদ্ধ ভিক্ষুক আমজামতলা গ্রামে এসে রয়েছেন। তিনি নিয়মিত বুদ্ধের পুজো অর্চনা করে আসছেন। স্থানীয় বাসিন্দাদের সহযোগিতায় সেখানে একটি মন্দির তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়। বুদ্ধপূর্ণিমার দিন এই মন্দিরের উদ্বোধন হয়। উদ্যোক্তা নির্মল কুমার বিশ্বাস বলেন,  ‘‘নিয়মিত পূজা হবে বুদ্ধ মন্দিরে। বৌদ্ধ ভিক্ষুক মন্দিরের পূজার্চনা করবেন। গত কয়েক বছর ধরে পরিকল্পনা চলছিল বৌদ্ধ মন্দির তৈরির। অবশেষে এ দিন তা উদ্বোধন করা হয়। সকলের জন্য খোলা থাকবে মন্দির।’’ স্থানীয় গ্রামের বাসিন্দারা চাঁদা তুলে এই মন্দিরটি তৈরি করেন। সমাজের মধ্যে শান্তি সৌহার্দ্য বজায় রাখার বার্তা দেওয়া হয় এ দিনের বৌদ্ধ মন্দির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে। এদিন মন্দিরে পুজো দিতে বহু ভক্তের সমাগম ঘটে।

    ( প্রতিবেদন : Harashit Singha)

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: BuddhaPurnima, Malda

    পরবর্তী খবর