corona virus btn
corona virus btn
Loading

মাধ্যমিকে ষষ্ঠ, ফিজিক্স বা অঙ্কে গবেষণা করতে চায় শিলিগুড়ির রিঙ্কিনি ঘটক

মাধ্যমিকে ষষ্ঠ, ফিজিক্স বা অঙ্কে গবেষণা করতে চায় শিলিগুড়ির রিঙ্কিনি ঘটক

মাধ্যমিকে ফের প্রথম দশে জায়গা পেল শিলিগুড়ি। শহরের নাম রাজ্যের মেধা তালিকায় তুলে এনে শিলিগুড়িকে গর্বিত করে তুলেছে রিঙ্কিনি ঘটক।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: মাধ্যমিকে ফের প্রথম দশে জায়গা পেল শিলিগুড়ি। শহরের নাম রাজ্যের মেধা তালিকায় তুলে এনে শিলিগুড়িকে গর্বিত করে তুলেছে রিঙ্কিনি ঘটক। শিলিগুড়ি গার্লস স্কুলের ছাত্রী রিঙ্কিনি। ক্লাস ওয়ান থেকেই ও মেধাবী ছাত্রী। কোনও দিনই তৃতীয় হয়নি। হয় ফার্স্ট, নয়তো সেকেণ্ড! টেস্টেও স্কুলের টপার ছিল রিঙ্কিনি। এবারে মাধ্যমিকে রাজ্যে সম্ভাব্য ষষ্ঠ স্থান পেয়েছে শিলিগুড়ির রিঙ্কিনি। ওর প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৭৷ ভালো ফল করবে তা ও জানতো। কিন্তু মেধা তালিকায় প্রথম দশে ওর নাম উঠে আসবে, এমনটা প্রত্যাশিত ছিল না।

ছোটো থেকেই মেধাবী রিঙ্কিনির বাবার বছর চারেক আগে মৃত্যু হয়। ওর মা একজন আইনজীবী। মেয়ের সাফল্যে খুশী ওর মা। সেভাবে সারা দিন বই নিয়ে বসতো না রিঙ্কিনি। টেস্টের পর দিনে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা পড়াশোনা করতো। স্কুলের শিক্ষিকা, গৃহ শিক্ষকদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রেখে চলত। টেস্টের পর স্কুল বন্ধ থাকলেও ও মাঝে মধ্যে গিয়ে ক্লাস করে আসত। সেইসঙ্গে কয়েকজন বান্ধবী মিলে অন লাইনে গ্রুপ স্টাডিও করত। তারই ফলই মাধ্যমিকের মার্কশিট। কলকাতা বা বাইরে নয়, নিজের স্কুল শিলিগুড়ি গার্লসেই এলিভেন এবং টুয়েলভে পড়াশোনা করবে। ওর ইচ্ছে গবেষণা করার। ফিজিক্স বা অঙ্কে গবেষণা করার ইচ্ছে। আপাতত সায়েন্সে উচ্চ মাধ্যমিকেও ভালো ফল করতে চায় রিঙ্কিনি। এটাই প্রথম টার্গেট। পড়াশোনার পাশাপাশি গান শোনাই ওর হবি। রবীন্দ্র সঙ্গীতের অনুরাগী। ওর প্রিয় রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী কণিকা বন্দোপাধ্যায়।

গান না শিখলেও নিয়মিত বাড়িতেই একা একা চর্চা করে আসছে। অভিভাবক থেকে স্কুলের শিক্ষিকা, প্রাইভেট টিউটর এবং বন্ধু, বান্ধবদের সহযোগিতাতেই এই সাফল্য এসছে বলে জানায় রিঙ্কিনি। মেয়ের সাফল্যে খুশী মা প্রথম মিষ্টিমুখ করান। তারপর একে একে আসেন ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর থেকে পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্যরা। চলে সংবর্ধনার পালা। ওর বাড়িতে ছুটে যান প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যানও। ওর এই সাফল্যে খুশির আবহ শহরে।

Published by: Akash Misra
First published: July 15, 2020, 6:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर