corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনের নিয়ম ভাঙলেই মিলছে লাঠিপেটা, কান ধরে ওঠবস, শিলিগুড়িজুড়ে অতি সক্রিয় পুলিশ

লকডাউনের নিয়ম ভাঙলেই মিলছে লাঠিপেটা, কান ধরে ওঠবস, শিলিগুড়িজুড়ে অতি সক্রিয় পুলিশ

শিলিগুড়িজুড়ে অতি সক্রিয় পুলিশ, চলছে ব্যপক ধরপাকড়

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: লকডাউন ভাঙছেন? মুখে মাস্ক নেই? নেই ফেস কভারও? আর বেড়িয়েছেন রাস্তায় বা বাজারে! তাহলেই সমূহ বিপদ! বেশ সক্রিয় শিলিগুড়ি পুলিশ। কোনও ছাড় নেই। লকডাউনের ২৭তম দিনে অতি সক্রিয় শিলিগুড়ি পুলিশ। নিয়ম ভাঙলেই কড়া দাওয়াই। শহরের উত্তরের চম্পাসারি, দেবীডাঙা দিয়ে শুরু। বিধান মার্কেট, জলপাই মোড় বাজার হোক কিংবা এনজেপি গেটবাজার। সর্বত্রই কড়া পুলিশ। কাউকেই রেহাই নয়। সকাল থেকেই চলছে ব্যপক ধরপাকড়। কোনও বাজারে বা মুদিখানা দোকানে মানা হচ্ছে না পারস্পরিক দূরত্ব। দাঁড়িয়ে পুলিশ কর্মীরাই চুন দিয়ে কেটে দিলেন দণ্ডী। আইন ভাঙলেই ঠিকানা পুলিশের গাড়ি৷

গতকাল ২৫০ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আজ সকাল থেকেই একের পর গ্রেপ্তার শুরু করে পুলিশ। চম্পাসারি, দেবীডাঙা বাজারে শিলিগুড়ির জোন টু'র ডিসিপি, এসিপি'র নেতৃত্বে চলে অভিযান। মধ্য শিলিগুড়ির বিধান মার্কেট, সুভাষপল্লি বাজারেও অভিযান চালায় পুলিশ। একইভাবে অভিযানে নামে এনজেপি থানার পুলিশিও। গেটবাজারের বিভিন্ন প্রান্ত নাকাবন্দী করে দেওয়া হয়। একের বেশী লোককে এক সাথে বাজারে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। বাজার কমিটিও সক্রিয়। বার বার করে মাইকে বলা হচ্ছে, দ্রুত বাজার সেরে বাড়ি ফিরে যান। অযথা ভিড় জমাবেন না। আর বিনা মাস্কে বাজারে পা ফেলা যাবে না। তবুও একাধীক লোক বাজারে আসছেন। ঢোকার মুখেই আটকে দেওয়া হচ্ছে। একজনকে বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। আর এক জনকে বাজারে যাওয়ার অনুমতি দেয়।

আর বিনা মাস্কে বের হলেই কড়া দাওয়াই। এক যুবককে ২০ বার কান ধরে ওঠবস করানো হয়! তারপর মাস্ক কিনিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। আর এক বিনা মাস্কের বাইক আরোহীকে লাঠিপেটা করা হয়। আরো একটা অন্য ছবি ধরা পড়লো এনজেপি থানার সামনে। মাস্ক নেই, পরনের জামা খুলিয়ে মুখ বাধতে বাধ্য করানো হয়। লকডাউন যত বাড়বে কড়া শাস্তি হিসেবে নানা কৌশল নেবে পুলিশ।

Partha Pratim Sarkar

First published: April 19, 2020, 8:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर