Home /News /north-bengal /
Torture over Dowry : পণ দিতে না পারায় গর্ভের দ্বিতীয় সন্তানকেও শেষ করল স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন, পুলিশের দ্বারস্থ বধূ

Torture over Dowry : পণ দিতে না পারায় গর্ভের দ্বিতীয় সন্তানকেও শেষ করল স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন, পুলিশের দ্বারস্থ বধূ

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Torture over Dowry : অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । ধৃতকে মঙ্গলবার জলপাইগুড়ি আদালতে তোলা হবে

  • Share this:

    জলপাইগুড়ি : পণ দিতে না পারায় গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ উঠল স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে । থানার দারস্থ হলেন জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ির এক গৃহবধূ। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে স্থানীয় এলাকায় । অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । ধৃতকে মঙ্গলবার জলপাইগুড়ি আদালতে তোলা হবে।

    জানা গিয়েছে দু’বছর আগে  ময়নাগুড়ি উত্তর খাগড়াবাড়ি এলাকার বাসিন্দা পম্পা রায়ের সঙ্গে ময়নাগুড়ি পুরসভার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের আশিস রায়ের সামাজিক মতে বিয়ে হয় । অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই বরপণের দাবিতে পম্পা রায়ের উপর নির্মম অত্যাচার চালাত তাঁর শ্বশুর বাড়ির লোকজন । শ্বশুরবাড়ির অত্যাচারে  বছরখানেক আগে পম্পা দেবীর একটি সন্তান গর্ভেই নষ্ট হয়ে যায় বলেও অভিযোগ।

    আরও পড়ুন :  মর্মান্তিক! দিঘার পথে ট্রেন থেকে ঝুঁকে গুটখার পিক ফেলতে গিয়ে জীবন শেষ তরুণের

    আরও পড়ুন :  ‘একই ঘরে’ শাশুড়ি এবং জামাই, মুর্শিদাবাদে চরম পরিণতি শাশুড়ির

    এর পরেও সবকিছু সহ্য করে সংসার করছিলেন ওই বধূ। আবারও গর্ভবতী হন তিনি । অভিযোগ, দিন কয়েক আগে স্বামী-সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনের মারধরের ফলে গর্ভের দ্বিতীয় সন্তানটিও নষ্ট হয়ে যায় তাঁর। বেশ কিছুদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়ে পুলিশের দারস্থ হন তিনি। স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির ৬ জন সদস্যর বিরুদ্ধে ময়নাগুড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । বাকি অভিযুক্তদের খোঁজ চলছে ৷

    ( শান্তনু কর)
    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Dowry, Jalpaiguri

    পরবর্তী খবর