বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে, মেয়ে হওয়ায় স্ত্রীকে ফেলে পালাল স্বামী!

প্রতীকী চিত্র ৷

থানাতেও গিয়ে বিচার পাননি। ফলে বাধ্য হয়েই, হাসপাতালের বিশ্রামগারে থাকতে হচ্ছে ওই মহিলাকে।

  • Share this:

    #বালুরঘাট: জন্মের এক মাস পরেই ভাগ্যশ্রীর স্থান হল হাসপাতালের বিশ্রামাগারে। বাড়ির অমতে বিয়ে করেছিলেন বালুরঘাটের মলি দাস । কিছুদিন আগে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন মলি ৷ মেয়ে হওয়ায় স্ত্রীকে ফেলে পালাল স্বামী। একমাসের শিশুসন্তানকে নিয়ে এখন আশ্রয়হারা হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে মলি ৷ সুবিচারের আশায় প্রশাসনের দোরে দোরে ঘুরছেন ওই মহিলা। রাত কাটাবার স্থান না পেয়ে, বালুরঘাট হাসপাতালের বিশ্রামাগারেই থাকতে শুরু করেছেন ওই মহিলা। কুমারগঞ্জ থানা ও পতিরাম ফাড়ি ওই মহিলাকে কোনও সাহায্য করেনি বলে অভিযোগ মলির। বিচার না পেলে আত্মহত্যার হুমকিও দিয়েছেন তিনি। কুমারগঞ্জের বাসিন্দা ওই ২০ বছর বয়সী যুবতী বছর দুয়েক আগে নিতাই দাস নামে এক যুবকের সঙ্গে বাড়ির অমতে বিয়ে করেন ৷ তারপর মুম্বই চলে গিয়েছিলেন তাঁরা। মাস খানেক আগে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেবার পর থেকেই স্বামীর সঙ্গে তাঁর ঝামেলা শুরু হয় ৷ অভিযোগ, গতকাল পতিরাম এলাকায় বাসে করে নিয়ে এসে সন্তানসহ মলি দেবীকে নামিয়ে দিয়ে তাঁর স্বামীর বেপাত্তা হয়ে যায়। তারপর থেকে মোবাইল সুইচড অফ থাকায় ওই মহিলা বিপাকে পড়েন। এরপরে তিনি বাপের বাড়িতে ফেরার চেষ্টা করলেও, ফিরতে পারেননি। থানাতেও গিয়ে বিচার পাননি। ফলে বাধ্য হয়েই, হাসপাতালের বিশ্রামগারে থাকতে হচ্ছে ওই মহিলাকে।

    First published: