Home /News /north-bengal /
Army Person Died In Manipur Landslide: কফিনবন্দী হয়ে ফিরল ঘরের ছেলে! থমথমে ম্যাল ভিজল চোখের জলে

Army Person Died In Manipur Landslide: কফিনবন্দী হয়ে ফিরল ঘরের ছেলে! থমথমে ম্যাল ভিজল চোখের জলে

Army Person Died In Manipur Landslide: পাহাড়জুড়েই শোকের আবহ, বিজয় উৎসব স্থগিত রাখলেন অনীত থাপা।

  • Share this:

#দার্জিলিং: মণিপুরে ভয়াবহ ধসে মৃত জওয়ানদের কফিনবন্দী দেহ আজ এল পাহাড়ে। গত ২৯ জুন ধসে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় বহু সেনা জওয়ানের।

মণিপুরের নোনে জেলায় রেললাইন পাতার কাজ চলছে। সেখানেই নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন সেনা জওয়ানেরা। আজই বিশেষ বিমানে বাগডোগরায় নিয়ে আসা হয় কফিনবন্দী নিথর দেহ।

ধসে চাপা পড়ে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানা গিয়েছে। ধ্বংসস্তূপে উদ্ধার কার্যে হাত লাগিয়েছে সেনা এবং বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর।

আরও পড়ুন- মালদহে ৭০ জন পড়ুয়া নিয়ে রাস্তার ধারে উল্টে গেল স্কুলবাস, গুরুতর জখম ৩০

এদিকে আজই পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দার্জিলিং, কার্শিয়ং, রোহিণী এবং মিরিকের মৃত জওয়ানদের শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়। ছিলেন সেনা কর্তারাও।

পাহাড়জুড়ে শোকের আবহ। ইতিমধ্যেই বিজয় উৎসব কর্মসূচী স্থগিত রাখার কর্মসূচী ঘোষণা করেছে বিজিপিএম সভাপতি অনীত থাপা।

এদিন বিকেলে দার্জিলিংয়ের ম্যালে স্মরণসভার আয়োজন করা হয়। সেই স্মরণসভা মেলাল পাহাড়ের যুযুধান দুই রাজনৈতিক দলকে। একই মঞ্চে মৃত গোর্খা জওয়ানদের স্মরণ করলেন মোর্চা নেতা রোশন গিরি, বিমল পত্নী আশা গুরুং, বিজিপিএমের প্রথম সারির নেতা কেশব রাজ পোখরেল সহ অন্যরা।

মৃতদের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। মোমবাতিও প্রজ্জ্বলিত করা হয়। মৃতদের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন দুই পক্ষই।

সকালে সিংমারিতে এক মৃত জওয়ানেরা বাড়ি যান বিমল গুরুং। রোশন গিরি এবং কেশব রাজ পোখরেল বলেন, অত্যন্ত বেদনাদায়ক ঘটনা। ওদের আত্মার শান্তি কামনা করি।

অন্যদিকে ফেব্রুয়ারিতে শেষবার বাড়িতে এসেছিলেন। গত বুধবারই স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথাও হয়েছিল। অক্টোবরে আসার কথা ছিল বাড়িতে। তার আগেই আজ কফিন বন্দী দেহ ফিরলেন বাড়িতে। মণিপুরে ধসে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় দার্জিলিংয়ের সিংমারির বাসিন্দা মারকাস (Marcus) গুরুংয়ের।

আরও পড়ুন- সেনা ক্যাম্পে শেষ শ্রদ্ধা, রাজ্যে মণিপুর ধসে নিহত বাংলার জওয়ানদের সারবন্দি কফিন

মৃত্যুর খবর পেয়ে ভেঙে পড়েছেন স্ত্রী, বাবা সহ পরিজনেরা। বছর ছয়েক আগেই সেনাবাহিনীতে যোগ দেন মারকাস (Marcus) গুরুং। ৪ বছরের এক শিশু পুত্রও রয়েছে। আজই বিশেষ বিমানে দেহ পৌঁছয় বাগডোগরায়। তারপর বেঙডুবি সেনা ছাউনিতে শ্রদ্ধা জানান সেনা কর্তারা। ছিলেন অনীত থাপা সহ অন্যরা। কান্নায় ভেঙে পড়েছেন স্ত্রী দিব্যা সুব্বা এবং বাবা রবীন গুরুং।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Darjeeling, Indian Army Died, Manipur Landslide

পরবর্তী খবর