• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ-ইস্তফা!

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ-ইস্তফা!

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ-ইস্তফা!

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ-ইস্তফা!

গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ-ইস্তফা!

  • Share this:

    #মালদহ: ফের শিরোনামে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় ৷ এবার পরীক্ষা বিতর্কে গণ ইস্তফা! উপাচার্য গোপালচন্দ্র মিশ্রের কাছে গণ-ইস্তফার প্রস্তাব পেশ করেছেন পরীক্ষা পরিচালন কমিটির সদস্যরা ৷ এই ঘটনায় ফের শুরু হয়েছে বিতর্ক ৷

    মালদহ কলেজে মেঝেতে পরীক্ষা নিয়ে বিতর্কের জের উপাচার্যের কাছে গণ-ইস্তফার প্রস্তাব সদস্যদের ৷ স্নাতক স্তরের পরীক্ষায় মালদহ কলেজে পরীক্ষার্থীদের মেঝেতে বসিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার ঘটনায় সমস্ত দায় স্বীকার করে ইস্তফার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছে পরীক্ষা নিয়ামক কমিটি ৷

    কলেজের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ করে কমিটি ৷ তাদের বক্তব্য, ‘কলেজ চাইলে মেঝেতে পরীক্ষা নিতে হত না ৷’

    গত ২৮ এপ্রিল মালদহ কলেজে স্নাতক স্তরের পরীক্ষায় দেখা যায়, ক্লাসরুমের সঙ্গে সঙ্গে সাইকেল স্ট্যান্ডে, বারান্দায় মেঝেতে বসিয়ে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে ৷ তীব্র গরমে পারদ ছুঁয়েছে ৩৯-এর কোঠা ৷ এমন পরিস্থিতিতে ক্লাসরুমে এক বেঞ্চে ঠাসাঠাসি করে বসে পরীক্ষা দেওয়া রীতিমতো শাস্তির সমান ৷ এইরকম গরমে রীতিমতো মাটিতে, এমনকী সাইকেল স্ট্যান্ডে বসিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার অভিযোগ ওঠে মালদহ কলেজে ৷

    কলেজের অধ্যক্ষ উত্তমকুমার সরকারের দাবি করেন, ‘কলেজে মাত্র ১৪০০ জনের বসার পরিকাঠামো রয়েছে ৷ এদিকে একসঙ্গে ৪ হাজার ছাত্রছাত্রীর পরীক্ষার সিট পড়েছে ৷ পরীক্ষার আগের দিন উপাচার্য ফোন করে তাঁবু খাটিয়ে হলেও পরীক্ষা নিতে বলেন ৷’

    বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক সনাতন দাস ঘটনার দায় সম্পূর্ণ এড়িয়ে গিয়ে জানান, ‘ মালদহ কলেজ অসহযোগিতা করেছে ৷ ওদের যথেষ্ট জায়গা ছিল ৷ কলেজের কয়েকটি ঘর তালাবন্ধ ছিল ৷ তাই ওই পরিস্থিতি তৈরি হয় ৷ চেষ্টা করলেই সুষ্ঠু ব্যবস্থা করা যেত ৷ গোটা বিষয়টির তদন্ত হবে ৷’

    বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতে শিক্ষামন্ত্রী সহ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তদন্তের নির্দেশ দেন ৷

    First published: