নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের অভিযুক্তরা গ্রেফতার না হলে আন্দোলন করবেন অধীর

Adhir Ranjan Chowdhury

বুধবার দুপুরে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী সুতি এলাকায় গিয়ে সভা করেন। নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের অভিযুক্তরা গ্রেফতার না হলে তিনি তীব্র আন্দোলনে নামবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন।

  • Share this:

#মালদহ: নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের সাতদিন পার হয়ে গেল৷ এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারল না সিআইডি। তবে সিআইডি সূত্রের খবর বেশ কয়েকজনকে আটক করে জেরা করা হচ্ছে। শামিম সেখ নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। সে নিমতিতা স্টেশনে হকারি করত বলেই জানা গিয়েছে। এছাড়াও রবিউল ইসলাম ও আবু সামাদ নামে দু'জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি নিমতিতা রেল স্টেশন বিস্ফোরণে শ্রম প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন সহ ২৪ জন গুরুতর আহত হয়। এই বোমা বিস্ফোরণের জেরে কয়েকজনের হাত-পাও বাদ গিয়েছে। মন্ত্রী জাকিরও গুরুতর আহত হয়ে কলকাতার এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গোটা ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় সিআইডিকে।

বুধবার দুপুরে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী সুতি এলাকায় গিয়ে সভা করেন। নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের অভিযুক্তরা  গ্রেফতার না হলে তিনি তীব্র আন্দোলনে নামবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন। এদিন অধীর  চৌধুরী বলেন, "জাকিরের খুব ভাল মন৷ সে বড় শিল্পপতি হয়েও গরিব মানুষদের কোনও দিন ভুলে যায়নি। সকলকে সমান সম্মান দিত। তৃণমূল দলের কাছেও এটা ব্যতিক্রম৷"

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে অধীর বলেন, "এই রাজ্যে পুলিশ মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসাতে ব্যস্ত। একজন রাজ্যের মন্ত্রী আক্রান্ত হলেন তার দোষীদের এখনও গ্রেফতার করতে পারল না। এটা বড় দুর্ভাগ্যজনক। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নিজেই বলছেন দূর থেকে কোনও রিমোট দিয়ে বোমা ফাটানো হয়েছে। সিবিআইকে দিয়ে তাহলে তিনি তদন্ত করাচ্ছেন না কেন! আমরা বারবার সিবিআই তদন্তের দাবিই করেছি। কারণ একটাই, তাঁর দলের অনেকেই এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত। সামনে ভোট তাই দিদি ভয় পাচ্ছেন  সিবিআইকে দিয়ে তদন্ত করাতে।"

অধীর চৌধুরী আরও বলেন, "জাকির হোসেনের ওপর আক্রমণের ঘটনার কথা শুনেই আমি কলকাতা গিয়েছিলাম দেখা করার জন্য। চিকিৎসকেরা তাঁর অপারেশন হয়েছে বলে আমাকে দেখা করতে দেয়নি। আমি চাই জাকির সহ সকলেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসুক। জাকিরের মত মানুষ এই জেলার মানুষের কাছে একটা আশ্রয়৷"

(প্রণব কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়)

Published by:Subhapam Saha
First published: