নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের তদন্তে এবার এনআইএ-র চার সদস্যের বিশেষ দল

নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের তদন্তে এবার এনআইএ-র চার সদস্যের বিশেষ দল

নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডের তদন্তে এবার এনআইএ-র চার সদস্যের বিশেষ দল

বুধবার নিমতিতা স্টেশনে এল এনআই-এর চার সদস্যের একটি দল। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তাঁরা। নিমতিতা স্টেশন এর দুই নম্বর প্লাটফর্মে যেখানে বিস্ফোরণ ঘটেছিল সেই সমস্ত জায়গা ঘুরে দেখেন তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা।

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ: নিমতিতা বিস্ফোরণকাণ্ডে তদন্তভার এনআইএ-র হাতে। বুধবার নিমতিতা স্টেশনে এল এনআই-এর চার সদস্যের একটি দল। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তাঁরা। নিমতিতা স্টেশন এর দুই নম্বর প্লাটফর্মে যেখানে বিস্ফোরণ ঘটেছিল সেই সমস্ত জায়গা ঘুরে দেখেন তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা।

নিমতিতা স্টেশনের স্টেশন মাস্টারের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথাবার্তাও বলেন তাঁরা। দুই নম্বর প্ল্যাটফর্মে সেই দিন যে সমস্ত জিআরপি ও আরপিএফ কর্মীদের ডিউটি ছিল তাঁদের নামের তালিকা নেন। বিস্ফোরণের সময় সেই সমস্ত কর্মীরা কোথায় ডিউটি করছিলেন সেই সমস্ত তথ্য জানার চেষ্টা করে ওই চার সদস্যের দল। দুই নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঘটনার সময়ে কেন লাইট জ্বলেনি সেই ব্যাপারেও জানার চেষ্টা করেন।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি নিমতিতা স্টেশনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। সেই বিস্ফোরণে রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন-সহ ২৪ জন গুরুতর আহত হয়। রাজ্য সরকার তড়িঘড়ি করে সিআইডিকে তদন্তভার দেয়। তদন্তের জন্য সিট তৈরি করে। সিআইডি এডিজি অনুজ শর্মা ঘটনাস্থলে আসেন তদন্ত করতে। সিআইডি ঘটনার পর আবু সামাদ ও শহীদুল শেখকে থেকে গ্রেফতার করে। শহিদুল যে এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত তা সিআইডি জেরাতে স্বীকার করে।

ঘটনার সপ্তাহ দুয়েক পর কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনআইএ তদন্তের দায়িত্ব নেয়। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, সিআইডি এখনও পর্যন্ত তদন্তে কী কী পেয়েছে জানতে চেয়ে সিআইডি তদন্তকারী আধিকারিকদের সঙ্গে মঙ্গলবার দীর্ঘ বৈঠক করেছে। ফরেনসিক রিপোর্ট ও বম্ব স্কোয়াডের রিপোর্ট সংগ্রহ করেছে। নিমতিতা স্টেশনের পাশে যে সমস্ত দোকানদাররা রয়েছেন তাঁদের কাছে বিস্ফোরণের ভয়াবহতা নিয়ে সমস্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয়।

তবে সিআইডির পক্ষ থেকে শহিদুল বোমা বিস্ফোরণের সময়ে যে মোটরবাইক ব্যবহার করেছিল সেই মোটরবাইকটিও উদ্ধার করেছে। যদিও এই মোটরবাইকটি শহিদুলের নিজের না। সে অন্য এক যুবকের কাছ থেকে মোটরবাইকটি নেয়। শুধু তাই নয় আবু সামাদ ও শহিদুল এই বিস্ফোরণকাণ্ডে যে মোবাইল ব্যবহার করেছিল সেই মোবাইলটির ভাঙা অংশ উদ্ধার করে সিআইডি। সুতির একটি আম বাগানের ভিতরে ঘটনার পর মোবাইলটিকে ভেঙে একটি আম গাছের ভিতর সেটা ঢুকিয়ে রাখা হয়েছিল। আরও চারজনকে এই ঘটনার সঙ্গে প্রাথমিক ভাবে চিহ্নিতকরণ করেছে।

Pranab Kumar Banerjee 

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: