Home /News /north-24-parganas /
North 24 Parganas: ওয়ার্ল্ড যোগা কাপে দ্বিতীয় স্থান পেল হাবরার ক্লাস ওয়ানের দিগন্ত দেবনাথ

North 24 Parganas: ওয়ার্ল্ড যোগা কাপে দ্বিতীয় স্থান পেল হাবরার ক্লাস ওয়ানের দিগন্ত দেবনাথ

দিগন্ত দেবনাথ

দিগন্ত দেবনাথ

একেই বলে একাগ্রতা। লক্ষ্য স্থির থাকলে যে কোন প্রতিকুলতা যে বাধা হতে পারে না তা আরেকবার বুঝিয়ে দিল সাত বছরের বালক। নাম দিগন্ত দেবনাথ। ক্লাস ওয়ানের ছাত্র।

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা: একেই বলে একাগ্রতা। লক্ষ্য স্থির থাকলে যে কোন প্রতিকুলতা যে বাধা হতে পারে না তা আরেকবার বুঝিয়ে দিল সাত বছরের বালক। নাম দিগন্ত দেবনাথ। ক্লাস ওয়ানের ছাত্র। এইটুকু বয়সেই যোগব্যায়ামে খেতাব জয় করে বাংলার গৌরবের মুকুটে পালক জুড়ে দিয়েছে সে। সম্প্রতি দিল্লির গাজিয়াবাদে ২০২২-এ ওয়ার্ল্ড যোগা কাপে অংশ নিয়ে দ্বিতীয় স্থান দখল করে নেয় সাত বছরের দিগন্ত দেবনাথ। তার এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত গোটা বাংলার ক্রীড়ামহল। তবে এইটুকু বয়সেও দিগন্তের এই পথচলা একেবারে স্বাভাবিক ছন্দে এগোয়নি। উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়া পৌরসভার দক্ষিণ হাবড়া এলাকার বাসিন্দা এই প্রতিভাধর বালক। পরিবার সূত্রে জানা যায়, দিগন্তের যখন মাত্র তিন বছর বয়স তখন তার শরীরে থাইরয়েড রোগ বাসা বাঁধে। ছোট্ট শিশুর শরীরে এই রোগের অস্তিত্ব নিয়ে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন দিগন্তের বাবা মা, ঠাকুরদা, ঠাকুমা সহ তাদের পরিবারের সদস্যরা। এরপরই চিকিৎসকের পরামর্শেই জীবনে পরিবর্তন ঘটে যায় দিগন্তের। চিকিৎসক পরামর্শ দেন ছোট্ট দিগন্তকে যোগ ব্যায়ামের প্রশিক্ষণ দিলে ওর শরীরের উন্নতি ঘটবে।

    চিকিৎসকের পরামর্শ মতো দিগন্তকে বারাসতের যোগা কোচ অরূপ সরকারের কাছে নিয়ে যান তার বাবা অনুপম দেবনাথ। সেই থেকে শুরু হয় যোগ প্রশিক্ষণ পর্ব। প্রথম থেকেই দিগন্তের অনুশীলন দেখে যোগা কোচ বুঝেছিলেন এ ছেলে একদিন বাংলার নাম উজ্জ্বল করবে। যতদিন গেছে ততই কোচের ভবিষ্যৎবাণীতে শিলনমোহর পড়েছে। কারন এইটুকু বয়সেই বাংলার প্রতিটি প্রান্ত থেকেই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে পুরষ্কার ছিনিয়ে এনেছে দিগন্ত দেবনাথ।

    আরও পড়ুনঃ অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আজ ভবঘুরে! অসুস্থ বৃদ্ধের পাশে দাঁড়ালেন এক মানবিক শিক্ষক

    সম্প্রতি দিল্লির গাজিয়াবাদে ২০২২ এ ওয়ার্ল্ড যোগা কাপে অংশগ্রহণ করে ছয় থেকে আট বছরের গ্রুপ পর্যায়ে দিগন্ত দ্বিতীয় স্থান পায়। নাতির এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত ঠাকুরদা বিনয় দেবনাথ ও ঠাকুমা ভারতী দেবনাথ। দিগন্তের বাবা অনুপম দেবনাথ একজন ব্যবসায়ী ও মা মৌমিতা দেবনাথ গৃহিনী। পরিবারের প্রত্যেকেই চান দিগন্ত পড়াশুনার পাশাপাশি যোগব্যায়ামে জগতে প্রতিষ্ঠা লাভ করুক।

    আরও পড়ুনঃ রেললাইনে যুক্ত হবে মছলন্দপুর থেকে স্বরূপনগর

    পরিবারের বড়দের ইচ্ছেকে সম্মান জানিয়ে সাত বছরের দিগন্ত জানাল, আগামীদিনে যেকোন বড় প্রতিযোগিতাই হোক না কেন, সে অংশগ্রহণ করে সোনা জিতে আনবেই। ছোট্ট এই ক্রীড়াবিদের আগামীদিনের সব স্বপ্ন যাতে পূরন হয় তা মনেপ্রানে চাইছেন বাংলার ক্রীড়ামহল।

    Rudra Narayan Roy
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Habra, North 24 Parganas

    পরবর্তী খবর