Corona second wave: বিজয় মিছিল করতে পারবে না কোনও দল, জানিয়ে দিল কমিশন

Corona second wave: বিজয় মিছিল করতে পারবে না কোনও দল, জানিয়ে দিল কমিশন

এমন ভয়ানক পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দলগুলির বিজয়মিছিল মরণফাঁদ তৈরি করতে পারে।

এমন ভয়ানক পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দলগুলির বিজয়মিছিল মরণফাঁদ তৈরি করতে পারে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: মাদ্রাজ হাইকোর্টর ভর্ত্সনার পর কোভিড প্রোটোকল নিয়ে কঠোর হল নির্বাচন কমিশন। ২রা মে বিধানসভা নির্বাচন জিতলেও পাঁচ রাজ্যের কোথাও বিজয় মিছিল করতে পারবে না বিজয়ী দল। ভোটগণনার আগে পরে, কখনওই বিজয় মিছিল করতে পারবে না কোনও দিল। জানিয়ে দিল কমিশন। ২ মে পশ্চিমবঙ্গ, অসম, পুডুচেরি, কেরল, তামিলনাড়ুতে ভোটগণনা। বাংলা ছাড়া বাকি চারটি রাজ্য বিধানসভা নির্বাচন শেষ। বাংলায় এখনও এক দফা নির্বাচন বাকি। তার আগেই নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিল, জিতলেও কোনও দল বিজয়মিছিল করত পারবে না। এমনকী জয়ের পর কোনও জমায়েতও করা যাবে না। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে জেরবার গোটা দেশ। এমন ভয়ানক পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দলগুলির বিজয়মিছিল মরণফাঁদ তৈরি করতে পারে। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

দেশে করোনা পরিস্থিতি এতটা খারাপ হওয়ার দায় নির্বাচন কমিশনের। সোমবার এমনই জানিয়েছিলেন মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি। মাদ্রাজ হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছিল, ২ মে গণনার সময় কোভিড প্রোটোকল যাতে পালন হয় তার ব্লু-প্রিন্ট বানাতে হবে কমিশনকে। না হলে গণনা আপাতত স্থগিত রাখা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিল আদালত। মাদ্রাজ হাইকোর্টের ধমক খেয়ে কমিশনের কর্তারা তড়ঘড়ি ২রা মে বিজয় মিছিল নিষেধাজ্ঞা জারি করলেন। সোমবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি তামিলনাড়ুর করুর বিধানসভা সিটে গণনার ব্যাপারে দায়ের হওয়া পিটিশন-এর শুনানিতে ছিলেন। তখনই নির্বাচন কমিশনকে দেশের করোনা পরিস্থিতি এতটা খারাপ হওয়ার জন্য দায়ী করে আদালত। এমনকী নির্বাচন কমিশনের কর্তাদের বিচারপতি বলেন, আপনাদের বিরুদ্ধে মানুষ খুনের অভিযোগ দায়ের হওয়া উচিত ছিল। ২রা মে-র জন্য বেশ কিছু নির্দেশও কমিশনকে দিয়েছে আদালত। সেগুলি হল-

১. কাউন্টিং-এর দিন কোভিড প্রোটোকল সুনিশ্চিত করতে হবে কমিশনকে।

২. কোনওভাবেই রাজনৈতিক বা অরাজনৈতিক কারণে যেন কাউন্টিংয়ের দিন করোনা সংক্রমণ না বাড়ে, তা নিশ্চিত করতে হবে কমিশনকে।

৩. কাউন্টিং নিয়ম মেনে না হলে পিছিয়ে দিতে হবে।

৪. মানুষের স্বাস্থ্য সবার আগে। আর সেটাই প্রশাসনকে মনে করিয়ে দেওয়াটা দুর্ভাগ্যজনক। আর যেন কমিশনকে এটা মনে করিয়ে দিতে না হয়!

৫. নাগরিক বেঁচে থাকলে তবেই তো অধিকার প্রয়োগ করবেন! আগে মানুষকে সুরক্ষিত রাখতে হবে। তার পর সব।

৬. এখন দেশের করোনা পরিস্থিতি খুব খারাপ। আগে মানুষকে বাঁচাতে হবে। বাকি সব তার পর।

Published by:Suman Majumder
First published: