Home /News /national /
Uddhav Thackeray attacks Maharashtra Governor: "মারাঠি রান্না অনেক খেয়েছেন, এবার সময় কোলাপুরি চপ্পলের": মারাঠি-গুজরাতি বিতর্কে রাজ্যপালকে আক্রমণ উদ্ধবের

Uddhav Thackeray attacks Maharashtra Governor: "মারাঠি রান্না অনেক খেয়েছেন, এবার সময় কোলাপুরি চপ্পলের": মারাঠি-গুজরাতি বিতর্কে রাজ্যপালকে আক্রমণ উদ্ধবের

Governor Koshiyari and Uddhav Thackeray

Governor Koshiyari and Uddhav Thackeray

Uddhav on Marathi-Gujarati Row: উদ্ধব জানান, রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারি মারাঠি রান্নার স্বাদ অনেক উপভোগ করেছেন, এবার সময় এসেছে ‘কোলাপুরি চপ্পল’ দেখার।

  • Share this:

    #মুম্বই: মারাঠি-গুজরাতি সম্প্রদায় নিয়ে সাম্প্রতিক মন্তব্যের জেরে মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল কোশিয়ারিকে নজিরবিহীন কটাক্ষ শিবসেনা সভাপতি উদ্ধব ঠাকরের! শনিবার উদ্ধব জানান, রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারি মারাঠি রান্নার স্বাদ অনেক উপভোগ করেছেন, এবার সময় এসেছে ‘কোলাপুরি চপ্পল’ দেখার। “মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল হিসাবে, ভগত সিং কোশিয়ারি গত আড়াই বছরে মহারাষ্ট্রের সবকিছুই উপভোগ করেছেন। তিনি মহারাষ্ট্রের রান্নার স্বাদ উপভোগ করেছেন, এখন সময় এসেছে তাঁর কোলাপুরি চপ্পল দেখার,” বলেন উদ্ধব ঠাকরে।

    মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারি সম্প্রতি জানান, মহারাষ্ট্র থেকে যদি রাজস্থানি এবং গুজরাতিদের সরিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে মুম্বই আর ভারতের আর্থিক রাজধানী থাকবে না। তাঁর এই বক্তব্যের জেরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। উদ্ধব জানান, রাজ্যপালের পদ একটি সম্মানজনক পদ এবং তিনি এর অসম্মান করতে চান না। “তবে ভগত সিং কোশিয়ারি, যিনি রাজ্যপালের চেয়ারে বসে আছেন, তাঁরও চেয়ারকে সম্মান করা উচিত। তাঁর বক্তব্যে মারাঠি মানুষের অপমান হয়েছে,” বলেন শিবসেনা সভাপতি।

    আরও পড়ুন- বাড়ির নাম 'অপা'! ৭ কাঠা জমিতে অর্পিতার বিলাসবহুল ভবনের দলিলে মিলল পার্থর সই

    রাজ্যপাল ধর্মের ভিত্তিতে সমাজকে ভাগ করার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ করেন উদ্ধব। রাজ্যপাল সব সীমা অতিক্রম করছেন এবং ‘পার্সেল ফেরত’ পাঠানোর সময় এসেছে, মনে করেন উদ্ধব। শনিবার রাজ্যপাল জানান, তাঁর মন্তব্যে ‘ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে’। তিনি স্পষ্ট করে জানান, “মহারাষ্ট্রের অগ্রগতি ও উন্নয়নে মারাঠি-ভাষী মানুষের কঠোর পরিশ্রমকে ছোট করার কোনও ইচ্ছা নেই।”

    রাজ্যপালের সমালোচনা করে কংগ্রেসও তাঁর ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে। “আমি বলছি যে, যদি মহারাষ্ট্র, বিশেষ করে মুম্বই আর থানে থেকে গুজরাতি এবং রাজস্থানিদের সরিয়ে দেওয়া হয় তবে আপনাদের কোনও টাকাপয়সা থাকবে না এবং মুম্বইও দেশের আর্থিক রাজধানী হবে না,” আন্ধেরিতে একটি অনুষ্ঠানে বলেন রাজ্যপাল।

    আরও পড়ুন- “ক্যামাক স্ট্রিট বসার জায়গা নয়": টেট চাকরি প্রার্থীদের উদ্দেশ্য কুণাল ঘোষ

    রাজভবন থেকে জারি করা একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রাজ্যপাল কোশিয়ারি মুম্বইকে দেশের আর্থিক রাজধানী করে তুলতে রাজস্থানি-মারোয়াড়ি এবং গুজরাতি সম্প্রদায়ের অবদানের প্রশংসা করেছেন। রাজ্যপাল জানান, রাজস্থানি-মারোয়াড়ি সম্প্রদায় দেশের বিভিন্ন অংশে এবং নেপাল ও মরিশাসের মতো দেশেও বসবাস করছে।

    “এই সম্প্রদায়ের সদস্যরা যেখানেই যান, তাঁরা কেবল ব্যবসাই করেন না, স্কুল, হাসপাতাল তৈরি করে জনহিতকর কাজও করেন,” বলেন রাজ্যপাল। এই মন্তব্য ঘিরে বিতর্কের জন্ম হলে কোশিয়ারি শনিবার একটি বিবৃতি জারি করে জানান, তিনি কেবল শহরের বাণিজ্য ও শিল্পে গুজরাতি এবং রাজস্থানি সম্প্রদায়ের অবদান সম্পর্কে কথা বলেছেন। “মারাঠিভাষীদের হেয় করার কোনও উদ্দেশ্য আমার ছিল না। আমার মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে,” বলেন রাজ্যপাল। কোশিয়ারি জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল হিসাবে কাজ করে তিনি গর্বিত। “মুম্বই মহারাষ্ট্রের গর্ব এবং দেশের আর্থিক রাজধানীও। আমি অল্প সময়ের মধ্যে মারাঠি শেখার চেষ্টাও করেছি,” বলেন রাজ্যপাল।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Maharashtra, Uddhav Thackeray

    পরবর্তী খবর