• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • সংসদের অধিবেশন স্থগিত রাখার আর্জি তৃণমূলের! কেন?

সংসদের অধিবেশন স্থগিত রাখার আর্জি তৃণমূলের! কেন?

সোমবার এ বিষয়ে লোকসভার অধ্য়ক্ষকে চিঠি দিয়েছেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন ডেরেক ও' ব্রায়েন।

সোমবার এ বিষয়ে লোকসভার অধ্য়ক্ষকে চিঠি দিয়েছেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন ডেরেক ও' ব্রায়েন।

সোমবার এ বিষয়ে লোকসভার অধ্য়ক্ষকে চিঠি দিয়েছেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন ডেরেক ও' ব্রায়েন।

  • Share this:

    #কলকাতা: পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে টানা একমাস ধরে চলবে সংসদের অধিবেশন। কিন্তু পাঁচ রাজ্যের সমস্ত সাংসদরা ব্যস্ত থাকবেন ভোট প্রচারে। এই পরিস্থিতিতে লোকসভা অধ্যক্ষ ও রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়ে সংসদের অধিবেশন স্থগিত রাখার আর্জি জানাল তৃণমূল। সোমবার এ বিষয়ে লোকসভার অধ্য়ক্ষকে চিঠি দিয়েছেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন ডেরেক ও' ব্রায়েন। তাঁদের দু'জনেরই আর্জি, ৮ মার্চ থেকে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত হতে চলা সংসদের অধিবেশন স্থগিত রাখা হোক। শুধু বাংলা নয়, বাকি রাজ্যের ভোটের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে চিঠিতে।

    যদিও সোমবার থেকে চালু হয়ে গিয়েছে বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্যায়। আর প্রথমদিনই জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্যসভা। সোমবার অধিবেশন শুরু হওয়া মাত্রই তুমুল হইহট্টগোল করতে থাকেন বিরোধী সাংসদরা। তখন প্রশ্নোত্তর পর্ব চলছিল, কিন্তু প্রবল বাধার কারণে মুলতুবি হয়ে যায় শুরুর কয়েক মিনিটের মধ্যেই মুলতবি হয়ে যায় রাজ্যসভার অধিবেশন। গত কয়েক সপ্তাহে জ্বালানির অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আলোচনার জন্য স্লোগান দিতে থাকেন কংগ্রেস সাংসদরা। এরপরই পরিস্থিতি অশান্ত হয়ে ওঠে। বিরোধী সাংসদদের উদ্দেশে রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, 'অধিবেশন শুরুর প্রথম দিনই আমি কঠোর পদক্ষেপ করতে চাই না।' যদিও তাতেও থামেনি হইহট্টগোল।

    কৃষক আন্দোলনের ইস্য়ুতেও এবার উত্তপ্ত হতে পারে অধিবেশন। ১০০ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও কৃষকদের সঙ্গে রফাসূত্র বেরোয়নি কেন্দ্রের। যদিও কেন্দ্রীয় সরকার বিতর্কিত তিন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে বলে ফের জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার। বিক্ষোভরত কৃষকদের আবেগের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও আলাদা করে উল্লেখ করেন তিনি। রবিবার (৭ মার্চ) কৃষি মন্ত্রকের পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য রাখার সময় বিরোধীদের আক্রমণ করেছেন তোমার। তাঁর অভিযোগ, বিরোধী দলগুলো কৃষকদের নিয়ে রাজনীতি করছে এবং কৃষকদের স্বার্থে আঘাত করছে।

    প্রসঙ্গত, গত মাসে রাজ্যসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেছিলেন, কেন্দ্রের প্রস্তাবিত নয়া কৃষি আইন গুলিতে দেশের অন্নদাতাদের কল্যাণের স্বার্থেই সংস্কারগুলি করা হয়েছে। তাঁর যুক্তি ছিল, গত বছর সেপ্টেম্বরে সংসদে পাশ হওয়া তিনটি কৃষি আইনের দ্বারা উপকৃতই হবেন দেশের কৃষকরা। কৃষিখাতে বিনিয়োগ বাড়াতেও সাহায্য করবে। সেই সময়ও উত্তাল হয়েছিল রাজ্য়সভা। এবারের অধিবেশনেও এই ইস্যুটি বাদ থাকবে না বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: