ভবানীপুরে বৃদ্ধের মৃত্যুতে অভিযুক্ত ঘটনার চারদিন পর গ্রেফতার, চলছে চাপানউতোর

অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ চলছেই

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 22, 2019 11:41 AM IST
ভবানীপুরে বৃদ্ধের মৃত্যুতে অভিযুক্ত ঘটনার চারদিন পর গ্রেফতার, চলছে চাপানউতোর
Photo- Video Grab
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 22, 2019 11:41 AM IST

#কলকাতা: চারদিন পর আত্মসমর্পণ। তারপর গ্রেফতার ভবানীপুরে বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনার অভিযুক্ত তড়িৎ সিকদার। থমথমে পাড়ায় মুখ খুলতে নারাজ ধৃতের পরিবার, প্রতিবেশীরা। বিচার চান নিহত রমেশ বহেলের স্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, প্রত্যক্ষদর্শীদের ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ করে দিয়েছে অভিযুক্ত।

একশ উনত্রিশ বাই ওয়ান ভবানীপুর, বকুলবাগান। নিহত রমেশ বহেলের বাড়ির একটু দূরেই উনচল্লিশের -সি বকুলবাগান রোড। আইনজীবী তড়িৎ সিকদারের পাড়া। তাঁর চড়েই বৃদ্ধ রমএস বহেলের মৃত্যুর অভিযোগ। থমথমে পাড়া। ততধিক থমথমে আইনজীবীর দোতলা বাড়ি। বাইরে থেকে তালাবন্ধ। ডাকাডাকিতে দোতলার ব্যালকনি থেকে স্ত্রী এসে বলেন, তিনি কিছুই বলতে চাননা।

পাড়াপ্রতিবেশীরা যাঁরা মুখ খুলেছেন, তাঁদের দাবি তড়িৎ সিকদার সজ্জন লোক। অন্যায় দেখলেই প্রতিবাদ করেন।যদিও এ তত্ত্ব মানতে নারাজ নিহত রমেশ বহেলের স্ত্রী। তাঁর দাবি, ১৭-ই অক্টোবরের ঘটনার সাক্ষী ছিলেন অনেকেই। ভয় দেখিয়ে সকলের মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন ধৃত আইনজীবী। তিনি চান বিচার।

অভিযোগ-পালটা অভিযোগ চলছেই। তড়িৎ সিকদারে বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা দায়ের হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, কোথায় প্রত্যক্ষদর্শীরা? কোথায়-ই বা ধৃত আইনজীবীর গাড়ির চালক?

আরও দেখুন

Loading...

First published: 11:41:37 AM Oct 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर