বেসরকারি স্কুলের ২০ শতাংশ ফি কমাতেই হবে, হাইকের্টের রায় বহাল সুপ্রিম কোর্টেও

বেসরকারি স্কুলের ২০ শতাংশ ফি কমাতেই হবে, হাইকের্টের রায় বহাল সুপ্রিম কোর্টেও
কোর্টের রায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস অভিভাবকদের ৷ মকুব হচ্ছে 20 শতাংশ ফি

কোর্টের রায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস অভিভাবকদের ৷ মকুব হচ্ছে 20 শতাংশ ফি

  • Share this:

    #কলকাতা: বেসরকারি স্কুলের কুড়ি শতাংশ ফি কমাতেই হবে। কলকাতা হাইকোর্টের রায় বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট। পড়ুয়াদের টিউশন ফি কমানো নিয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করেছিল শহরের একাধিক বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষ। সেই আবেদন, বুধবার খারিজ করে দিল শীর্ষ আদালত। কোর্টের রায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস অভিভাবকদের ৷

    অন্যান্য ফি যেমন-ল্যাবরেটরি, স্পোর্টসের বরাদ্দও এখন নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছে বিচারপতি অশোক ভূষণ, আর সুভাষ রেড্ডি ও এম আর শাহের বেঞ্চ। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে খুশি অভিভাবকরা।

    একটি জনস্বার্থ মামলার প্রেক্ষিতে রাজ্যের বেসরকারি স্কুলের ক্ষেত্রে টিউশন ফি-এর ক্ষেত্রে কুড়ি শতাংশ ছাড় দেওয়ার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট । একইসঙ্গে ১ এপ্রিল ২০২০ থেকে যে শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়েছে তাতে non-academic ফি নিতে বারণ করে ডিভিশন বেঞ্চ ৷


    উল্লেখ্য, লকডাউনের মধ্যেই রাজ্যের বেসরকারি স্কুল গুলি নিয়ে দায়ের হওয়া মামলায় হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিল লা মার্টিনিয়ার বয়েজ সহ ৬টি স্কুল। যদিও সেই মামলা সুপ্রিম কোর্ট ফিরিয়ে দিয়েছিল হাইকোর্টেই। স্কুল গুলির ফি বৃদ্ধি সঠিকভাবে করা হয়েছে কিনা তা দেখতে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস এর নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। ১৭ অগাস্ট সে ব্যাপারে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর ১৮ তারিখ চূড়ান্ত নির্দেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। সেই নির্দেশে স্কুল গুলিকে ৩১ অগাস্টের মধ্যে তাদের যাবতীয় আয়-ব্যয়ের হিসাব জমার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। ২০১৯ ও ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে জুলাই মাসের মধ্যে যাবতীয় আয়-ব্যয়ের হিসাব দেওয়ার কথা ছিল বেসরকারি স্কুল গুলির।

    ফি কমানোর দাবি নিয়ে লকডাউনের পর থেকেই কার্যত অভিভাবকরা আন্দোলন শুরু করেছিল । শহর কলকাতার একাধিক বেসরকারি স্কুলের পাশাপাশি বিভিন্ন জেলাতে ও বেসরকারি স্কুলগুলোতে অভিভাবকদেরও বিক্ষোভ পথ অবরোধ কর্মসূচি চলে। শুধু তাই নয় স্কুলের ফি দিতে না পারলে অনলাইন ক্লাস থেকে বাদ দেওয়া হবে এরকম নির্দেশ জারি করে কলকাতার কয়েকটি বেসরকারি স্কুল। তবে শুধু নির্দেশ নয়, কলকাতার বেশ কয়েকটি বেসরকারি স্কুল অনলাইন ক্লাস থেকে ফি না দিতে পারার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের বাদ দিয়ে দিয়েছিল । টানা তিন থেকে চার মাস অভিভাবকরা এই দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে ছিল বিভিন্ন বেসরকারি স্কুলগুলোতে। আদালতের রায়ে খানিক স্বস্তিতে অভিভাবকেরা ৷ আদালতের নির্দেশ বেসরকারি স্কুলগুলিকে অন্তত ২০ শতাংশ ফি মকুব করতেই হবে ৷

    Published by:Elina Datta
    First published:

    লেটেস্ট খবর