Ramdev to Supreme Court: রামদেবকে গ্রেফতারে রাজ্যে রাজ্যে এফআইআর, শীর্ষ আদালতই ভরসা যোগগুরুর

ফের স্বমহিমায় রামদেব। ছুটলেন সুপ্রিম কোর্টে।

Ramdev to Supreme Court| এফআইআর-কে চ্যালেঞ্জ করে রামদেব চাইছেন শীর্ষ আদালত সমস্ত শাস্তিমুলক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে তাঁকে রক্ষাকবচ দিক।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: অ্যালোপ্যাথি নিয়ে তার বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে রাজ্যে রাজ্যে মামলা দায়ের হয়েছে। সেই সব মামলায় স্থগিতাদেশ চেয়ে এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন যোগগুরু রামদেব (Ramdev)। এফআইআর-কে চ্যালেঞ্জ করে রামদেব চাইছেন শীর্ষ আদালত সমস্ত শাস্তিমুলক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে তাঁকে রক্ষাকবচ দিক।

    এর আগে গ্রেফতারি নিয়ে সরাসরি প্রশাসনকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়তে দেখা গিয়েছে রামদেবকে নেটমাধ্যমে। ট্যুইটারে অ্যারেস্ট রামদেব ট্রেন্ড হতে শুরু করতেই আসরে নামে রামদেব। রীতিমতো হাসির ছলে তিনি কেন্দ্রকেই নিশানা করে বলেছিলেন, "ওর বাবাও গ্রেফতার করতে পারবে না। ওরা ঠগ রামদেব, গ্রেফতার রামদেব, এসব ট্রেন্ড করাচ্ছে নেটমাধ্যমে। ওরা এরকম করুক। আমার লোকেরা এসব দেখে অভ্যস্ত।"

    ঘটনার সূত্রপাত কয়েক মাস আগে। প্রকাশ্যে একটি ভিডিওতে রামদেব বলেন, চিকিৎসা বা অক্সিজেন না পেয়ে যত মানুষ মারা গিয়েছেন তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন অ্যালোপ্যাথি ওষুধ খেয়ে।  অ্যালোপ্যাথি এক দেউলিয়া হওয়া বিজ্ঞান। ঘটনায় শোরগোল পড়ে যায় গোটা দেশে। নড়েচড়ে বসে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। রামদেবকে আইনি নোটিশ ধরানো হয় সংস্থার তরফে। ১০০০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি নিয়ে লিখে হস্তক্ষেপের দাবিও জানানো হয়।

    এই আবহে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন আসরে নামেন। তিনি রামদেবকে মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে অনুরোধ করেন। রামদেব ভাঙেন তবু মচকান না ।মন্তব্য ফিরিয়ে নিলেও  অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা নিয়ে ২৫ টি প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন তিনি। তাঁর মূল বক্তব্য ছিল ২০০ বছরেও অ্যালোপ্যাথি বহু রোগ নিরাময় করতে পারেনি।

    Published by:Arka Deb
    First published: