• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • বিধানসভায় দাঁড়িয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা বিজেপি বিধায়কের, ওড়িশায় শোরগোল

বিধানসভায় দাঁড়িয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা বিজেপি বিধায়কের, ওড়িশায় শোরগোল

বিজেপি বিধায়ক বলেন যে সরকার কৃষকদের স্বার্থে কাজ করার জন্য বড় বড় দাবি করছে, তবে বাস্তবে কিছুই হয়নি৷ পানিগ্রাহী আরও বলেন, "এই কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া ছাড়া আমার আর কোনও উপায় ছিল না।"

বিজেপি বিধায়ক বলেন যে সরকার কৃষকদের স্বার্থে কাজ করার জন্য বড় বড় দাবি করছে, তবে বাস্তবে কিছুই হয়নি৷ পানিগ্রাহী আরও বলেন, "এই কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া ছাড়া আমার আর কোনও উপায় ছিল না।"

বিজেপি বিধায়ক বলেন যে সরকার কৃষকদের স্বার্থে কাজ করার জন্য বড় বড় দাবি করছে, তবে বাস্তবে কিছুই হয়নি৷ পানিগ্রাহী আরও বলেন, "এই কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া ছাড়া আমার আর কোনও উপায় ছিল না।"

  • Share this:

    #ভুবনেশ্বর: বিধানসভায় দাঁড়িয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন বিজেপি বিধায়ক সুভাষ চন্দ্র পানিগ্রাহী। শুক্রবার ওড়িশা বিধানসভার এই ঘটনায় শোরগোল পড়ে যায়৷ তাঁর অভিযোগ যে সরকার কৃষকদের থেকে ধান কেনার বিষয়টি বিবেচনা করছে না। এই ইস্যুতেই ওড়িশা বিধানসভায় তোলপাড় হয়। রাজ্যের খাদ্য ও সরবরাহ মন্ত্রী আরপি সোয়েন যখন ধান ক্রয়ের বিষয়ে একটি বিবৃতি দিচ্ছিলেন তখন সুভাষ চন্দ্র পানিগ্রাহী স্যানিটাইজার পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে চিকিৎসকেরা পরীক্ষা করেন। এই মুহূর্তে তিনি সুস্থ রয়েছেন৷

    ওড়িশায় বিরোধী বিজেপি এবং কংগ্রেসের সদস্যরা মধ্যাহ্নভোজের আগেই সংসদীয় কার্যক্রমে ব্যাহত করেন৷ এরপর বিধানসভার স্পিকার এস এন পাত্র বিবৃতি দিতে বলেন। দু'বার সভা স্থগিত হওয়ার পরে, যখন বিকেল চারটে নাগাদ মন্ত্রী বিবৃতি পড়তে শুরু করেন, যখন পানিগ্রাহী তাঁর আসন থেকে উঠে পকেট থেকে স্যানিটাইজারের বোতলটি বের করে পান করার চেষ্টা করেছিলেন।

    তাঁর পাশে বসা বিজেপি বিধায়ক কুসুম তেতে প্রথমে দেওগড়ের বিধায়ককে বাধা দেন এবং এর পরে সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী বি কে আরখ এবং প্রমিলা মালিকও তাঁকে থামানোর চেষ্টা করেন। স্যানিটাইজার বোতল ছিনিয়ে নেওয়া হয়। পানিগ্রাহী বলেছিলেন, 'আমি ইতিমধ্যে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছিলাম। তা সত্ত্বেও, সরকার কৃষকদের সমস্যার দিকে মনোযোগ দেয়নি, ফলে ধান বিক্রি করতে সমস্যায় পড়ছেন কৃষকরা। আমার নির্বাচনী এলাকায়,বহু কৃষক আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে৷ তাই আমি স্যানিটাইজার পান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। '

    আরও পড়ুন নতুন করে করোনার থাবা, মুম্বই শহর জুড়ে আপাতত স্কুল-কলেজ বন্ধ

    বিজেপি বিধায়ক বলেন যে সরকার কৃষকদের স্বার্থে কাজ করার জন্য বড় বড় দাবি করছে, তবে বাস্তবে কিছুই হয়নি৷ পানিগ্রাহী আরও বলেন, "এই কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া ছাড়া আমার আর কোনও উপায় ছিল না।"

    এর আগে, শুক্রবার ওড়িশা বিধানসভার বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্বে ধান সংগ্রহের বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিরোধী বিজেপি ও কংগ্রেসের সদস্যরা ধান কেনার ব্যাপারে রাজ্য সরকারের উদাসীনতাকে কটাক্ষ করেন৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: