সমাজবাদী পার্টির জাতীয় সভাপতি আমিই, অখিলেশ শুধুই মুখ্যমন্ত্রী : মুলায়ম সিং যাদব

উত্তরপ্রদেশের রাজনীতির মঞ্চ সরগরম ! সাইকেল নিয়ে মুলায়ম সিং যাদব ও ছেলে অখিলেশ যাদবের সঙ্গে দড়ি টানাটানি চলছেই ৷

  • Last Updated :
  • Share this:

    #লখনউ: উত্তরপ্রদেশের রাজনীতির মঞ্চ সরগরম ! সাইকেল নিয়ে মুলায়ম সিং যাদব ও ছেলে অখিলেশ যাদবের সঙ্গে দড়ি টানাটানি চলছেই ৷ প্রতীক নিয়ে দরবার করতেই রবিবার দিল্লি উড়ে গিয়েছেন মুলায়ম সিং যাদব ৷ সোমবার নির্বাচন কমিশনেও যাবেন তিনি ৷

    অন্যদিকে সমাজবাদী পার্টির কার্যালয়ে অধিকার হাতের মুঠোয় করার জন্য মুলায়ম ও অখিলেশ যুদ্ধ চলছেই ৷ দিল্লি যাওয়ার আগে মুলায়ম সিং যাদবের কথাতেই সপা-র প্রধান কার্যালয় অধিকারে মত্ত হয়ে ওঠে মুলায়মের সঙ্গে থাকা বিধায়কেরা ৷

    দিল্লি পৌঁছে মুলায়ম সিং যাদব স্পষ্টই বলেন, ‘আমি সপার জাতীয় সভাপতি ৷ অখিলেশ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ৷ রাম গোপাল সপার কেউ নন ৷ ওনার কিছু বলার বা করার অধিকার নেই ৷ ’

    মুলায়ম আরও বলেন, বেশিরভাগ বিধায়ক অখিলেশের সঙ্গেই আছেন ৷ মুলয়ামের কাছে আছে ৬ জন ৷ তবে এর সঙ্গে মুলায়ম স্পষ্ট জানিয়েদেন, ‘পার্টি মধ্যে কোনও বিবাদ নেই ৷ যা আছে তার সমাধান জলদিই হবে ৷ অখিলেশ আমার ছেলে ৷ ও যেটা ভালো বুঝছে, সেটাই করুক অখিলেশ !’

    কখনও রফার খোঁজ, কখনও কমিশনে দরবার। দুই পথই খোলা রাখল মুলায়ম ও অখিলেশ শিবির। আজ সাতসকালে মুলায়মকে ফোন করেন অখিলেশ। সন্ধির ইঙ্গিত পেয়েই দিল্লি থেকে লখনউ উড়ে যান তিনি। ছেলের সঙ্গে বৈঠকও হয়। একইসঙ্গে, নির্বাচন কমিশনে সাইকেল প্রতীক দখলের দাবি জানিয়ে যুদ্ধও জারি রাখল অখিলেশ শিবির।

    বিধানসভা নির্বাচন সামনে। কিন্তু, যাদবকুলে তুমুল নাটক চলছেই। দলে ফাটল স্পষ্ট হতেই দেখে সাইকেল প্রতীক দখলে উদ্যোগী হয় মুলায়ম শিবির। সোমবার, নির্বাচন কমিশনে গিয়ে মুলায়মের গোষ্ঠীকে সাইকেল প্রতীক দেওয়ার দাবি তোলেন শিবপাল যাদবরা। মঙ্গলবার সাইকেল রেসে সামিল অখিলেশ শিবিরও। রামগোপালের দাবি, দলে অখিলেশের পাল্লাই ভারী।

    সপার ভোট ভাগাভাগি হলে হাতছাড়া হবে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক। আর তাতে উত্তরপ্রদেশে সুযোগ নেবে বিজেপি। নতুন দল ও নতুন প্রতীক হলে ভরাডুবির সম্ভাবনাও দেখছে সপা নেতাদের একাংশ। তাই দু’পক্ষের মধ্যে চলছে রফাসূত্র খোঁজার পালাও।এর মধ্যেই মুলায়মের সই জাল করা হয়েছে বলে বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন রাজ্যের সপা নেতা কিরণময় নন্দ। যদিও তা খারিজ করে দেওয়া হয়।

    নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, কোনও প্রতীকের একাধিক দাবিদার থাকলে সব পক্ষকেই বক্তব্য রাখার জন্য সময় দেওয়া হয়। কিন্তু, উত্তরপ্রদেশে ভোট এসে যাওয়ায় সেই সময় কমিশনের হাতে নেই। তা বুঝেই কি সপা-য় সন্ধির দাবি জোরালো হচ্ছে?

    First published:

    Tags: 'Cycle' Symbol, Akhilesh Tells Mulayam, ETV News Bangla, Mulayam singh, UP assembly elections 2017, Up Election