• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Mission Paani: সকলের জন্য সুরক্ষা; দেশের পরিচ্ছন্নতার অভ্যাসে নয়া দিগন্ত আনতে চলেছে স্মার্ট টয়লেট

Mission Paani: সকলের জন্য সুরক্ষা; দেশের পরিচ্ছন্নতার অভ্যাসে নয়া দিগন্ত আনতে চলেছে স্মার্ট টয়লেট

Mission Paani: প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনের সঙ্গে সজ্জিত স্মার্ট টয়লেটগুলি জলের অপচয় এবং টয়লেট ব্যবহারের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলাও করতে পারবে।

Mission Paani: প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনের সঙ্গে সজ্জিত স্মার্ট টয়লেটগুলি জলের অপচয় এবং টয়লেট ব্যবহারের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলাও করতে পারবে।

Mission Paani: প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনের সঙ্গে সজ্জিত স্মার্ট টয়লেটগুলি জলের অপচয় এবং টয়লেট ব্যবহারের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলাও করতে পারবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: যে কোনও সংক্রামক রোগ দেশের জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। দীর্ঘদিনের চেষ্টায় ভারত জল, স্যানিটেশন (Sanitaization) এবং হাইজিন নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করলেও জনস্ফিতির কারণে সকলের জন্য নিরাপদ পানীয় জল এবং স্যানিটেশন সুবিধা প্রদান করা বড় চ্যালেঞ্জের বিষয় (Mission Paani) ।

নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্য ব্যবহৃত পাবলিক টয়লেটগুলি (Smart Toilets) অধিকাংশ ক্ষেত্রে নোংরা এবং অনিরাপদ। মানসম্মত স্বাস্থ্যবিধি এবং স্যানিটেশনের অনুশীলন সম্পর্কে সচেতনতার অভাব এর অন্যতম কারণ।

সরকারের ‘স্বচ্ছ ভারত মিশন ১’-এর (Swachh Bharat Mission) অধীনে গ্রামীণ এলাকায় ১০০% স্যানিটেশনের কাজ হয়েছে, এমনটা ঘোষণা করা হয়েছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২ অক্টোবর, ২০১৯ পর্যন্ত ৬৯৯টি জেলার প্রায় ৬ লক্ষ গ্রাম খোলা স্থানে মলত্যাগ করা বন্ধ করেছে। সারা দেশে প্রায় ১১ কোটি টয়লেট তৈরি করা হয়েছে। ২০১৪ সালে স্বচ্ছ ভারত মিশন চালু হওয়ার পর থেকে অক্টোবর ২০১৯ পর্যন্ত পাঁচ বছরে ৬০ কোটি মানুষকে এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে।

আরও পড়ুন - Mission Paani: দুই হাতে সামলাচ্ছেন জল এবং জীবনের সমস্যা, রূপান্তরকামী লক্ষ্মী জলযুদ্ধে দেশের প্রেরণা

যেহেতু সরকার সকলের জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন (Sanitaization) নিশ্চিত করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে, (শহর ও গ্রামীণ উভয় ক্ষেত্রেই) তাই স্মার্ট টয়লেট  (Smart Toilets) , পাবলিক স্যানিটেশন ব্যবস্থাপনা সারা দেশ জুড়ে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে পারে। প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনের সঙ্গে সজ্জিত স্মার্ট টয়লেটগুলি  (Smart Toilets) জলের অপচয় এবং টয়লেট ব্যবহারের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলাও করতে পারবে।

স্মার্ট টয়লেটের সুবিধা

১. স্মার্ট টয়লেটগুলি নিরাপদ, রক্ষণাবেক্ষণযোগ্য, সাশ্রয়ী, পুনর্ব্যবহারযোগ্য এবং প্রযুক্তিগতভাবে নিখুঁত।

২. উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগের অভ্যাস বন্ধ করতে স্মার্ট টয়লেটের ব্যবহার কার্যকরী হতে পারে।

৩. স্মার্ট টয়লেট ব্যবহারের ফলে জলের অপচয়ও উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেতে পারে।

৪. বেশ কিছু স্মার্ট টয়লেটে স্নান বা মহিলাদের জন্য স্যানিটারি ন্যাপকিন পরিবর্তন করার গোপনীয়তা রয়েছে।

৫. স্মার্ট টয়লেট ব্যবহারে উৎসাহিত করার ফলে মানুষের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্যকর আচরণগত পরিবর্তন হবে যা জীবনযাত্রার মান এবং জনস্বাস্থ্যের সামগ্রিক উন্নতি ঘটাবে।

আরও পড়ুন - Mission Paani : শৈশবেই রাজরোগ, অপুষ্টিতে কৈশোর কাটানো পায়েলই আজ জলযুদ্ধের যোদ্ধা

খরচের কার্যকর সমাধান

১. পাবলিক বা কমিউনিটি টয়লেটের তুলনায় স্মার্ট টয়লেট অনেক সস্তা (Mission Paani)। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, অনেক স্টার্ট আপ সংস্থা টয়লেট তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে। তারা সরকারি সংস্থা এবং বেসরকারি সংস্থাগুলির সঙ্গে সহযোগিতার জন্য তৎপর। উদাহরণস্বরূপ, মহারাষ্ট্রের অরবিন্দ ধেতে (Arvind Dhete) দ্বারা তৈরি একটি বায়োটয়লেটের দাম মাত্র ৬০০০ টাকা।

২. ইতিমধ্যেই দক্ষিণের রাজ্যগুলিতে ৬০,০০০টিরও বেশি স্মার্ট টয়লেট তৈরি হয়েছে৷

৩. এভাবেই আগামী বছরগুলিতে স্মার্ট টয়লেটের ব্যবহার সকলের জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন দিতে সমর্থ হবে সেটাই আশার বিষয়।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: