Home /News /national /
Medicine Price Increased: শুধু প্যারাসিটামল, অ্যাজিথ্রোমাইসিন নয়, বাড়তে পারে ডায়াবেটিসের এই সব ওষুধের দামও!

Medicine Price Increased: শুধু প্যারাসিটামল, অ্যাজিথ্রোমাইসিন নয়, বাড়তে পারে ডায়াবেটিসের এই সব ওষুধের দামও!

Essential Medicines Price: জ্বর, সংক্রমণ, চর্মরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, রক্তাল্পতা এবং হৃদরোগের চিকিত্সার জন্য ব্যবহৃত অপরিহার্য ৮০০ টিরও বেশি ওষুধের নির্ধারিত দাম ১ এপ্রিল থেকে ১০.৭ শতাংশ বাড়বে

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পাইকারি মূল্য সূচকে (Wholesale Price Index) বার্ষিক পরিবর্তন হতে পারে ১০.৭৬ শতাংশ! জানিয়েছে ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (National Pharmaceutical Pricing Authority)! সূত্রের খবর, এই ঘোষণার পরেই প্যারাসিটামল, অ্যাজিথ্রোমাইসিন এবং সিপ্রোফ্লক্সাসিন হাইড্রোক্লোরাইডের মতো প্রায় ৮০০ টি প্রয়োজনীয় ওষুধের দাম (Medicine Price Increased) দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে। “বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রকের অর্থনৈতিক উপদেষ্টার কার্যালয়ের দেওয়া WPI (পাইকারি মূল্য সূচক) তথ্যের উপর ভিত্তি করে, ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালের WPI-তে বার্ষিক পরিবর্তন ১০.৭৬৬০৭ শতাংশ,” বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে NPPA। জ্বর, সংক্রমণ, চর্মরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, রক্তাল্পতা এবং হৃদরোগের চিকিত্সার জন্য ব্যবহৃত অপরিহার্য ওষুধের জাতীয় তালিকায় ৮০০ টিরও বেশি ওষুধের নির্ধারিত দাম ১ এপ্রিল থেকে ১০.৭ শতাংশ বাড়বে (Medicine Price Increased) বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

    আরও পড়ুন- রবিবারে আবার বাড়ল পেট্রোল ডিজেলের দাম! ১৩ দিনে ১১ বার বাড়ল জ্বালানির মূল্য

    ন্যাশনাল লিস্ট অফ এসেনশিয়াল মেডিসিনের (NLEM) জন্য NPPA-কে সর্বোচ্চ মূল্য (Medicine Price Increased) নির্ধারণের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। এই তালিকায় সাধারণ ওষুধ এবং চিকিৎসার সরঞ্জাম যেমন প্যারাসিটামল ট্যাবলেট, অ্যাজিথ্রোমাইসিন ট্যাবলেট, ওরাল রিহাইড্রেশন সল্ট, গ্লুকোজ ইনজেকশন এবং কপার IUD এবং কনডোমের মতো গর্ভনিরোধক অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এতে ইনসুলিন ইনজেকশন, ভিটামিন সি ট্যাবলেট এবং মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেটও রয়েছে।

    গত বছর, ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (National Pharmaceutical Pricing Authority) ২০২০ সালের ১.৮৮ শতাংশের তুলনায় পাইকারি মূল্য সূচকে ০.৫৩ শতাংশ বৃদ্ধির ঘোষণা করেছিল। ২০১৯ এবং ২০১৮ সালে এটি ছিল যথাক্রমে ৪.২৬ শতাংশ এবং ৩.৪৩ শতাংশ।

    ২০২১ সালের অক্টোবরে ওষুধের মূল্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা (National Pharmaceutical Pricing Authority) ১২ টি অ্যান্টিডায়াবেটিক জেনেরিক ওষুধের সর্বোচ্চ মূল্য নির্ধারণ করেছিল, যার মধ্যে রয়েছে গ্লিমিপিরাইড ট্যাবলেট, গ্লুকোজ ইনজেকশন এবং ইন্টারমিডিয়েট অ্যাক্টিং ইনসুলিন দ্রবণ। একটি ট্যুইটে, NPPA জানিয়েছিল, “প্রত্যেক ভারতীয়র জন্য ডায়াবেটিসের মতো রোগের বিরুদ্ধে চিকিত্সার খরচ বহন করা সম্ভবপর করে তোলার উদ্দেশ্যে, NPPA ১২ টি অ্যান্টিডায়াবেটিক জেনেরিক ওষুধের সর্বোচ্চ মূল্য নির্ধারণ করে একটি সফল পদক্ষেপ করেছে।”

    আরও পড়ুন- ছাতা রাখুন সঙ্গে, আর কিছু পরেই প্যাচপেচে গরম থেকে স্বস্তি দিতে পারে বৃষ্টি!

    এর অংশ হিসেবেই মেটফর্মিন কন্ট্রোল রিলিজ ৫০০ মিলিগ্রাম ট্যাবলেটের সর্বোচ্চ মূল্য (Medicine Price Increased) নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি ট্যাবলেটে ১.৫১ টাকা, ৭৫০ মিলিগ্রাম ট্যাবলেটের দাম ৩.০৫ টাকা এবং ১০০০ মিলিগ্রামের প্রতি ট্যাবলেটের দাম ৩.৬১ টাকা।

    ১০০০ মিলিগ্রাম মেটফর্মিন কন্ট্রোল রিলিজ ট্যাবলেটের ক্ষেত্রে প্রতি ট্যাবলেটের সর্বোচ্চ মূল্য ৩.৬৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। NPPA জানিয়েছে, ৭৫০ মিলিগ্রামের একই ট্যাবলেট প্রতি ২.৪ টাকা এবং ৫০০ মিলিগ্রামের মেটফর্মিন কন্ট্রোল রিলিজ ট্যাবলেটের জন্য ট্যাবলেট প্রতি দাম ১.৯২ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

    ১ মিলিগ্রাম গ্লিমিপিরাইড ট্যাবলেটের দাম ট্যাবলেট প্রতি ছিল ৩.৬ টাকা, এখন ২ মিলিগ্রাম ট্যাবলেট প্রতি দাম ৫.৭২ টাকা।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Medicine, Price Hike

    পরবর্তী খবর