corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্বাধীনতার পর এই প্রথম, ১৫ অগাস্ট সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ দেখবে কাশ্মীরে পাক সীমান্তের শেষ গ্রাম

স্বাধীনতার পর এই প্রথম, ১৫ অগাস্ট সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ দেখবে কাশ্মীরে পাক সীমান্তের শেষ গ্রাম
প্রতীকী ছবি৷

কুপওয়ারার ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর অনশূল গর্গ জানিয়েছেন, গত একবছর ধরে যুদ্ধকালীন ভিত্তিতে কেরান গ্রামে বৈদ্যুতিকরণের কাজ শেষ করা হয়েছে৷

  • Share this:

#কুপওয়ারা: স্বাধীনতার পর এই প্রথমবার৷ আগামী ১৫ অগাস্ট লালকেল্লা থেকে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের সরাসরি সম্প্রচার দেখতে পাবে উত্তর কাশ্মীরে ভারত- পাক সীমান্তের শেষ গ্রাম কেরানের বাসিন্দারা৷

একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, স্বাধীনতার পর ৭২ বছর পর্যন্ত কেরান গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ ছিল না৷ শুধুমাত্র সন্ধে ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত কিষান গঙ্গা নদীর পাড়ে এই গ্রামে জেনারেটরের সাহায্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হত৷ কিছুদিন আগেই আগে গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগের কাজ শেষ হয়েছে৷ ফলে, গ্রামবাসীরা এই প্রথমবার আগামী ১৫ অগাস্ট টেলিভিশনে সরাসরি লালকেল্লা থেকে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ দেখতে পারবেন৷

কেরান গ্রামে প্রায় ১২ হাজার পরিবারের বাস৷ দুর্গম এলাকার এই গ্রামটি এতদিন বছরের ৬ মাস জম্মু এবং কাশ্মীরের কুপওয়ারার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকে৷ কারণ শীতকালে বরফ জমে থাকায় এই গ্রামে পৌঁছনো বা সেখান থেকে কোথাও যাতায়াত করাই একরকম অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়৷ ফলে শুধু বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করাই নয়, ওই গ্রামের সঙ্গে সংযোগকারী রাস্তাও নতুন করে তৈরি করছে বিআরও৷ শীত পড়ার আগেই সেই কাজ শেষ হবে৷ ফলে, এবার বরফ পড়লেও তা পরিষ্কার করে সাধারণ মানুষের যাতায়াতের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে বলেই দাবি প্রশাসনের৷

কুপওয়ারার ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর অনশূল গর্গ জানিয়েছেন, গত একবছর ধরে যুদ্ধকালীন ভিত্তিতে কেরান গ্রামে বৈদ্যুতিকরণের কাজ শেষ করা হয়েছে৷

গোটা কুপওয়ারা জেলায় পাকিস্তানের সঙ্গে ১৭০ কিলোমিটার নিয়ন্ত্রণরেখা রয়েছে৷ এই পথে প্রচুর অনুপ্রবেশের ঘটনাও ঘটে৷ যদিও সব নির্বাচনেই কুপওয়ারার পাঁচটি বিধানসভা এবং ৩৫৬টি পঞ্চায়েত এলাকায় ভোটদানের হার যথেষ্ট বেশি থাকে৷

জম্মু- কাশ্মীর প্রশাসনের দাবি, গত বছর কেন্দ্রশাসিত এলাকা হিসেবে ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই অনুন্নত এবং দুর্গম এলাকাগুলিতে পরিকাঠামো উন্নয়নের বিপুল কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ইতিমধ্যেই ৫৯৭৯ কোটি টাকা মূল্যের ২২৭৩টি প্রকল্প অনুমোদন করা হয়েছে৷ তার মধ্যে ৫০৬টি প্রকল্প ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে৷ আরও ৯৬৩টি প্রকল্পের কাজ ২০২১ সালের মার্চ মাসের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: July 31, 2020, 10:04 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर