ভিসি সজ্জানার, 'দাবাং' অফিসার এই নিয়ে দু'বার এনকাউন্টারে খতম করলেন অভিযুক্তদের

ভিসি সজ্জানার, 'দাবাং' অফিসার এই নিয়ে দু'বার এনকাউন্টারে খতম করলেন অভিযুক্তদের
কমিশনার ভিসি সজ্জানার

মহিলা চিকিত্‍সককে গণধর্ষণ ও খুনে অভিযুক্তদের এনকাউন্টারে মৃত্যুর পরে হায়দরাবাদে হিরো সাইবারাবাদ পুলিশের কমিশনার সজ্জানার৷

  • Share this:

#হায়দরাবাদ: ভদ্রলোকের নাম ভিসি সজ্জানার৷ হায়দরাবাদে এই পুলিশ অফিসারকে মোটামুটি সকলেই চেনেন৷ মহিলা চিকিত্‍সককে গণধর্ষণ ও খুনে অভিযুক্তদের এনকাউন্টারে মৃত্যুর পরে হায়দরাবাদে হিরো সাইবারাবাদ পুলিশের কমিশনার সজ্জানার৷ এই নিয়ে দুটি এনকাউন্টার হায়দরাবাদে৷

২০০৮ সাল৷ তেলঙ্গানার ওয়ারাঙ্গলে দুই যুবতীকে অ্যাসিড হামলায় অভিযুক্ত ৩ জনেরই মৃত্যু হয় এনকাউন্টারে৷ এস শ্রীনিবাস রাও (২৫), পি হরিকৃষ্ণা (২৪), বি সঞ্জয় (২২)৷ পুলিশ জানায়, তিন জন হেফাজত থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিল৷ পুলিশ গুলি চালাতে বাধ্য হয়৷ এই তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ওয়ারাঙ্গলের একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের দুই ছাত্রীর উপর অ্যাসিড হামলা করে৷ এক তরুণী ঘটনাস্থলেই মারা যান৷ আরেকজেনর দীর্ঘ দিন চিকিত্‍সা চলে৷ গোটা হায়দরাবাদ ক্ষোভে যখন ফুঁসছে, তখনই এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় ৩ অভিযুক্তের৷

ভিসি সজ্জানার ভিসি সজ্জানার

সে বার ওয়ারাঙ্গল জেলা পুলিশের সিপি ছিলেন ভিসি সজ্জানার৷ আজ হায়দরাবাদে গণধর্ষণ ও খুনে ফুঁসছে গোটা দেশ, তখন সাইবারাবাদ পুলিশের কমিশনার ভিসি সজ্জানার৷ সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি৷ ভোরের আলো ফোটার আগে এনকাউন্টার৷ তারপর অভিযুক্তরা শেষ৷ ২৭ নভেম্বর ধর্ষণ ও খুনের ঘটনাটি ঘটে৷ ঠিক ১০ দিনের মাথায় এনকাউন্টারে খতম অভিযুক্তরা৷

হায়দারাবদের মহিলারা ভিসি সজ্জানারকে স্যালুট জানাচ্ছেন৷ পুলিশকে মিষ্টিমুখ করাচ্ছেন৷ পুষ্পবৃষ্টি হচ্ছে পুলিশ দেখলেই৷ সাইবারাবাদ পুলিশের কমিশনার ভি সি সজ্জানারের কথায়, 'ওদের কে আমরা জেরা করছিলাম৷ কী ভাবে ঘটনাটি ঘটায় ওরা৷ হঠাত্‍ ওরা আমাদের উপর হামলা চালায়৷ তারপর পালাতে শুরু করে৷ আমরা ওদের আত্মসমর্পণ করতে বলি৷ ওরা শোনেনি৷ কোনও উপায় না দেখে আমরা গুলি চালাই৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ৪ জনের৷' ২০০৮ সালেও একই বিবৃতি দিয়েছিলেন এনকাউন্টারের পরে৷

First published: 12:20:57 PM Dec 06, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर