• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অর্থনৈতিক সুবিধার আশায় অন্য দেশে প্রবেশ করলে তাঁরা উদ্বাস্তু নন, অনুপ্রবেশকারী: মন্তব্য ত্রিপুরা রাজ্যপালের

অর্থনৈতিক সুবিধার আশায় অন্য দেশে প্রবেশ করলে তাঁরা উদ্বাস্তু নন, অনুপ্রবেশকারী: মন্তব্য ত্রিপুরা রাজ্যপালের

  • Share this:

    #আগরতলা: অসম নাগরিকপঞ্জি বিতর্ক নিয়ে এবার মুখ খুললেন ত্রিপুরার রাজ্যপাল তথাগত রায় । কয়েকটি ট্যুইটে তিনি উদ্বাস্তু ও অনুপ্রবেশকারীদের মধ্যে পার্থক্য বুঝিয়ে দিয়েছেন।

    নিপীড়নের কারণে যাঁরা নিজেদের দেশ ছেড়ে যেতে বাধ্য হন তাঁরা উদ্বাস্তু, কিন্তু কেবলমাত্র অর্থনৈতিক সুযোগ সুবিধা পাওয়ার আশায় অন্য দেশে গিয়ে আশ্রয় নেন তাঁদের অনুপ্রবেশকারী ছাড়া আর কিছুই বলা চলে না ।

    খসড়া নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ গিয়েছে প্রায় ৪০লক্ষ মানুষের নাম । এই নিয়ে উত্তাল গোটা দেশ । দেশে বিভেদ সৃষ্টি করার অভিযোগে ইতিমধ্যেই শাসকদল বিজেপিকে কাঠগড়ায় তুলেছে বিরোধীরা । এনআরসি নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও । এবার বিরোধীদের কটাক্ষ করে ত্রিপুরা রাজ্যপাল জানিয়েছন যাঁরা এই খসড়াপঞ্জির বিরুদ্ধে নানারকম কথা বলে চলেছেন তাঁদের মুখ খোলার আগে অন্তত উদ্বাস্তু ও অনুপ্রবেশকারী-এই দুটি শব্দের সঠিক সংজ্ঞা জেনে নেওয়া উচিৎ ।  

    আরও পড়ুন: অসম NRC: প্রতিবাদে বিভিন্ন শাখায় রেল অবরোধ মতুয়া মহাসঙ্ঘের

    তিনি আরও জানিয়েছেন রাষ্ট্রসংঘের উদ্বাস্তু কমিটি অনুযায়ী বাংলাদেশ ও পাকিস্তান থেকে পালিয়ে আসা হিন্দু, মুসলমান, খ্রীষ্টান, শিখ ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী মানুষরাও হলেন উদ্বাস্তু; কিন্তু কোনও কারণে এই বিষয়টি এখনোও ভারতে মানা হয় না ।ভারতে অনুপ্রবেশকারী মুসলমানরা কখনোই উদ্বাস্তু নন কারণ তাঁরা স্বদেশে কোনওভাবে নিগৃহীত হন নি ।

    অসম খসড়াপঞ্জি প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই চলছে বিজেপি বনাম বিরোধীদের তরজা । অসমের অন্য রাজ্যেও একই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে চলেছে শাসকদল ।

    First published: