• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পরকীয়া করছেন স্ত্রী, সন্দেহে গোপনাঙ্গে বিদ্যুতের তার ঢুকিয়ে শক দিয়ে মারল জওয়ান

পরকীয়া করছেন স্ত্রী, সন্দেহে গোপনাঙ্গে বিদ্যুতের তার ঢুকিয়ে শক দিয়ে মারল জওয়ান

একের পর এক নৃসংশতার নজির গড়ে তুলছে এই দেশ ৷ ঘটনার বিভৎসতা চমকে ওঠার মতো ৷ স্ত্রীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক আছে সন্দেহে তাঁর গোপনাঙ্গে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মারল স্বামী ৷

একের পর এক নৃসংশতার নজির গড়ে তুলছে এই দেশ ৷ ঘটনার বিভৎসতা চমকে ওঠার মতো ৷ স্ত্রীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক আছে সন্দেহে তাঁর গোপনাঙ্গে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মারল স্বামী ৷

একের পর এক নৃসংশতার নজির গড়ে তুলছে এই দেশ ৷ ঘটনার বিভৎসতা চমকে ওঠার মতো ৷ স্ত্রীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক আছে সন্দেহে তাঁর গোপনাঙ্গে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মারল স্বামী ৷

  • Share this:

    #রায়পুর: একের পর এক নৃসংশতার নজির গড়ে তুলছে এই দেশ ৷ ঘটনার বিভৎসতা চমকে ওঠার মতো ৷ স্ত্রীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক আছে সন্দেহে তাঁর গোপনাঙ্গে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মারল স্বামী ৷ ওই যুবক ছত্তিশগঢ় আর্মড ফোর্স (সিএএফ)-এর জওয়ান ৷ ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগঢ়ের ভাটপাড়া জেলার বলদাবাজার এলাকায় ৷ জেরায় নিজের দোষ স্বীকারও করে নিয়েছে দান্তেওয়ারা জেলার ৬ নং ব্যাটেলিয়ানের কুক সুরেশ মিরি ৷ গতকাল বিকেলে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয় ৷ এরপরেই বাথরুমে কাপড় কাচতে ঢোকেন সুরেশের স্ত্রী লক্ষ্মী ৷ তখনই বাথরুমে ঢুকে স্ত্রীকে এলোপাথারি মারতে শুরু করেন সুরেশ ৷ প্রচণ্ড মারে অজ্ঞান হয়ে যান লক্ষ্ণী ৷ এরপরেই স্ত্রীর গোপনাঙ্গে বিদ্যুতের তার ঢুকিয়ে সুইচ অন করে দেন সুরেশ ৷ বিদ্যুতের শকে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় লক্ষ্মীর ৷

    আরও পড়ুন:  সবরীমালা মামলা: মন্দিরে প্রবেশ মহিলাদের সাংবিধানিক অধিকার, জানাল সুপ্রিম কোর্ট

    সরগাঁওয়ের অ্যাসিসট্যান্ট পুলিশ ইন্সপেক্টর পিটিআইকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে জানান, জেরায় নিজের দোষ কবুল করে নিয়েছেন সুরেশ ৷ স্ত্রীর অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্কে লিপ্ত এই সন্দেহেই তাঁকে মেরে ফেলেছেন বলেও জানান সুরেশ ৷ রাজধানী রায়পুর থেকে ৮০ কিলোমিটার দূরে ভাটপাড়ার একটি হাউজিং কলোনিতে দুই ছেলেমেয়েকে নিয়ে থাকতেন সুরেশ-লক্ষ্মী ৷ গতকাল এই বাড়িতেই ২৭ বছরের লক্ষ্মীকে শক দিয়ে মারেন বছর তেত্রিশের সুরেশ ৷ স্ত্রীকে খুন করে শ্বশুর, শাশুরিকে নিজেই ফোন করে খবর দেন মিরি ৷ বলেন লক্ষ্মী অসুস্থ বোধ করছেন ৷ এরপরেই একটি ভ্যান ভাড়া করে স্ত্রীর মৃতদেহ নিয়ে পাশের খাজরি গ্রামের পৈতৃক বাড়িতে যান ওই জওয়ান ৷ কিন্তু সেখানেই স্ত্রীর মৃতদেহ দেখে সকলের সন্দেহ হয় ৷ তখনই পুলিশে খবর দেন লক্ষ্মীর বাবা-মা ৷ পুলিশ এসে মৃতদেহ ময়নাচতদন্তে পাঠায় ৷ সুরেশকেও গ্রেফতার করা হয় ৷

    আরও পড়ুন: বোমা কেড়ে নিয়েছিল পৌলমীর হাত, কলকাতার নার্সিংহোমে কৃত্রিম হাত লাগনোর প্রক্রিয়া শুরু

    First published: