Home /News /national /
Coronavirus in India: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার নতুন করোনা আক্রান্ত, শীর্ষে মহারাষ্ট্র

Coronavirus in India: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার নতুন করোনা আক্রান্ত, শীর্ষে মহারাষ্ট্র

India Coronavirus Update

India Coronavirus Update

Coronavirus in India: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার ৭০৪ জন৷ শুক্রবার কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮,০৪৯৷ তবে দৈনিক সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্রই, সেখানে দৈনিক আক্রান্ত ৪৮ হাজার ২৭০ জন৷ সংক্রমণের পাশপাশি বেড়েছে মৃত্যুও৷ দেশে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৪৮৮ জনের৷

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি:  করোনা (Coronavirus in India) উদ্বেগ অব্যাহত৷ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার ৭০৪ জন৷ শুক্রবার কর্ণাটকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮,০৪৯৷ তবে দৈনিক সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্রই (Maharashtra)৷ সেখানে দৈনিক আক্রান্ত ৪৮ হাজার ২৭০ জন৷ সংক্রমণের পাশপাশি বেড়েছে মৃত্যুও৷ দেশে করোনাভাইরাসের কারণে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৪৮৮ জনের৷ এর মধ্যে মহারাষ্ট্রে মৃত ৫২, কর্ণাটকে (Karnataka) মৃত ২২৷

    কখনও আলো তো কখনও অন্ধকার৷ দেশ জোড়া করোনা গ্রাফের ওঠা আর নামা সম্পূর্ণ স্বস্তি দিচ্ছে না কখনওই৷ সপ্তাহান্তের কোভিড গ্রাফ অনুযায়ী সংক্রমণ কমলেও বেড়েছে মৃত্যু৷ এই পর্যন্ত দেশে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪ লক্ষ ৮৮ হাজার ৮৮৪-এ৷ সুস্থতার হার ৯৩.৩১ শতাংশ৷

    দেশ জুড়ে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে দক্ষিণী রাজ্য ৷ শুধু মাত্র বেঙ্গালুরুতেই আক্রান্ত ২৯, ০৬৮৷ কর্ণাটকে মোট সক্রিয় রোগীর বেশিরভাগ বেঙ্গালুরু থেকেই৷  তবে মহারাষ্ট্রে স্কুল খোলার তোড়জোড় শুরু করেছে সরকার৷ আগামী সপ্তাহ থেকেই মুম্বই-সহ মহারাষ্ট্রের সব স্কুল খুলে যাবে বলে জানিয়েছে শিক্ষামন্ত্রী৷ প্রস্তাব মেনে নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও৷

    আরও পড়ুন - প্রয়াত কিংবদন্তি ফুটবলার ও কোচ সুভাষ ভৌমিক, ময়দানে শোকের ছায়া

    এই মুহূর্তে দিল্লির করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে৷ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সারা দেশের মোট আক্রান্তের তুলনায় রাজধানীর অবস্থা অনেকটাই ভাল৷ তবে সপ্তাহান্তে কার্ফু তুলে নেওয়ার ভাবনা থাকলেও, বাকি বিধিনিষেধ বহাল থাকছেই৷

    আরও পড়ুন: জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে লোহাদহ ফেরিঘাট পারাপার, ব্রিজ নির্মানের দাবিতে সরব স্থানীয়রা

    পাশাপাশি ওমিক্রন (OMICRON) উদ্বেগও রয়েছে৷ মৃত্যুহার কম হলেও এই স্ট্রেন যে উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয় সে কথা বলেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখ্য বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন৷ ১০ হাজার পার করে ফেলেছে এই নয়া ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা৷ সুতরাং মাস্কের ব্যবহার এবং সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা আবশ্যিক প্রয়োজন৷ পাশাপাশি সমীক্ষায় এও উঠে আসছে যে শুধুমাত্র দুটি ভ্যাকসিন নয়৷ করোনার নতুন স্ট্রেন ওমিক্রনের প্রতিরোধ ক্ষমতা কমাতে বুস্টার ডোজও জরুরি৷ গবেষকদের মতে তিনটি ডোজ হলে তবেই টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে বলা যাবে৷ তবে  তৃতীয় ঢেউ থেকে প্রায় মুক্তই শিশুরা৷

    ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের নজরে এসেছে ওমিক্রনেরই আরও এক ভ্যারিয়েন্ট৷ ব্রিটেনে এই ভ্যারিয়েন্টের ৪২৬টি কেস পাওয়া গিয়েছে৷ আশার কথা ভারতে এখনও এর সন্ধান মেলেনি৷

    Published by:Rachana Majumder
    First published:

    Tags: Coronavirus, Omicron

    পরবর্তী খবর