দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

সীমান্তে উত্তেজনা প্রশমনে আজ ফের বৈঠকে ভারত-চিন, আলোচনায় দুই দেশের সেনার কমান্ডাররা

সীমান্তে উত্তেজনা প্রশমনে আজ ফের বৈঠকে ভারত-চিন, আলোচনায় দুই দেশের সেনার কমান্ডাররা

প্যাঙ্গং লেকের তীর থেকে ভারতীয় সেনা কোনও ভাবেই সরে আসবে না বলেও চিনকে জানিয়ে দেওয়া হবে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: সীমান্ত নিয়ে পূর্ব লাদাখে যে চরম সংঘাতের আবহ তৈরি হয়েছে, তা দূর করতে আজ, সোমবার ভারত এবং চিনের মধ্যে আরও একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হতে চলেছে। এদিন দুপুর ১২টায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার (এলএসি) ওপারে লাদাখের চুশুল সেক্টরে দু-দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে কর্পস কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক হবে বলে জানা গিয়েছে।ভারতের পক্ষ থেকে সেই বৈঠকে থাকবেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং ও লেফটেন্যান্ট জেনারেল পিকেজি মেনন।

পূর্ব লাদাখের সব বিতর্কিত এলাকা থেকে একেবারে সেনা সরানোর উপরেই জোর দেবে ভারত। নতুন করে যাতে সীমান্তের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক না হয়ে ওঠে, নতুন করে যাতে সংঘর্ষে না জড়িয়ে পড়ে দু'দেশ, সেই বিষয়ে আলোচনা করতেই বৈঠকে বসতে চলেছে ভারত-চিন। ভারত চাইছে চিন নিজের অবস্থান বদলে পিছিয়ে যাক। সূত্রের খবর অনুযায়ী, আলোচনার এজেন্ডা হল পূর্ব লাদাখের সমস্ত সংঘাতের স্থান থেকে সেনা প্রত্যাহারের জন্য একটি রোডম্যাপ প্রস্তুত করা। উল্লেখ্য, এর আগে আরও ৬ বার ভারত এবং চিনের সেনাবাহিনীর মধ্যে কর্পস কমান্ডার স্তরে বৈঠক হয়েছে। কিন্তু তাতে কোনও সমাধান মেলেনি। ফলে লাদাখে এখন চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে রয়েছে দুই দেশের জওয়ানরা।

সিএসজি-র শীর্ষ মন্ত্রীরা এবং সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা শুক্রবার পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করেছেন। সিএসজিতে তিন সেনা প্রধান ছাড়াও বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা অজিত দোভাল এবং চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত ছিলেন। সেই বৈঠকেই চিনের উপর চাপ তৈরির করার সব ছক তৈরি করা হয়েছে। আজকের বৈঠকে লালফৌজের কোনও রকম অনৈতিক দাবিকে প্রশয় দেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, প্যাঙ্গং লেকের দক্ষিণ উপকূলে বেশ কয়েকটি কৌশলগত অবস্থান থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহারের জন্য চিনের যে কোনও দাবির তীব্র বিরোধিতা করবে ভারত। ভারত বিশ্বাস করে যে সমস্ত সংঘর্ষ পয়েন্ট থেকে সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া একই সঙ্গে শুরু করা উচিত। আজকের বৈঠকে লালফৌজের কোনও রকম অনৈতিক দাবিকে প্রশয়  দেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সীমান্তে চিনের আগ্রাসন নিয়ে ভারতের পাশে আমেরিকা। চিন ভারতের উত্তর সীমান্তে ৬০ হাজার সেনা মোতায়েন রেখেছে, এই মন্তব্য করে বেজিংয়ের 'খারাপ ব্যবহার'কে নিশানা করেছেন মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেয়ো। 'কোয়াড' ভুক্ত দেশ অর্থাৎ ভারত, আমেরিকা, জাপান ও অস্ট্রেলিয়াকে চিনের হুমকি দেওয়ার চেষ্টা নিয়ে তোপ দাগেন তিনি।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: October 12, 2020, 8:59 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर