দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

যোনির অঙ্গছেদ অর্থাৎ খতনা প্রথা নিয়ে প্রশ্ন তুলল সুপ্রিম কোর্ট

যোনির অঙ্গছেদ অর্থাৎ খতনা প্রথা নিয়ে প্রশ্ন তুলল সুপ্রিম কোর্ট
News18 Bangle Creative
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ‘ধর্মীয় রীতি’, এই কারণ দেখিয়ে বহুদিন ধরেই চলে আসছে শিশুকন্যার জেনিটাল মিউটিলেশন বা যোনির অঙ্গচ্ছেদের মতো নৃশংস প্রথা ৷ এই রীতি নিয়েই প্রশ্ন তুলল শীর্ষ আদালত ৷ একইসঙ্গে বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি খানউইলকর ও বিচারপতি চন্দ্রচূড়ের বেঞ্চ স্পষ্টভাবে জানিয়েছে, এমন প্রথা যা শিশুর যৌনাঙ্গের ক্ষতি করতে পারে তা কখনও কোনও ধর্মের অংশ হতে পারে না ৷ এমন প্রথা পালন করা সম্পূর্ণ বেআইনী ৷

মুসলিম ধর্মীয় গোষ্ঠীর একটি শাখার মধ্যে হাজার হাজার বছর ধরে চলে আসছে এই প্রথা ৷ এই রীতি পালনকে বলা হয় খাতনা ৷ প্রধানত দাউদি বোহরা নামের মুসলিম গোষ্ঠীর মানুষরাই বিশেষত এই প্রথার পালন করে থাকেন ৷

খাতনা বা জেনিটাল মিউটিলেশন প্রথায় আসলে কন্যা সন্তানের জন্মের পর থেকে বয়সন্ধির আগে অথবা ঋতুস্রাব শুরু হওয়ার আগে যোনির বাইরের কিছু অংশ ব্লেড দিয়ে কেটে ফেলা হয় ৷ ব্লেডের কোপে যৌনতা বা যৌনশিক্ষা সম্পর্কে কিছু জ্ঞান হওয়ার আগেই বাদ পড়ে যায় মেয়েটির ক্লিটোরিয়াস, ক্লিটোরাল হুড, ক্লিটোরাল গ্রন্থি, লেবিয়া এবং ভালভা সহ যোনির গুরুত্বপূর্ণ অংশ ৷ এই বিশেষ গোষ্ঠীর মানুষেরা বিশ্বাস করেন মেয়েদের শরীরের পবিত্রতা রক্ষায় এই প্রথা অতিআবশ্যক ৷ এর পিছনে কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখা না থাকলেও এদের বিশ্বাস, একমাত্র এই প্রথার মাধ্যমেই স্ত্রী দেহে কাম-যৌন আকাঙ্খা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব ৷

আরও পড়ুন 

যাদবপুরে কি আজ কাটবে জট? কর্মসমিতির বৈঠক ডাকলেন উপাচার্য

এই খাতনা প্রথা বন্ধ করতে চেয়েই সুপ্রিম কোর্টে দায়ের হয়েছিল মামলা ৷ এই মামলায় ‘দাউদি বোহরা উইমেনস অ্যাসোসিয়েশন ফর রিলিজিয়াস ফ্রিডম’র তরফে কংগ্রেস নেতা ও আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি আদালতে জানান, হাজার হাজার বছর ধরে এই প্রথার পালন চলছে ৷ ধর্মীয় রীতি পালনে আদালত বাধার সৃষ্টি করতে পারে না ৷ এই খাতনা প্রথা পালনে শিশুদের স্বাস্থ্যের কোনও ক্ষতি হয় না ৷ এই দাবির বিরোধীতা করে রকারের তরফে অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে ভেনুগোপাল বলেন, এতে শিশুদের মনে ছোটবয়সেই ট্রমার সৃষ্টি হয়, যা সারাজীবনের মতো প্রভাব রেখে যায় ৷ তাই এই খতনা প্রথাকে নিষিদ্ধ করার দাবি তোলা হয় ৷

আরও পড়ুন 

এই উপায়ে যৌন সুখই ডেকে আনছে মারাত্মক বিপদ!

উল্লেখ্য, বহু দেশই ইতিমধ্যেই এই প্রথাকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে ৷ এই খাতনা প্রথা সমগ্র মুসলিম গোষ্ঠী নয়, তার একটি বিশেষ শাখাই পালন করে থাকে ৷ ভারতে রাজস্থান, গুজরাট, দিল্লি, মহারাষ্ট্রে বসবাসকারী দাউদি বোহরা জনগোষ্ঠী এই প্রথা পালন করে ৷

First published: July 30, 2018, 5:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर