• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Bharati Ghosh: ভারতী ঘোষকে বড় দায়িত্ব দিল BJP! প্রাক্তন IPS-কে ঘিরে গেরুয়া শিবিরে জারি গুঞ্জন

Bharati Ghosh: ভারতী ঘোষকে বড় দায়িত্ব দিল BJP! প্রাক্তন IPS-কে ঘিরে গেরুয়া শিবিরে জারি গুঞ্জন

ভারতী ঘোষকে বড় দায়িত্ব

ভারতী ঘোষকে বড় দায়িত্ব

Bharati Ghosh: ২০১৯ লোকসভা ও ২০২১ বিধানসভা ভোটে বিজেপি-র হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন ভারতী ঘোষ। কিন্তু দুবারই হেরেছেন। তা সত্ত্বেও ভারতীকে এবার বড় পদ দিল বিজেপি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বাংলার বিধানসভা ভোটে অনেক ঢাকঢোল পিটিয়েও লাভ হয়নি। ২০০ আসনের স্বপ্ন দেখে ৭৭ আসনে থেমে যেতে হয়েছে বিজেপি-কে। আর তারপর থেকেই দলবদলের খেলা চালু হয়েছে। ভোটের আগে তৃণমূল থেকে বিজেপি যোগদানের হিড়িক পড়েছিল। ভোটের পর হয়েছে উল্টোটা। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল থেকে আসা বা তৃণমূলের সঙ্গে 'সম্পর্কযুক্ত' ব্যক্তিদের আর বড় পদ দেওয়ার পক্ষপাতী নয় বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। কিন্তু ভারতী ঘোষের (Bharati Ghosh) ব্যাপারই যেন আলাদা। ২০১৯ লোকসভা ও ২০২১ বিধানসভা ভোটে বিজেপি-র হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন ভারতী। কিন্তু দুবারই হেরেছেন। তা সত্ত্বেও ভারতীকে এবার বড় পদ দিল বিজেপি।

    রবিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি মারফৎ বিজেপি-র সর্বভারতীয় সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডার তরফে জানানো হয়, পশ্চিমবঙ্গ থেকে ভারতী ঘোষকে জাতীয় মুখপাত্রের দায়িত্ব দেওয়া হল। তাঁর সঙ্গে একই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে শাহজাদ পুনাওয়ালাকে। কিন্তু ভারতীয় এই পদ পাওয়া রাজ্য বিজেপি-র অন্দরে রীতিমতো সাড়া ফেলেছে।

    প্রাক্তন আইপিএস অফিসার ভারতী ঘোষ হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিক্স থেকে স্নাতক হন। তাঁর কর্মজীবন শুরু করেছিলেন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন বিভাগে (সিআইডি)। তিনি ২০১৯ সালে বিজেপিতে যোগ দেন। পরবর্তী সময়ে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে ঘাটাল কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসাবে তাঁর নাম মনোনীত করে বিজেপি। ২০২১ সালে বিধানসভা ভোটে তিনি ডেবরা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হন। এই কেন্দ্র থেকে তিনি আরেক আইপিএস অফিসার তৃণমূলের, হুমায়ুন কবীরের কাছে হেরে যান।

    আরও পড়ুন: বাংলার সংগঠনে ফাঁকফোঁকর কোথায়, সুকান্ত মজুমদারের সঙ্গে ফোনে অমিত শাহ

    আরও পড়ুন: ত্রিপুরায় তৃণমূল নেতাদের হোটেলে পুলিশি-হানা, আটক করা হবে সায়নী ঘোষকে?

    ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে সোনাপাচার-সহ বিভিন্ন ঘটনায় রয়েছে অন্তত ৩০টি অভিযোগ রয়েছে। তার যে কোনওটিতে যে কোনও সময় তাঁকে গ্রেফতার করতে পারে পুলিশ। ভোটের আগে এমন এক পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্ট থেকে বড় স্বস্তি পেয়েছিলেন প্রাক্তন IPS ভারতী ঘোষ। তাঁর গ্রেফতারির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল আদালত। ভোটযুদ্ধে নামার আগেই ভারতীর গলায় কাঁটা হয়ে ছিল সেই গ্রেফতারির সম্ভাবনা। সেই সম্ভাবনা দূর করে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ। এক সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে 'জঙ্গলমহলের মা' বলে ডেকে শোরগোল ফেলেছিলেন ভারতী। সেই তিনিই যখন বিজেপি-তে যোগ দেন, তা রীতিমতো সাড়া ফেলেছিল বঙ্গ রাজনীতিতে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: