• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • DELHI VIOLENCE CASE DEVANGANA KALITA NATASHA NARWAL AND ASIF IQBAL TANHA WERE RELEASED FROM TIHAR JAIL TODAY SANJ

Delhi Violence Case : তিহার জেল থেকে ছাড়া পেলেন CAA-বিরোধী 'আন্দোলনের মুখ' নাতাশা-দেবাঙ্গনা-আসিফ

অবশেষে মুক্তির স্বাদ Photo : File

ছাড়া পেলেন দিল্লি হিংসা মামলায় অভিযুক্ত নাতাশা নরওয়াল (Natasha Narwal), দেবাঙ্গনা কলিতা (Devangana Kalita) ও আসিফ ইকবাল (Asif Iqbal Tanha)। এর আগে দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court) জামিন দিলেও নির্দিষ্ট সময়ে তিহার জেল থেকে তাঁদের ছাড়েনি পুলিশ।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : অবশেষে বৃহস্পতিবার সন্ধে নাগাদ কারাগার থেকে ছাড়া পেলেন দিল্লি হিংসা মামলায় অভিযুক্ত নাতাশা নরওয়াল (Natasha Narwal), দেবাঙ্গনা কলিতা (Devangana Kalita) ও আসিফ ইকবাল  (Asif Iqbal Tanha)। এর আগে দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court) জামিন দিলেও নির্দিষ্ট সময়ে তিহার জেল থেকে তাঁদের ছাড়েনি পুলিশ। ঠিকানা সংক্রান্ত কারণে বিলম্বিত হয় তাঁদের জেলের বাইরে আসা। এরপরই দিল্লি হাইকোর্টের (Delhi High Court) তরফে ফের নির্দেশ দেওয়া হয় যাতে দ্রুত তাঁদের জেল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সেই নির্দেশের পর এদিন ছাড়া হয় তিন CAA বিরোধী আন্দোলনকারীকে (Anti CAA Activist) ।

    নতাশা নারওয়াল এবং দেবাঙ্গনা কালিতা 'পিঞ্জরা তোড়' নামে একটি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। তাঁরা মূলত নারীর অধিকার রক্ষা নিয়ে কাজ করেন। অন্যদিকে আসিফ ইকবাল তনহা জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার পড়ুয়া। গত বছরের মে মাসে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। UAPA ধারায় তাঁদের গ্রেফতার করেছিল দিল্লি পুলিশ। সেই তিনজনের জামিনের শুনানি চলাকালীন দিল্লি হাইকোর্ট পর্যবেক্ষণ দেয়, সংবিধান স্বীকৃত প্রতিবাদের অধিকার এবং সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ এক জিনিস নয়। এরপর এই তিনজন সিএএ বিরোধীকে জামিন দেয় আদালত। তবে ১৫ জুনের সেই রায়ের পরও মুক্তি দেওয়া হয়নি তিন ধৃতকে।

    ১৫ জুন বিচারপতি সিদ্ধার্থ মৃদুল এবং বিচারপতি অনুপ জয়রাম ভাম্ভানি তিন আবেদনকারীরই জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। প্রত্যেকেই দিল্লি হিংসায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করেছিল দিল্লি পুলিশ। সূত্রের খবর, বর্তমানে তিন জনকেই ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন দেন বিচারপতি সিদ্ধার্থ মৃদুল এবং অনুপ জয়রাম ভাম্ভানির বেঞ্চ। এমনকী তাদের উপর চাপানো ইউএপিএ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন দুই বিচারক।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: