Ayodhya Case: সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানাল কংগ্রেস

Ayodhya Verdict: তা হলে কংগ্রেস কি রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে? প্রশ্নের উত্তরে সুরজেওয়ালা জানান, কংগ্রেস রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে৷ তিনি বলেন, 'অযোধ্যা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত, কোনও ব্যক্তি, গোষ্ঠী, দল, সম্প্রদায়ের সাফল্য বা অসাফল্যের বিষয় নয়৷'

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 09, 2019 02:06 PM IST
Ayodhya Case: সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানাল কংগ্রেস
রণদীপ সুরজেওয়ালা
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 09, 2019 02:06 PM IST

#নয়াদিল্লি: অযোধ্যায় বিতর্কিত জমি মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানাল কংগ্রেসও৷ কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সম্মান জানানো হচ্ছে৷ রাম মন্দিরের পক্ষে রায় হয়েছে৷ অযোধ্যা মামলার রায়ের পর কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির রেজলিউশন পাস হয় কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটিতে৷

Loading...

সেই রেজলিউশনে সব দল ও সম্প্রদায়কে সুপ্রিম কোর্টের রায় মেনে নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে৷ কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা বলেন, 'সাংবিধানে সম্প্রীতি মেনে শান্তি ও সৌহার্দ্য বজায় থাকুক৷ পারস্পরিক সম্মান ও ঐক্যতা বজায় রাখা প্রত্যেকের কর্তব্য৷ প্রাচীনকাল থেকেই আমাদের সমাজ এই ধারা মেনে চলেছে৷'

তা হলে কংগ্রেস কি রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে? প্রশ্নের উত্তরে সুরজেওয়ালা জানান, কংগ্রেস রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে৷ তিনি বলেন, 'অযোধ্যা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত, কোনও ব্যক্তি, গোষ্ঠী, দল, সম্প্রদায়ের সাফল্য বা অসাফল্যের বিষয় নয়৷'

 

দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে লম্বা সময় ধরে চলা জমি মামলা। দীর্ঘ অপেক্ষার পর রায় দিতে গিয়ে কোনও জটিলতার রাস্তায় যাননি বিচারপতিরা। পাঁচ বিচারপতি একমত হয়েই রায় দিয়েছেন। স্পষ্ট করেছেন , ধর্ম বা বিশ্বাস নয়, আইনি অধিকারকে গুরুত্ব দিয়েছে আদালত। আদালতের রায়ের মূল অংশ পড়ে শোনান প্রধান বিচারপতি। বিতর্কিত জমিতেই ধর্মাচরণের অধিকার চেয়েছিল সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ও রামলাল বিরাজমান। তবে ওয়াকফ বোর্ড আবেদনে জানায়, মুসলিমদের ধর্মবিশ্বাস জড়িত বলেই জমির অধিকার তাদের দেওয়া হোক। পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ জানিয়েছে, বিশ্বাসের ভিত্তিতে জমির মালিকানা দেওয়া যায় না। আইনি অধিকারের ভিত্তিতেই ওই জমি রামলালার বলে মেনে নিচ্ছে শীর্ষ আদালত।

First published: 02:06:32 PM Nov 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर