BYJU'S Young Genius: জেনে নিন তিনজন খুদে অঙ্কবিদ অবন্তিকা, জয়াদিত্য, চিরাগের আশ্চর্য কাহিনি

BYJU'S Young Genius-এর এই এপিসোডে জেনে নেওয়া যাক তিনজন অত্যন্ত মেধাবী খুদের বিষয়ে

BYJU'S Young Genius-এর এই এপিসোডে জেনে নেওয়া যাক তিনজন অত্যন্ত মেধাবী খুদের বিষয়ে

  • Share this:

BYJU'S Young Genius-এর এই এপিসোডে জেনে নেওয়া যাক তিনজন অত্যন্ত মেধাবী খুদের বিষয়ে। এরা হল জয়াদিত্য শেট্টি (Jayadithya Shetty), চিরাগ রাঠি (Chirag Rathi) এবং অবন্তিকা কাম্বলি (Avantika Kambli)। এদেরকে সাহায্য করেছেন সোহা আলি খান (Soha Ali Khan), ডক্টর আর এ মাহসেলকর (Dr. RA Mahselkar) এবং ডক্টর অনিল কাকোদকর (Dr. Anil Kakodkar)।

এগারো বছরের মুম্বইয়ের জয়াদিত্য শেট্টি ২০১৯ সালে বিখ্যাত প্রতিযোগিতা মেমোরিয়াড টার্কি ওপেন চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে হইচই ফেলে দেয়। অঙ্ক, মেন্টাল ম্যাথ, স্পিড রিডিং এবং স্মৃতিশক্তি নিয়ে এই প্রতিযোগিতা হয়। ছোটদের মেন্টাল ম্যাথস বিভাগে এবং বাইনারি সংখ্যা বিভাগে বিশ্ব রেকর্ড করে জয়াদিত্য শেট্টি।

সর্বমোট ছয়টি ট্রফি, ছয়টি সোনার পদক, একটি রgপোর পদক ও একটি ব্রোঞ্জ পদক জেতে এই খুদে। নিজেকে ম্যাথলেট অর্থাৎ অঙ্কের খেলোয়াড় বলতে ভালোবাসে জয়াদিত্য। বিশ্ব জুড়ে অন্যান্য যে সব অঙ্কের জাদুকররা আছেন, যেমন ইউসিবিয়াস নোরোনহা (Eusibius Noronha), মেলিক দুয়ার (Melik Duyar), প্রয়াত শকুন্তলা দেবী(Shakuntala Devi), ইউস্নিয়ার ভিয়েরা (Yusnier Viera), জিওঙ্ঘি লি (Jeonghee Lee) এঁদের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে এই ছোট্ট ছেলেটি। অঙ্ক কষা ছাড়াও ভারতীয় ক্রিকেট টিম ও ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলির (Virat Kohli) অন্ধ ভক্ত জয়াদিত্য।

দশ বছরের অবন্তিকা কাম্বলিও পিছিয়ে নেই। ৬ ডিজিটের ইমপারফেক্ট বর্গমূল বিভাগে প্রথম দশে এসেছে এই মেয়ে। এর আগেও জার্মানি, দুবাই, সিঙ্গাপুরের মতো বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অঙ্ক প্রতিযোগিতায় ভারতের মুখ উজ্জ্বল করেছে ছোট্ট অবন্তিকা। টার্কির মেমোরিয়াড ওপেন চ্যাম্পিয়নশিপে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অবন্তিকা। দেখা গিয়েছে যে মাত্র দশ বছরেই বিদ্যুৎ গতিতে ৩x৩x৩ রিউবিক কিউব চোখ বেঁধে সমাধান করে দিচ্ছে সে। ২x২x২ রিউবিক কিউব আর স্ট্যান্ডার্ড পিরামিডও সমাধান করছে ঝড়ের গতিতে।

খুব ছোটবেলা থেকেই মুখে মুখে নামতা শিখে নিত অবন্তিকা। আর সেটা দেখেই আরও উচ্চমানের অঙ্ক শিখতে তাকে ভর্তি করে দেয় অবন্তিকার বাবা মা। বিভিন্ন সংখ্যার বর্গমূল নিয়ে অঙ্ক কষা অবন্তিকার বৈশিষ্ট্য।

অঙ্ক ছাড়া বেহালা বাজানো এবং গাছ বসানোয় আগ্রহ আছে মেয়ের। হতে চাই ভবিষ্যতের শকুন্তলা দেবী, জানিয়েছে সে।

পনেরো বছরের চিরাগ রাঠি ২০ কোটি পর্যন্ত সংখ্যা যোগ, বিয়োগ ও গুণ করতে পারে। ভাবলে গায়ে কাঁটা দেয় যে ৪০ কোটি পর্যন্ত নামতা বলতে পারে চিরাগ। ১০০ কোটি পর্যন্ত সংখ্যার বর্গমূল, কিউব ও কিউব রুটে সিদ্ধহস্ত সে।

ছোট্ট গ্রামের চাষির ছেলে চিরাগের তুলনা ইতিমধ্যে শকুন্তলা দেবীর সঙ্গে করা হচ্ছে। অর্থের অভাবে এখনও কোনও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ভাগ নিতে পারেনি চিরাগ। খুদের প্রতিভার কথা প্রথম বুঝতে পারেন তার শিক্ষকরা। মহেন্দ্র সিং ধোনির (Mahendra Singh Dhoni) ভক্ত চিরাগ একদিন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা জিতে নিজের গ্রামের মুখ উজ্জ্বল করবে বলে জানিয়েছে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: