দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেরলের পুরসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম 'করোনা', চারদিকে স্লোগান 'জয় করোনার জয়'

কেরলের পুরসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম 'করোনা', চারদিকে স্লোগান 'জয় করোনার জয়'

গোটা বিশ্বে করোনা হাহাকার! চারপাশে শোনা যাচ্ছে 'গো করোনা গো' বুলি! কিন্তু দক্ষিণ কেরলের কোল্লমে চিত্রটা পুরোটাই আলাদা! সেখানে শোনা যাচ্ছে 'করোনা কী জয়' ধ্বনি...

  • Share this:

#কেরল:  গোটা বিশ্বে করোনা হাহাকার! চারপাশে শোনা যাচ্ছে 'গো করোনা গো' বুলি! কিন্তু দক্ষিণ কেরলের কোল্লামে চিত্রটা পুরোটাই আলাদা! সেখানে শোনা যাচ্ছে 'করোনা কী জয়' ধ্বনি! অবাক হওয়ারই কথা! তবে, এই করোনা মারণ ভাইরাস নয়, দক্ষিণ কেরলের কোল্লাম পুরসভা নির্বাচনে মাথিলিল ওয়ার্ড থেকে বিজেপির হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছেন যে প্রার্থী, তাঁর নাম করোনা, ২৪ বছর বয়সি ওই মহিলার নাম করোনা থমাস।

এখন চলছে নির্বাচনী প্রচার। প্রতিদিনই শোনা যাচ্ছে 'জয় করোনার জয়' স্লোগান, নির্বাচনী হোর্ডিংয়ে লেখা, ‘‌করোনাকে ভোট দিন’... সব মিলিয়ে বেশ ভজঘট পরিস্থিতি কোল্লামে, এহেন নামের জন্য শিরোনামে উঠে আসতে সময় লাগেনি করোনা থমাসের। তবে, করোনা ভাইরাস করোনা থমাসের প্রতিও দয়ালু ছিল না। তাঁর শরীরেও থাবা বসিয়েছিল মারণ ভাইরাস। কোভিড পজিটিভ অবস্থাতেই অক্টোবর মাসে সন্তানের জন্ম দেন বিজেপি প্রার্থী। তখনও নামের জন্য খবরে এসেছিলেন, এখন ফের একবার! আপাতত মা ও সদ্যোজাত দু'জনেই করোনার থাবা থেকে মুক্ত, সম্পূর্ণ সুস্থ। কিন্তু নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে নামের কারণে বহুবার অপ্রস্তুত হয়ে হয়েছিল করোনা থমাসকে। তাঁর ভাষায়, '' প্রথমদিকে মানুষ আমার দিকে কেমন অবাক নজরে দেখত। আমি তাঁদের বোঝাই যে, তাঁরা এই বছর প্রথম করোনা নামটা শুনছে, কিন্তু আমার বাবা ২৪ বছর আগেই আমার নাম করোনা রেখেছিল। তাঁরাও ধীরে ধীরে বুঝতে পারে। এখন সাধারণ মানুষ আমায় তাঁদেরই একজন হিসাবে গ্রহণ করেছেন। আশা করি এর প্রতিফলন ব্যালট বাক্সেও পড়বে।''

কিন্তু কেন এই নাম?‌ করোনা থমাস জানান, '' বাবা শিল্পী। জমজ দুই সন্তানের ইউনিক নামকরণ করতে চেয়েছিলেন। ছেলের নাম রেখেছিলেন কোরাল আরক মেয়ের নাম করোনা।'' শ্বশুরবাড়ি বিজেপি সমর্থক। স্বামী জিনু সুরেশই করোনাকে রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে উৎসাহিত করেন। করোনার ভাষায়, '' বিয়ের আগে রাজনীতি সম্পর্কে তেমন কিছু বুঝতাম না। আমার স্বামী সক্রিয় রাজনীতিতে যুক্ত। বিয়ের পর রাজনীতিতে উৎসাহ পাওয়া শুরু করলাম।''

Published by: Rukmini Mazumder
First published: November 20, 2020, 7:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर