হোম /খবর /দেশ /
২ বছরের মেয়েকে জলে ডুবিয়ে হত্যা তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কাজ হারানো বাবার

অর্থাভাবে ২ বছরের মেয়েকে সরোবরের জলে ডুবিয়ে হত্যা তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কাজ হারানো বাবার

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Bengaluru Murder: অভিযুক্ত ৪৫ বছর বয়সি রাহুল পারমারের বক্তব্য, সে ঋণগ্রস্ত৷ তাই মেয়েকে খাওয়ানোর সঙ্গতি নেই তার

  • Share this:

বেঙ্গালুরু : ২ বছরের শিশুকন্যাকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কর্মরত বেঙ্গালুরুর এক যুবকের বিরুদ্ধে৷ অভিযোগ, গাড়ি চালিয়ে মেয়েকে শহরের বাইরে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে খুন করেছে সে৷ এমনকি, খুনের আগে মেয়েকে কেক পেস্ট্রিজাতীয় খাবারও কিনে দিয়েছিল৷ খেলাও করেছিল শিশুর সঙ্গে৷ অভিযুক্ত ৪৫ বছর বয়সি রাহুল পারমারের বক্তব্য, সে ঋণগ্রস্ত৷ তাই মেয়েকে খাওয়ানোর সঙ্গতি নেই তার৷

পুলিশের দাবি অভিযুক্ত রাহুল জেরায় জানিয়েছে ‘‘মেয়েকে খাওয়ানোর মতো টাকা ছিল না আমার কাছে৷ মেয়েকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে গেলে পরিস্থিতি আরও সঙ্গীন হত আমার ক্ষেত্রে৷ মেয়ে খুব কাঁদছিল৷ ওকে বুকে জড়িয়েই আমি সরোবরের জলে ঝাঁপ দিই৷ তবে আমি বেঁচে যাই৷ কারণ সেখানে জল বেশি ছিল না৷ মেয়ের নিথর দেহ জলে ফেলে রেখেই আমি চলে আসি সে জায়গা ছেড়ে৷ একজন মোটরবাইক আরোহীকে বলি বঙ্গারপেট রেলওয়ে স্টেশনের কাছে আমাকে নামিয়ে দিতে৷’’

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে স্ত্রীর গয়না ইতিমধ্যেই বন্ধক দিয়েছে ঋণজর্জরিত রাহুল৷ তার পর স্ত্রীর কাছে ডাকাতির মিথ্যে গল্প ফেঁদে বসে৷ তার আশঙ্কা ছিল, কিছু দিনের মধ্যেই তাকে ঋণদাতারা উত্যক্ত করবে টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য৷ ঋণখেলাপের দায়ে তার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করা হতে পারে বলেও মনে হয়েছিল৷

আরও পড়ুন : চলতি বছরেই যাত্রী নিয়ে মেট্রো দৌড়তে পারে গড়িয়া থেকে রুবি

২ বছরের মেয়ে জিয়াকে হত্যার অভিযোগে রাহুলকে গ্রেফতার করেছে কোলার পুলিশ৷ অভিযোগ, বেঙ্গালুরু-কোলার হাইওয়ের ধারে কেন্দত্তি এলাকায় একটি লেকে জিয়াকে খুন করা হয়৷ গত ১৫ নভেম্বর থেকে বাবা-মেয়ের কোনও সন্ধান মিলছিল না৷ তার পর রাহুলের স্ত্রী ভাব্যা পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান৷ পরের দিন জিয়ার দেহ উদ্ধার হয় লেক থেকে৷ পুলিশের ধারণা হয়েছিল রাহুলও লেকের জলে ডুবে আত্মহত্যা করেছে৷

আরও পড়ুন :  পরিচারিকার সঙ্গে শারীরিক মিলনের সময় বৃদ্ধের মৃত্যু, দেহ লোপাটের দায়ে গ্রেফতার ৩

আদতে গুজরাতের বাসিন্দা রাহুল চাকরি করছিল বেঙ্গালুরুতে৷ বিটকয়েন কারবারে সে চাকরি হারায়৷ তাঁর দায়ের করা নকল ডাকাতির অভিযোগে একটি পুলিশি তদন্তও চলছে৷ স্ত্রীর সব গয়না বন্ধক রেখে সে ডাকাতির গল্প তৈরি করেছিল৷

পুলিশের দাবি রাহুল জেরায় জানিয়েছে মেয়েকে হত্যার পর আত্মঘাতী হওয়ার পরিকল্পনা করে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল সে৷ কিন্তু যত সময় এগোতে থাকে, সে দ্বিধান্বিত হয়ে পড়ে৷ অনেক বার ভেবেছিল, গাড়ি চালিয়ে ফিরে যাবে আবার বাড়িতে৷ কিন্তু পরমুহূর্তেই পাওনাদারদের আতঙ্ক, ভুয়ো ডাকাতির গল্পের তাড়না গ্রাস করে তাকে৷ দ্বিধা দোলাচলের মধ্যেই গাড়ি চালিয়ে বিকেলের মধ্যে পৌঁছে গিয়েছিল সরোবরের পাশে৷

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Bengaluru, Murder