হোম /খবর /মালদহ /
অর্থ বরাদ্দের পর পাশ হয় টেন্ডার, তিন বছরে রাস্তা না হলেও উধাও টাকা!

Malda News: পথশ্রীর কাজ শুরুর মধ্যেই রাস্তার পুরানো বরাদ্দ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ মালদহে

X
title=

তিন বছরেও রাস্তা তৈরি হয়নি। উল্টে বরাদ্দ টাকা এখন উধাও হয়ে গিয়েছে! এই নিয়ে এলাকার পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন গ্রামের মানুষ।

  • Hyperlocal
  • Last Updated :
  • Share this:

মালদহ: সদ্য পথশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যজুড়ে ১২ হাজার কিলোমিটার রাস্তা তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সিঙ্গুর থেকে সেই প্রকল্পের সূচনাও করেছেন তিনি। এরই মধ্যে মালদহের একটি রাস্তা তৈরি নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠল। এলাকার মানুষের অভিযোগ, রাস্তা তৈরির প্রকল্পটি ছাড়পত্র পাওয়ায় বরাদ্দ হয় প্রায় সাড়ে ৩০ লক্ষ টাকা। এরপর নিয়ম মেনে টেন্ডার পাস‌ও হয় ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে। কিন্তু গত তিন বছরেও রাস্তা তৈরি হয়নি। উল্টে বরাদ্দ টাকা এখন উধাও হয়ে গিয়েছে! এই নিয়ে এলাকার পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন গ্রামের মানুষ।

রাস্তা তৈরি না করে প্রকল্পের টাকা নয়ছয় করার এই অভিযোগটি মালদহের কালিয়াচক-১ পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে উঠেছে। এখানকার রামা শঙ্করটোলা গ্রামের। বাসিন্দারা জানান, দীর্ঘদিন ধরে এলাকার রাস্তা খারাপ হয়েছিল। বারবার প্রশাসনের দারস্থ হওয়ার পর ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে এই রাস্তা তৈরির জন্য অর্থ বরাদ্দ হয়। কিন্তু প্রথমে রাস্তার উপর মাটি ফেলার পর আর কোন‌ও কাজ হয়নি। উল্টে রাস্তার দু'ধারে দুটি ফলক বসানো হয়েছিল। যদিও পরবর্তীতে সেই ফলক কেউ বা কারা তুলে নেয়। গত তিন বছরেও রাস্তা তৈরি না হওয়ায় এলাকার মানুষ জেলাশাসক ও ব্লক প্রশাসনের কাছে এই নিয়ে বারবার দরবার করেন। কিন্তু তাতে কোন‌ও লাভ হয়নি। এর পরই জানা যায়, রাস্তা তৈরির জন্য বরাদ্দ অর্থই নেই ফান্ডে! এই ঘটনা জানাজানি হতেই কালিয়াচক-১ পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে রাস্তা তৈরির বরাদ্দ ৩০ লক্ষ ৫৯ হাজার টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ তুলেছেন এলাকার মানুষ।

আরও পড়ুন: পুরুষতান্ত্রিক বাবা কী করে মেয়ের প্রতি সহমর্মী হল সেই গল্পই বলে 'সামাল সামাল রে'

যদিও গ্রামবাসীদের তোলা অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন কালিয়াচক-১ পঞ্চায়েতের প্রধান মহম্মদ আলি শেখ। উল্টে তাঁর দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার কোন‌ও টাকা দিচ্ছে না। প্রকল্পের টাকা বন্ধ রাখাতেই রাস্তা তৈরির কাজ আটকে আছে।

এই প্রসঙ্গে কালিয়াচক-১ ব্লকের বিডিও সেলিম হাবিব বিশ্বাস বলেন, ওই এলাকার গ্রামবাসীরা আমার কাছে রাস্তার বিষয় নিয়ে একটি মাস পিটিশন দিয়েছেন। এই রাস্তার তৈরির জন্য যে অর্থ প্রয়োজন বর্তমানে তা নেই। জটিলতার কারণে ১০০ দিনের কাজের টাকা আসছে না। তাঁর আশ্বাস, কেন্দ্র টাকা পাঠালেই রাস্তার কাজ শুরু হবে।

হরষিত সিংহ

Published by:kaustav bhowmick
First published:

Tags: Corruption, Malda News, Road Construction, TMC, West bengal