Home /News /malda /
Malda: দশ বছরের বেশি সময় ধরে বিনামূল্যে অ্যাথলেটিক প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে এই যুবক

Malda: দশ বছরের বেশি সময় ধরে বিনামূল্যে অ্যাথলেটিক প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে এই যুবক

title=

খেলোয়াড় গড়ছেন মালদহের অসিত পাল। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে দুস্থ প্রতিভাদের তুলে নিয়ে এসে নিজের হাতে তৈরি করছেন।

  • Share this:

    #মালদহ : খেলোয়াড় গড়ছেন মালদহের অসিত পাল। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে দুস্থ প্রতিভাদের তুলে নিয়ে এসে নিজের হাতে তৈরি করছেন। তাঁর হাত ধরেই রাজ্য ও জাতীয় স্তরে খেলার সুযোগ করে নিয়েছে অনেকেই। গত দশ বছর ধরে মালদহ শহরের চারটি মাঠে সকাল বিকেল প্রশিক্ষণ দিয়ে চলেছেন। কোন ছাত্রের কাছেই পারিশ্রমিক নেন না। উল্টে দুস্থদের খেলার সামগ্রী থেকে জুতো, জার্সি কিনে দেন। তাঁর কাছে প্রশিক্ষণ নিয়ে রাজ্য ও জাতীয় স্তরে সাফল্য পেয়েছেন অনেকেই। তাঁর হাত ধরেই চলতি বছর ৭০ বছরের ইতিহাসে সেরা খেলোয়াড় তকমা পেয়েছে মালদহের এক উঠতি প্রতিভা। ছোটবেলা থেকে খেলার নেশা অসিত পালের। স্কুল থেকে কলেজ স্তরে পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলো চালিয়ে গিয়েছিলেন। অ্যাথলেটিক হওয়ার স্বপ্ন ছিল অসিত পালের। পরিবারের আর্থিক অনটন ও ভালো প্রশিক্ষণের অভাবে তা বাস্তবায়িত হয়নি। সেই অর্থে মালদহে সেই সময় তেমন কোন অ্যাথলেটিকস প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ছিল না। তুলনামূলক প্রশিক্ষকের অভাবও ছিল জেলায়। বাধ্য হয়েই তাকে পিছু হটতে হয়। তবে তিনি লড়াই থামাননি। তাঁর মত আর কোন প্রতিভা যাতে নষ্ট না হয়, টাকার অভাবে যেন কেউ থেমে না থাকে।

    তাই নিজের প্রচেষ্টায় শুরু করেন উঠতি খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণ দেওয়া কাজ। অ্যাথলেটিক থেকে শুরু করে কাবাডি, খো-খো, ভলিবল, দৌড় সহ প্রায় সমস্ত ধরনের খেলার প্রশিক্ষণ দেন তিনি। শুধু প্রশিক্ষণ নয় পাশাপাশি কোথায় কোন খেলা হবে, কিভাবে সেখানে যেতে হবে সমস্ত কিছুই দেখিয়ে দেন অসিতবাবু। অসিত পালের বাড়ি পুরাতন মালদহের সাহাপুর পঞ্চায়েত এলাকায়। প্রথমদিকে বাড়ির পাশেই মহানন্দা তীরে একটি মাঠে প্রশিক্ষণ শুরু করেন। ধীরে ধীরে ছাত্র সংখ্যা বাড়তে শুরু করে। বর্তমানে তার অধীনে প্রশিক্ষণ নেয় প্রায় ২৬০ জন।

    আরও পড়ুনঃ একটু বৃষ্টিতেই জল কাদায় ভরা রাস্তা! চরম সমস্যায় এই গ্রামের মানুষজন

    বর্তমানে মালদহ বিমানবন্দর, জেলা ক্রিয়া সংস্থার মাঠ, মালদহ রেলওয়ে মাঠ ও পুরাতন মালদহের মহানন্দা তীরে একটি মাঠে নিয়মিত প্রশিক্ষণ দেন তিনি। শুধু মালদহ শহর সংলগ্ন নয়, জেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকেও বহু আগ্রহী খেলোয়ার তার কাছে নিয়মিত প্রশিক্ষণ নিতে আসছেন। তাঁর এমন উদ্যোগ দেখে অনেকেই এগিয়ে এসেছেন। জেলা ক্রিয়া সংস্থা তার পাশে দাঁড়িয়েছে। দুস্থ খেলোয়াড়দের অনেক সময় বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে থাকেন জেলার ক্রিয়াপ্রেমী মানুষদের একাংশ। অসিত পালের এমন উদ্যোগকে কুর্নিশ জানাতেই তারা এমনটা করে থাকেন।

    আরও পড়ুনঃ নিউজ ১৮ লোকালের খবরের জের! তড়িঘড়ি স্কুল ভবনের জায়গা পরিদর্শন জেলা প্রশাসনের

    আবার ইতিমধ্যে বেশ কিছু ছাত্র অসিত পালের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়ে সেনাবাহিনী ও আধা সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন। তারাও মাঝেমধ্যে সাহায্য করে থাকেন অসিত পালের স্পোর্টস কোচিং সেন্টারকে। নিজের স্বপ্ন হয়তো পূরণ হয়নি, ছাত্র-ছাত্রীদের সাফল্যের মধ্যেই তিনি এখন নিজেকে খুঁজে পান। তাদের সাফল্যই তার সাফল্য। এমন ভাবেই এগিয়ে চলেছেন মালদহে ক্রীড়া জগতের বিশিষ্ট মানুষ অসিত পাল।

    Harashit Singha
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Malda

    পরবর্তী খবর