• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Sputnik V| covid 19| দুর্গাপুরে শুরু হল স্পুটনিক ভি টিকা প্রদান, জেনে নিন টিকার খুঁটিনাটি

Sputnik V| covid 19| দুর্গাপুরে শুরু হল স্পুটনিক ভি টিকা প্রদান, জেনে নিন টিকার খুঁটিনাটি

photo source local 18

photo source local 18

Sputnik V| covid 19| কলকাতার বাইরে দক্ষিণবঙ্গে পথ চলা শুরু করল স্পুটনিক ভি(Sputnik V) । দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের হাত ধরে পশ্চিম বর্ধমানে শুরু হয়েছে স্পুটনিক ভি টিকাকরণ ।

  • Share this:

    #দুর্গাপুর:  টিকাকরণের জন্য প্রায় মাসখানেক আগে ভারত সরকারের অনুমতি পেয়েছে স্পুটনিক ভি (Sputnik V) । কিন্তু রাজ্যে, কলকাতার বাইরে সেই অর্থে পাওয়া যাচ্ছিল না রাশিয়ান এই টিকাটি। প্রথমদিকে স্পুটনিক ভি (Sputnik V) টিকা নিয়ে মানুষের উৎসাহ থাকলেও, টিকা অমিল হওয়ার জন্য উৎসাহে খানিকটা ভাটা পড়েছিল। তবে কলকাতার বাইরে দক্ষিণবঙ্গে পথ চলা শুরু করল স্পুটনিক ভি(Sputnik V) । দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের হাত ধরে পশ্চিম বর্ধমানে শুরু হয়েছে স্পুটনিক ভি টিকাকরণ ।

    স্পুটনিক ভি টিকা সংরক্ষণের জন্য প্রয়োজন একটি নিৰ্দিষ্ট কোল্ড চেইনের।  মাইনাস ১৮ থেকে মাইনাস ২৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে সংরক্ষিত করতে হয় স্পুটনিক' ভি (Sputnik V)  টিকার ভায়ালগুলি। কিন্তু সব জায়গায় সেই পরিকাঠামো না থাকায়, টিকার তালিকায় রাখা যাচ্ছে না স্পুটনিক' ভি এর নাম। তবে দীর্ঘ কয়েক মাস প্রচেষ্টার পর, সেই কোল্ড চেইন সিস্টেম চালু করতে পেরেছে দুর্গাপুরের মুচিপাড়ায় অবস্থিত বেসরকারি হাসপাতালটি। বৃহস্পতিবার একটি সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে রাশিয়ান এই টিকা প্রদান।

    প্রথম দিন থেকেই এই টিকা নেওয়ার জন্য মানুষের উৎসাহ ছিল তুঙ্গে। বুধবার থেকে ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য স্লট ছাড়তে শুরু করে হাসপাতালটি। এক দিনেই বুকিং হয়ে যায় অনেকগুলি। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে টিকাকরণ। টিকা নিতে আসা মানুষের মন্তব্য, স্পুটনিক ভি (Sputnik V) নেওয়ার জন্য দুটো কারণ প্রধানত রয়েছে। প্রথম কারণটি হল, বিশেষজ্ঞদের মতে এই টিকা, ডেল্টা প্লাস (Delta plus) প্রজাতির ওপরেও অনেকটা কার্যকরী। দ্বিতীয় কারণ, ভ্যাকসিন এর দুটি ডোজ নেওয়ার সময়ের মধ্যে ফারাক কম। তাই অনেকেই এই ভ্যাকসিন নিতে চাইছেন। তবে সব জায়গায় পাওয়া যাচ্ছে না এই টিকা।

    স্পুটনিক ভি (Sputnik V) টিকাকরণ সম্পর্কে হাসপাতালে ডেপুটি মেডিকেল সুপারিনটেনডেন্ট অভিষেক চ্যাটার্জী বলেছেন, ভ্যাকসিনটি ভারত সরকারের কাছে অনুমতি পাওয়ার পর থেকেই তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু টিকা সংরক্ষণের জন্য কোল্ডচেইন মেন্টেন করার জন্য অনেকটা সময় লেগেছে। তারপর সংস্থার তরফ থেকে অনুমতি পাওয়ার পরে টিকাকরণ এর কাজ শুরু হল। এই বিষয়ে ডক্টর অভিষেক চ্যাটার্জী বলেছেন, ভ্যাকসিন এর দুটি ডোজ নেওয়ার সময়ের ফারাক কম হওয়ার জন্য অনেকেই এই ভ্যাকসিন নিতে চাইছেন। তা ছাড়াও স্পুটনিক ভি এর একটি ডোজ ভাইরাসের ওপর ৮০ শতাংশ প্রতিরোধে কার্যকারী। দুটি ডোজ নেওয়া থাকলে, তা প্রায় ৯৫ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকরী হবে। সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী টিকার প্রতিটি ডোজের দাম রাখা হয়েছে ১১৪৫ টাকা।

    দেশে অন্য দুটি ভ্যাকসিন, অর্থাৎ কোভাক্সিন ও কোভিশিল্ডের ক্ষেত্রে প্রথম ডোজ নেওয়ার পরে, দ্বিতীয় ডোজ পাওয়ার জন্য, অনেককেই সমস্যায় ভুগতে হয়েছে। কারণ সে সময় টিকা যথেষ্ট পরিমাণে পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে স্পুটনিক ভি এর ক্ষেত্রে সেই ভয় নেই। কারণ স্পুটনিক ভি এর দুটি ডোজের জন্য দুটি আলাদা আলাদা ভায়াল রয়েছে। প্রথম ডোজের জন্য রয়েছে নীল রঙের একটি ভয়াল, এবং দ্বিতীয় ডোজের জন্য রয়েছে লাল রংয়ের একটি ভায়াল। একটি ভায়াল থেকে একজনকেই টিকা দেওয়া হচ্ছে। ফলে যারা স্পুটনিক ভি (Sputnik V) এর প্রথম ডোজ নেবেন, তাদের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার জন্য চিন্তা করতে হবে না।

    কোভাক্সিন এবং কোভিশিল্ডের ক্ষেত্রে যেমন একই ভায়াল থেকে দুটি ডোজ দেওয়া হচ্ছে, স্পুটনিক এর ক্ষেত্রে পুরো ব্যাপারটাই আলাদা। প্রথম ডোজ এবং বুস্টার ডোজ দেওয়ার জন্য, দুটি আলাদা আলাদা ভাবে তৈরি ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও এই বিষয়ে চিকিৎসক অভিষেক চ্যাটার্জী বলেছেন, স্পুটনিক লাইট বলে সিঙ্গেল ডোজের একটি ভ্যাকসিন তৈরি করা হয়েছে। যা এই মুহূর্তে তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালে রয়েছে। ভারত সরকারের অনুমতি পেলে স্পুটনিক লাইট ভ্যাকসিন দেওয়া হবে ১২ বছর থেকে ১৮ বছর বয়সীদের। বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকের আশা, খুব শীঘ্রই স্পুটনিক লাইট ভারত সরকারের কাছে অনুমতি পাবে। তারপরেই, ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু করতে চান তারা। স্পুটনিক  ভি ভ্যাকসিন শুরু হওয়ায়  খুশি দুর্গাপুরের মানুষ। কারণ অনুমতি পাওয়ার পর থেকেই অনেকে এই টিকা নেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু সবজায়গায় সেই সুযোগ পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে দুর্গাপুরের বেসরকারি হাসপাতালে হাত ধরে জেলার টিকার তালিকা নাম উঠল রাশিয়ান এই টিকাটির।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: