• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Bengal News| Bagnan: "ছাত্র ছাত্রীরাই সন্তান", বাগনানে শিক্ষারত্ন পেলেন ভাস্কর চন্দ্র আদক

Bengal News| Bagnan: "ছাত্র ছাত্রীরাই সন্তান", বাগনানে শিক্ষারত্ন পেলেন ভাস্কর চন্দ্র আদক

photo source local 18

photo source local 18

Bengal News| Bagnan: স্বভাবতই শিক্ষারত্ন সম্মান পেয়ে খুশি বাগনান হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান , " দীর্ঘ ৩২ বছর, ছ - মাসের কর্মজীবনের পর এরকম একটা সরকারি সম্মান পেয়ে সত্যিই উচ্ছ্বসিত আমি । এই সম্মান ভবিষ্যতে প্রতিটা মুহূর্তে চলার পথে আরও বেশি করে উৎসাহ যোগান দেবে । "

  • Share this:

    #বাগনান: শিক্ষাক্ষেত্রে দীর্ঘ ৩২ বছরের অবদানের জন্য এই বছরে শিক্ষক দিবসের দিন শিক্ষারত্ন সম্মানে ভূষিত হলেন হাওড়ার বাগনান (bagnan) হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ভাস্কর চন্দ্র আদক । রবিবার শিক্ষক দিবসের দিন ভার্চুয়াল শিক্ষক দিবস অনুষ্ঠানে জেলার ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট অফিসে পুলিশ কমিশনারের হাত থেকে শিক্ষারত্ন সন্মান গ্রহণ করলেন তিনি । প্রধান শিক্ষকের এই সম্মান অর্জনে খুশির হওয়া বাগনান হাই স্কুলের অন্যান্য শিক্ষক , শিক্ষাকর্মী ও ছাত্রদের মধ্যে ।

    ভাস্করবাবুর আদিবাড়ি অবিভক্ত মেদিনীপুরের(midnapore)  খাঞ্জাদাপুরে । কিন্তু ২০০০ সাল থেকেই তিনি পাকাপাকিভাবে হাওড়ার বাসিন্দা । ১৯৮৯  সালে তিনি বাগনান হাইস্কুলে ইংরেজি বিষয়ের অ্যাসিস্ট্যান্ট টিচার হিসেবে নিযুক্ত হন । সেখানে দীর্ঘ ১৪ বছর শিক্ষকতা করার পর ২০০৩ সালে বাগনান দু'নম্বর ব্লকের হাল্যান হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন । সে সময় হল্যান হাই স্কুলে কেবলমাত্র কলা বিভাগেই পড়াশোনা হতো । ধীরে ধীরে তার হাত ধরেই বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান বিভাগ শুরু হয় । স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সর্বদা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তা ছড়িয়ে দিতেন তিনি । অর্থাভাবে পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যাওয়া থেকে আটকাতে ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যক্তিগতভাবে আর্থিক সাহায্যও করেন তিনি । এলাকার অনগ্রসর পরিবারগুলির মেয়েদের শিক্ষার ব্যাপারে তাদের নানাভাবে উদ্বুদ্ধ করতে থাকেন ভাস্করবাবু । তার তত্ত্বাবধানে বিদ্যালয়ের শিক্ষাব্যবস্থার পরিকাঠামোয়ে অভূতপূর্ব উন্নতিও হয় ।

    হাল্যান হাইস্কুলে দীর্ঘ ১১ বছর প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বভার সামলানোর পর ২০১৪সালে ফের বাগনান হাই স্কুলে তিনি ফিরে আসেন প্রধান শিক্ষকের কার্যভার দিয়ে । শিক্ষাবিস্তারে তার সুদূর পরিকল্পনায় বাগনান হাই স্কুল থেকে ২০১৭ সালে উচ্চ মাধ্যমিকে হাওড়ায় প্রথম , ২০১৮ সালে উচ্চমাধ্যমিকে হাওড়ায় দ্বিতীয় , ২০১৯সালে উচ্চমাধ্যমিকে রাজ্যে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করে তার বিদ্যালয়ের ছাত্ররা । পাশাপাশি তার তত্ত্বাবধানে বাগনান হাই স্কুল জেলা পরিষদের তরফ থেকে শিক্ষা সম্মান ২০১৯- ২০ শিক্ষাবর্ষ ও ২০২০ সালে বিকাশ ভবন এর তরফ থেকে সেরা বিদ্যালযয়ের তকমাও লাভ করে ।

    শিক্ষক (teacher)  জীবনের প্রথম থেকেই ছাত্র-ছাত্রীদের নিজের সন্তান বলে মনে করেন তিনি । তাই শুধু পড়াশোনাতেই নয় , নিজের ছাত্র-ছাত্রীদের পাশে সর্বদাই ঢাল হয়ে দাঁড়ান তিনি । কোনো দুস্থ অথচ মেধাবী ছাত্র পয়সার অভাবে বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে না পারলে বা বই কিনতে অপারদ হলে নিজের উদ্যোগে তা তাদের হাতে তুলে দেন তিনি । তার বিদ্যালয়েরই কিছুদিন আগেই পিতা - মাতা হারানো এক দুস্থ মেধাবী ছাত্রের ডাক্তারি পাস না হওয়া পর্যন্ত পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন তিনি ।

    প্রধান শিক্ষক হিসেবে সর্বদাই তিনি জোর দেন ডিসিপ্লিন , পাংচুয়ালিটি ও কোয়ালিটি অফ এডুকেশনে । শুধুমাত্র ছাত্র-ছাত্রীদেরই নয় , এই নিয়ম পালন করতে হয় তার বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরও । শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সময়মতো ক্লাস নেওয়া , সঠিক সময়ে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করার মতো বিষয়গুলি কঠোরভাবে পালন করেন তিনি ।

    স্বভাবতই শিক্ষারত্ন (sikhsharatna) সম্মান পেয়ে খুশি বাগনান হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান , " দীর্ঘ ৩২ বছর, ছ - মাসের কর্মজীবনের পর এরকম একটা সরকারি সম্মান পেয়ে সত্যিই উচ্ছ্বসিত আমি । এই সম্মান ভবিষ্যতে প্রতিটা মুহূর্তে চলার পথে আরও বেশি করে উৎসাহ যোগান দেবে । "

    Santanu Chakraborty

    Published by:Piya Banerjee
    First published: